Electrical Tips for Engineers Viva

ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারদের ভাইভার জন্য প্রয়োজন।

১।  প্রঃ টিউব লাইট কত ফুট লম্বা ও কত ওয়াটের হয় ?
উ : ৪ ফুট ৪০ ওয়াট এবং ২ ফুট ২০ ওয়াট সাধারনত।

২। প্রঃ স্টার্টার ছাড়া টিউব লাইট জ্বালানো যায় কি ?

উঃ হ্যা যায়, পুশ বাটন সুইচ ব্যবহার করে অথবা তারে তারে সংযোগ করেই বিচ্ছিন্ন করে দিতে হয়।

৩। প্রঃ টিউব লাইট এক বার জ্বলে আবার পর মুহুর্ত্তেই নিভে এরূপ করতেছে – দোষ কোথয়?
উঃ স্টার্টার খারাপ কাজ করতেছে না।

৪। প্রঃ টিউব লাইটের দুই দিক জ্বলে থাকে পূর্ন ভাবে জ্বলে না – কারন কি ?
উঃ টিউবের ভিতর প্রয়োজনীয় গ্যাস নাই, অথবা প্রয়োজনীয় ভোল্টেজ পাচ্ছেনা, অথবা স্টার্টার সার্কিট ব্রেক করতেছে না অথবা চোক কয়েল দুর্বল হয়েপরেছে।

৫। সুইচ অফ করা সত্বেও হোল্ডারে সাপ্লাই পাত্তয়া যায়।
উ :সুইচ লাইনে ব্যবহার না করে নিউট্রালে ব্যবহার করা হয়েছে।

৬। কলিং বেলের আওয়াজ খুব বেশী কি ভাবে কমাবে ?
উ : কম পাওয়ারের বাতি কলিং বেলের সাথে সিরেজে ব্যবহার করে।

৭। একটি ডিসি জেনারেটর পূর্ণ স্পিডে ঘুরতেছে কিন্তু ভোল্টেজ উৎপন্ন হইতেছে না- কারন কি?
উ:         (১) ফিল্ডে রেসিডিয়্যাল মেগনেটিজম নেই
(২) জেনারেটর উল্টা ঘুরতেছে
(৩) ফিল্ডের কয়েল ওপেন
(৪) আর্মেচার কয়েল ওপেন
(৫) কার্বন ব্রাসের কম্যুটেটরে সংযোগ নেই।

৮। স্টার্টার মোটরর্স্টাট দেয়া ছারা আর কি কি কাজ করে?
উ: ইহা ওভার লোডে এবং সাপ্লাই চলে গেলে মোটরকে সোর্স হতে আপনা আপনি বিচ্ছিন্ন করে।

৯। একটি ১০ হর্স পাওয়ারের মোটর দ্বারা ১০ হর্স পাওয়ারের জেনারেটর ঘুরিয়ে তাহা হতে ১০ হর্স পাওয়ার জেনারেশন পাওয়া যাবে কি?
উ: না, কারন কখনও ইনপুট আউটপুট সমান হয় না।

১০। ডায়নামো কি ?
উ: ডিসি জেনারেটরকে ডায়নামো বলে।

১১। কোন প্রকার ওয়্যাইন্ডিং কখন ব্যবহ্নত হয় ?
উ: ল্যাপ ওয়্যাইন্ডিং বেশী কারেন্টের জন্য এবং ওয়েভ ওয়্যাইন্ডিং বেশী ভোল্টেজের জন্য ব্যবহ্নত হয়।

১২। তিন ফেজ হতে এক ফেজ নেয়া যায় কি ?
উ: হ্যাঁ, যদি স্টার কানেকশন থাকে, তবে একটি লাইন ও নিউট্রালে এক ফেজ সাপ্লাই পাওয়া যায়।

১৩। সিলিং ফ্যানের স্পিড কমে যাওয়ার কারন কি?
উ: পূর্ণ ভোল্টেজ পাচ্ছে না, না হয় ক্যাপাসিটর দুর্বল না হয় বল বিয়ারিং জ্যাম, না হয় কয়েলের ইন্সুলেশন দূর্বল।

১৪। পাখা পূর্ণ বেগে ঘুরা সত্বেও বাতাস পাওয়া যায় না কেন ?
উ: পাখার ব্লেডের বাক কম না হয় পাখার পিছনে প্রয়োজনীয় ফাকা জায়গা নেই।

১৫। পাখা উল্টা ঘুরে গেলে কি ভাবে ঠিক করবে ?
উ: ক্যাপাসিটরের কয়েল কানেকশন বদল করে, আথবা হয় রানিং না হয় র্স্টাটিং কয়েল বদল করে ঠিক করা যায়।

১৬। সিলিং ফ্যানের কোন দিকের বল বিয়ারিং সাধারনতঃ আগে খারাপ হয় ?
উ: উপরের বিয়ারিং খারাপ হয়।

১৭। সিলিং ফ্যান স্টার্ট দেওয়ার সংঙ্গে সংঙ্গে ইহার কানেকটিং রডে খট খট আওয়াজ হয়ে পরে আওয়াজ বন্ধ হয়ে যায় কারন কি ?
উ: ইহার রডে রাবার বুশ নেই।

১৮। কোন মোটর এসি এবং ডিসি উভয় সাপ্লাই এ চলে ?
উ: ইউনিভার্সাল মোটর (ডিসি সিরিজ মোটর) ।

১৯। তিন ফেজ মোটর উল্টা ঘুরতেছে, কিভাবে ঠিক করবে ?
উ: ইহার যে কোন দুই ফেজের জায়গা বদল করে দিতে হবে।

২০। চলন্ত অবস্থায় তিন ফেজ মোটরেরএক ফেজ চলে গেলেকি হবে ?
উ : যদি লোড বিহীন অবস্থায় থাকে তবে মোটর ঘুরতে থাকবে কিন্তু গরম হয়েযাবে এবং ভিন্ন রকম আওয়াজ করবে। আর যদি লোডেড অবস্থায় থাকে , তবে মোটরসঙ্গে সঙ্গে বন্ধ হয়ে যাবে। যদি মেইন সুইচ অফ করে দেওয়া না হয়, তবে মোটরজ্বলে যাবে

২১। তিন ফেজ ২০ ঘোড়া মোটরের জন্য ক্রয়কৃত স্টার ডেল্টা স্টার্টার ১০ ঘোড়া তিন ফেজ মোটরের ব্যবহার করা যাবে কি ?
উ : হ্যাঁ, যাবে তবে কারেন্ট সেটিং এর মান কমিয়ে দিতে হবে।

২২। স্টার ডেল্টা স্টার্টারের ম্যাগনেটিক কয়েল কত ভোল্টেজ সাপ্লাই পায় ?
উ : সরাসরি ৪০০ ভোল্টসাপ্লাই পায়। (লাইন টু লাইন)

২৩। ইন্সুলেশন রেজিস্ট্যান্স কি মিটার দ্বারা মাপা হয় ?
উ : মেগার দ্বারা।

২৪। আর্থ রেজিস্ট্যান্স কি ভাবে মাপা হয় ?
উ : মেগার আর্থ টেস্টারের সাহায্যে অথবা মোটামুটি ভাবে একটি ১০০ওয়াটের বাতি আর্থ তার লাইনের মধ্যে সংযোগ করার পর যদি উজ্জ্বল ভাবে জ্বলে , তাহলে আর্থিং ভাল আছে।

২৫। আর্থিং রেজিস্ট্যান্স কত হওয়া বান্ছনীয় ?
উ : বাসাবাড়ীর জন্য বেশীর পক্ষে ৫ ওহম এবং সাব স্টেশন ও পাওয়ার লাইনের জন্য বেশীর পক্ষে ১ ওহম হওয়া দরকার।

২৬। কোন ট্রান্সফরমারের কেবল মাত্র একটি কয়েল থাকে ?
উ : অটো ট্রান্সফরমার।

২৭। ট্রান্সফরমার হামিং কি ?
উ : ট্রান্সফরমারের কোর এবং কয়েল কানেকশন যদি মজবুত ভাবে না করাথাকে, লুজ কানেকশন থাকে তাহলে ফুল লোড অবস্থায় কাঁপতে থাকে এবং এক প্রকারআওয়াজ হয়, তাহাই হামিং।

২৮। ট্রান্সফরমার গরম হওয়ার কারন কি ?
উ : (১) ওভার লোড হওয়ার জন্য হতে পারে
(২) ইন্সুলেশন দুর্বল হয়ে গেলে
(৩) কোথাও আর্থ হয়ে গেলে
(৪) ওভার ভোল্টেজ সাপ্লাইয়ের জন্য।

২৯। সিলিকা জেলের স্বাভাবিক রং কি রূপ থাকে ?
উ : ভাল অবস্থায় ধব ধবে সাদা, কিন্তু জলীয় বাস্প গ্রহন করলে কিছুটা বাদামী রং এর হয়ে যায়,আবার উত্তাপ দিলে ইহা সাদা হয়ে যায়।

৩০। ট্রান্সফরমার তৈলের কাজ কি ?
উ : ইহার প্রধান কাজ দুটি- প্রথমত ইহা ইন্সুলেশনের কাজ করে, দ্বিতীয়ত ট্রান্সফরমারকে ঠান্ডা রাখতে সাহায্যে করে।

৩১। ব্রিদার কি ?
উ : ইহা ট্রান্সফরমারের কনজার্ভেটরের সহিত লাগানো থাকে, যার মাধ্যমেবাহির হতে ঠান্ডা বাতাস ফিল্টার হয়ে ট্যাংকে ঢুকে এবং গরম বাতাস ট্যাংক হতেবাহির হয়ে যায়।

৩২। বুকল্স রিলে কি ?
উ : ইহা এক প্রকার রিলে যাহা ট্রান্সফরমারের ট্যাংক ও কনজার্ভেটরেরসংযোগকারী পাইপের মধ্যে বসানো থাকে এবং ট্রান্সফরমারের ভিতরেত্রুটি দেখাদিলে সর্তক ঘন্টা বাজিয়ে থাকে।

৩৩। গার্ড ওয়্যার কি ?
উ : ট্রান্সমিশন লাইনের নীচে ব্যবহ্নত তার, যাহা আর্থের সহিত সংযোগ থাকে।

৩৪। ব্যাটারীর সলিউশন তৈরির সময় এসিড পানিতে না পানি এসিডে মিশাতে হয় ?
উ : এসিড পানিতে মিশাতে হয়।

৩৫। জাম্পার কি ?
উ : মেইন লাইন হতে বাসা বাড়ীতে সাপ্লাই লাইনের সংযোগ রক্ষাকারী তার।

৩৬। ডেম্পার ওয়্যাইন্ডিং কি ?
উ : সিনক্রোনাস মোটরকে র্স্টাট দেওয়ার জন্য ইহার পোলের উপর মোটাতারের ওয়্যাইন্ডিং দেওয়া হয় এবং ইহা অল্টারনেটরে ও ব্যবহ্নত হয় হান্টিং দোষ কমানোর জন্য।

৩৭। CB কি ?
উ : সার্কিট ব্রেকার যাহা ক্রটি পূর্ণলাইনকে আপনা আপনি র্সোস হতে বিচ্ছিন্ন করে।

৩৮। A.C কে D.C এবং D.C কে A.C কিভাবে করা হয় ?
উ : A.C কে D.C করা হয় রেকটিফায়ার অথবা রোটারী কনভার্টার দ্বারা এবং D.C কে A.C করা হয় ইনভার্টার দ্বারা।

৩৯।    সোল্ডারিং বলতে কি বোঝ? এতে ব্যবহৃত উপাদান সমূহ কি কি ও এদের অনুপাত কত?

উত্তরঃ যে পদ্ধতিতে দুই বা ততোধিক ধাতব পদার্থ সংযুক্ত বা একত্রিত করা হয় তাকে সোল্ডারিং বলে। এতে ব্যবহৃত     উপাদান সমূহ হচ্ছে সীসা ও টিন, এদের অনুপাত ৪০ঃ৬০।

৪০।    সোল্ডারিং এর সময় রজন ব্যবহার করা হয় কেন বা এর সুবিধা কি?

উত্তরঃ সংযোগস্থল ভালভাবে পরিষ্কার এবং মজবুত করার জন্য সোল্ডারিং এর সময় রজন ব্যবহার করা হয়।

৪১।    রেজিস্টর কি? বিভিন্ন ধরনের রেজিস্টরের নাম লিখ।

উত্তরঃ ইলেকট্রিকাল ও ইলেকট্রনিক্স সার্কিটে কারেন্ট প্রবাহকে সীমিত  রাখার জন্য এবং কারেন্ট প্রবাহের পথে বাথা দেয়ার     জন্য যে উপাদান ব্যবহার করা হয় তাকে রেজিস্টর বা রোধক বলে।
বিভিন্ন ধরনের রেজিস্টর: কার্বন রেজিস্টর, ওয়্যারউন্ড রেজিস্টর, সিরামিক রেজিস্টর, ফিল্ম টাইপ রেজিস্টর ইত্যাদি।

৪২।    কালার কোড পদ্ধতি কি? বিভিন্ন রং এর মান লিখ।

উত্তরঃ রেজিস্টরের গায়ের রং দেখে রেজিস্টরের মান নির্নয় করার পদ্ধতিকে কালার কোড পদ্ধতি বলে।

বিভিন্ন রং এর মানঃ  কালো ০,  বাদামী = ১,  লাল = ২,  কমলা = ৩,  হলুদ = ৪,  সবুজ = ৫,  নীল = ৬, বেগুনী = ৭,       ধূসর = ৮, সাদা = ৯, সোনালী  =   ৫%, রুপালী =   ১০%, নো কালার =   ২০%।

৪৩।    রেজিস্টেন্স, ক্যাপাসিটেন্স ও কন্ডাকটেন্স বলতে কি বুঝ?

উত্তরঃ রেজিস্টেন্স: রেজিস্টর যে ধর্মের কারনে বাধা প্রদান করে সেই ধর্মকে রেজিস্টেন্স বলে।

ক্যাপাসিটেন্স: ক্যাপাসিটরের যে বৈশিষ্টের কারনে চার্জ সঞ্চয় বা ধারন করে তাকে ক্যাপাসিটেন্স বলে।

কন্ডাকটেন্স: কন্ডাকটর যে বৈশিষ্টের কারনে এর মধ্য দিয়ে বিদ্যুৎ প্রবাহ করে তাকে কন্ডাকটেন্স বলে।

৪৪।    টলারেন্স ব্যান্ড বলতে কি বোঝ?

উত্তরঃ কোন রেজিস্টরের শেষ কালার বা ব্যান্ডকে টলারেন্স ব্যান্ড বলে। যা রেজিস্টরের মানের ভারসম্য রক্ষা করে।

৪৫।    ইলেকট্রনিক্স কাজে কোন রেজিস্টর বেশি ব্যবহৃত হয়?

উত্তরঃ ইলেকট্রনিক্স কাজে কার্বন রেজিস্টর বেশি ব্যবহৃত হয়।

৪৬।    কন্ডাক্টর, সেমিকন্ডাক্টর ও ইনসুলেটর বলতে কি বোঝ?
উত্তরঃ কন্ডাক্টর: যে পদার্থের ভ্যলেন্স ইলেকট্রন সংখ্যা ৪ এর কম তাকে কন্ডাকটর বলে।
সেমিকন্ডাক্টর: যে পদার্থের ভ্যলেন্স ইলেকট্রন সংখ্যা ৪ টি তাকে সেমিকন্ডাক্টর বলে।
ইনসুলেটর: যে পদার্থের ভ্যালেন্স ইলেকট্রন সংখ্যা ৪ এর বেশি তাকে ইনসুলেটর বলে।

৪৭।    ত্রিযোজি ও পঞ্চযোজি মৌল কি? কয়েটির নাম লিখ।

উত্তরঃ ত্রিযোজি মৌল: যে মৌলের যোজনী সংখ্যা ৩টি তাকে ত্রিযোজি মৌল বলে।
যেমন: গ্যালিয়াম, ইন্ডিয়াম, অ্যালুমিনিয়াম, বোরন ইত্যাদি।

পঞ্চযোজি মৌল: যে মৌলের যোজনী সংখ্যা ৫টি তাকে পঞ্চযোজি মৌল বলে।
যেমন: আর্সেনিক, অ্যান্টিমনি, ফসফরাস ইত্যাদি।

৪৮।    জার্মেনিয়ামের চেয়ে সিলিকন বেশি ব্যবহৃত হয় কেন?

উত্তরঃ  জার্মেনিয়ামের চেয়ে সিলিকন বেশি ব্যবহৃত হয় কারণ জার্মেনিয়ামের চেয়ে সিলিকন বেশি  তাপ  সহ্য  করতে  পারে     এবং সিলিকনের দাম কম।

৪৯।    হোল, ইলেকট্রন ও ডোপিং বলতে কি বোঝ?

উত্তরঃ হোল: হোল বলতে এটমের মধ্যে ইলেকট্রনের ঘাটতি জনিত সৃষ্ট (+) ve চার্জের আধিক্যকে বুঝায়।

ইলেকট্রন: এটি পরমাণুর ক্ষুদ্রতম ও গুরুত্বপূর্ণ কণিকা যা নেগেটিভ চার্জ বহন করে।

ডোপিং: খাঁটি সেমিকন্ডাকটরে ভেজাল মিশ্রিত করে এর পরিবাহীতা বৃদ্ধি করার পদ্ধতি বা কৌশলকে ডোপিং বলে।

৫০।    কো-ভ্যালেন্ট বন্ড ও ভ্যালেন্স ইলেকট্রন বলতে কি বোঝ?

উত্তরঃ কো-ভ্যালেন্ট বন্ড: পরমাণুর শেষ কক্ষপাতের ইলেকট্রন সমূহ যে বন্ধনের  মাধ্যমে  একটি  আরেকটির  সাথে  সংযুক্ত     থাকে সেই বন্ধনকে কো-ভ্যালেন্ড বন্ড বলে।

ভ্যালেন্স ইলেকট্রন: পরমাণুর শেষ কক্ষপাতের ইলেকট্রন সমূহকে ভ্যালেন্স ইলেকট্রন বলে।

৫১।    সেমিকন্ডাকটর কত প্রকার ও কি কি ? এদের সংজ্ঞা দাও।

উত্তরঃ সেমিকন্ডাকটর দুই প্রকার। ১) খাঁটি সেমিকন্ডাকটর  ২) ভেজাল সেমিকন্ডাকটর

খাঁটি সেমিকন্ডাক্টর: ডোপিং এর পূর্বে বিশুদ্ধ সেমিকন্ডাকটরকে খাঁটি সেমিকন্ডাক্টর বলে।

ভেজাল সেমিকন্ডাকটর: ডোপিং এর পরে ভেজালযুক্ত সেমিকন্ডাকটরকে ভেজাল (Extrinsic) সেমিকন্ডাক্টর বলে।

ভেজাল সেমিকন্ডাকটর দুই প্রকার: ১) পি-টাইপ সেমিকন্ডাক্টর  ২) এন-টাইপ সেমিকন্ডাক্টর

পি-টাইপ সেমিকন্ডাক্টর: কোন খাঁটি সেমিকন্ডাকটরের সাথে ভেজাল হিসেবে সামান্য পরিমাণ ত্রিযোজি মৌল যেমন: ইন্ডিয়াম,     গ্যালিয়াম, অ্যালূমিনিয়াম ইত্যাদি মিশ্রিত করা হয় তাকে পি-টাইপ সেমিকন্ডাক্টর বলে।

এন-টাইপ সেমিকন্ডাক্টর: কোন খাঁটি সেমিকন্ডাকটরের সাথে ভেজাল হিসেবে সামান্য পরিমাণ পঞ্চযোজী মৌল যেমন:        আর্সেনিক, এন্টিমনি, ফসফরাস ইত্যাদি মিশ্রিত করা হয় তাকে এন-টাইপ সেমিকন্ডাক্টর বলে।

৫২।     সেমিকন্ডাক্টরের সুবিধা ও অসুবিধা লিখ।
উত্তরঃ সেমিকন্ডাক্টরের সুবিধা:     ১) সেমিকন্ডাক্টরে কম পাওয়ার লস হয়।
                                                    ২) এর কোন তাপশক্তির প্রয়োজন হয় না।
৩) সেমিকন্ডাকক্টরের আয়ুষ্কাল অনেক বেশি।
৪) এটি দ্বারা তৈরী ডিভাইস খুব ছোট হয়।
৫) এটি ভঙ্গুর নয়।
সেমিকন্ডাক্টরের অসুবিধা:        ১) তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেলে সেমিকন্ডাকটরের কন্ডাকটিভিটি বৃদ্ধি পায়।
২) তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেলে কো – ভ্যালেন্ড বন্ড ভেঙ্গে মুক্ত ইলেকট্রনের সৃষ্টি হয়।
৩) তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেলে রেজিস্ট্যান্স কমে এবং তাপমাত্রা কমলে রেজিস্ট্যান্স বৃদ্ধি পায়।

৫৩।    বায়াসিং বলতে কি বোঝ? ইহা কত প্রকার ও কি কি?

উত্তরঃ কোন ট্রানজিস্টরকে সচল করার জন্য বাহির থেকে যে ডি.সি সাপ্লাই দেয়া হয় তাকে বায়াসিং বলে।

বায়াসিং দুই প্রকার: ১) ফরোয়ার্ড বায়াসিং  ২) রিভার্স বায়াসিং

ফরোয়ার্ড বায়াসিং: ব্যাটারির P প্রান্ত পজিটিভের সাথে এবং N প্রান্ত নেগিটিভের সাথে যুক্ত করে যে বায়াসিং করা হয় তাকে     ফরোয়ার্ড     বায়াসিং বলে।

রিভার্স বায়াসিং: ব্যাটারির P প্রান্ত নেগিটিভের সাথে এবং N প্রান্ত পজিটিভের  সাথে যুক্ত  করে  যে  বায়াসিং  করা  হয়      তাকে রিভার্স  বায়াসিং বলে।

৫৪।    লিকেজ কারেন্ট বলতে কি বোঝায়?

উত্তরঃ মাইনোরিটি ক্যারিয়ারের জন্য পি-এন জাংশন ডায়োডে যে সামান্ন কারেন্ট প্রবাহিত হয় তাকে লিকেজ কারেন্ট বলে।

৫৫।    নী ভোল্টেজ বা অফসেট ভোল্টেজ কাকে বলে?

উত্তরঃ পি-এন জাংশন ডায়োডে ফরোয়ার্ড ভোল্টেজের যে মানে ফরোয়ার্ড কারেন্ট বৃদ্ধি পায় তাকে নী ভোল্টেজ বা অফসেট     ভোল্টেজ বলে।

৫৬।    ডিফিউশন ও ডিফিউশন কারেন্ট কাকে বলে?

উত্তরঃ ডিফিউশন: জাংশন ভেদ করে হোল ও ইলেকট্রনের চলাচলের প্রবণতাকে ডিভিউশন বলে।

ডিফিউশন কারেন্ট: ডিভিউশন এর কারণে উচ্চ অঞ্চল থেকে নিু অঞ্চলে সৃষ্ট কারেন্ট প্রবাহকে ডিভিউশন কারেন্ট বলে।

৫৭।    ডিপ্লে¬শন লেয়ার কাকে বলে?

উত্তরঃ পি-টাইপ ও এন-টাইপ এর সমন্বয়ে যে ইলেক্টিক ফিল্ড সৃষ্টি করে তাকে ডিপ্লে¬শন লেয়ার বলে।

৫৮।    ডায়োডের লোড লাইন কাকে বলে?

উত্তরঃ যে ফরোয়ার্ড বৈশিষ্ট রেখার উপর ডায়োডের কারেন্ট ও ভোল্টেজ এর সঠিক মান নির্নয় করা হয় তাকে ডায়োডের  লোড লাইন বলে।

৫৯।   কুইসেন্ট বিন্দু কাকে বলে?

উত্তরঃ ডায়োডের স্ট্যাটিক বৈশিষ্ট রেখা ও লোড লাইনের ছেদ বিন্দুকেই অপারেটিং বা কুইসেন্ট বিন্দু  বলে।     এর মাধ্যমে আমরা নির্দিষ্ট লোড রেজিস্টেন্স যে কোন ডায়োডে কি পরিমাণ ভোল্টেজের জন্য কি পরিমাণ কারেন্ট প্রবাহ  হচ্ছে তা জানতে পরি।

৬০।    ফিল্টার সার্কিট কাকে বলে ? উহা কত প্রকার ও কি কি?

উত্তরঃ যে সার্কিটের মাধ্যমে পালসেটিং ডিসি কে খাঁটি ডিসি তে পরিণত করা হয় তাকে ফিল্টার সার্কিট বলে।

ইহা পাঁচ প্রকারঃ ১) সান্ট ক্যাপাসিটর ফিল্টার  ২) সিরিজ ইন্ডাক্টর ফিল্টার  ৩) ইন্ডাক্টর ও ক্যাপাসিটর ফিল্টার
৪) রেজিস্টেন্স ও ক্যাপাসিটেন্স ফিল্টার          ৫)  ফিল্টার

৬১।    রিপল ও পালসেটিং ডিসি কাকে বলে?

উত্তরঃ রিপল: রেক্টিফায়ারের আউটপুট একমুখী হলেও ইহা waveform আকৃতিতে থাকে অর্থাৎ এ আউটপুটে AC এবং DC উভয় ধরণের কম্পোনেন্ট বিদ্যমান থাকে।

পালসেটিং ডিসি: রেক্টিফায়ারের আউটপুটে যে ডিসি পাওয়া যায় তা সম্পূর্ণ খাঁটি ডিসি নয়, এতে কিছুটা এসির প্রবণতা বা     বৈশিষ্ট থাকে, এসি যুক্ত এ ডিসিকে পালসেটিং ডিসি বলে।

৬২।    জিনার ডায়োড কি? ইহা কোন রিজিয়নে কাজ করে?

উত্তরঃ অত্যাধিক পরিমাণে ডোপিংকৃত সিলিকন দ্বারা তৈরি পি.এন. জাংশন ডায়োড, যা রিভার্স বায়াস প্রয়োগে শার্প ব্রেক     ডাউন ভোল্টেজ প্রদর্শন করে তাকে জিনার ডায়োড বলে। ইহা ব্রেক ডাউন রিজিয়নে কাজ করে।

৬৩।    জিনার ডায়োডকে ভোল্টেজ স্ট্যাবিলাইজার হিসেবে ব্যবহার করা হয় কেন?

উত্তরঃ যদি কোন কারণে লোড কারেন্ট বাড়ে বা কমে তবে জিনার ডায়োড জিনার ক্রিয়ার মাধ্যমে তার কারেন্টকে সম     পরিমাণ কমিয়ে বা বাড়িয়ে স্থির মানে রাখতে পারে বলে একে ভোল্টেজ ষ্ট্যাবিলাইজার হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

৬৪।    ডায়াক ও ট্রায়াক এর ব্যবহার লিখ।

উত্তরঃ ট্রায়াকের ব্যবহার:
১)    উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন ল্যাম্পের সুইচ হিসেবে ব্যবহৃত হয়।
২)    ইলেক্ট্রনিক সার্কিটের মাধ্যমে ট্রান্সফরমারের ট্যাপ চেঞ্জিং – এ ব্যবহৃত হয়।
৩)    রেডিও এর ইন্টাফারেন্স কমানোর জন্য ব্যবহৃত হয়।
৪)    মোটরের গতিবেগ নিয়ন্ত্রনে ব্যবহৃত হয়।
৫)    লাইট কন্ট্রোল সার্কিটে ব্যবহৃত হয়।

ডায়াকের ব্যবহার:
১)    ট্রায়াককে ট্রিগারিং করতে ব্যবহৃত হয়।
২)    আলো নিয়ন্ত্রণ সার্কিটে ব্যবহৃত হয়।
৩)    তাপ নিয়ন্ত্রনে ব্যবহৃত হয়।
৪)    ইউনিভার্সাল মটরের গতি নিয়ন্ত্রণ করণে ব্যবহৃত হয়।

৬৫।    কয়েকটি বিশেষ ধরনের ডায়োডের নাম লিখ।
উত্তরঃ জিনার ডায়োড, টানেল ডায়োড এবং লাইট ইমিটিং ডায়োড।

৬৬।    ভ্যারাক্টর ডায়োড কি? ফটো ডায়োডের সেনসিটিভিটি লিখ।

উত্তরঃ ভ্যারাক্টর ডায়োড: পরিমিত ভেজাল মিশ্রিত পি-টাইপ ও এন-টাইপ সেমিকন্ডাক্টর দ্বারা তৈরী রিভার্স বায়াসে     পরিচালিত, যার জাংশন ক্যাপাসিট্যান্স বায়াস পরিবর্তনের সাথে পরিবর্তিত হয় তাকে ভ্যারাক্টর ডায়োড বলে।

ফটো ডায়োডের সেনসিটিভিটি: আউটপুট কারেন্ট এর সাথে ইনসিডেন্ট লাইট এর অনুপাতকে ফটো ডায়োডের     সেনসিটিভিটি বলা হয়। আউটপুট কারেন্ট ইনসিডেন্ট লাইটের সাথে সুষমভাবে পরিবর্তিত হয়।

৬৭।    সোলার সেল এর অপর নাম কি?

উত্তরঃ ফটো ভোল্টেইক সেল এবং এনার্জি কনভার্টার।

৬৮।    রেকটিফিকেশন কেন করা হয়?

উত্তরঃ এসিকে বা দ্বিমুখী কারেন্টকে একমুখী কারেন্টে রূপান্তর বা রেকটিফাই করার জন্য রেকটিফিকেশন করা হয়।

৬৯।    SCR কে কত ভাবে ON করা যায়?

উত্তরঃ SCR কে পাঁচ ভাবে ON করা যায়, যথা:
১)    গেইট ট্রিগারিং পদ্ধতি।
২)    থার্মাল ট্রিগারিং পদ্ধতি।
৩)    রেডিয়েশন ট্রিগারিং পদ্ধতি।
৪)    ভোল্টেজ ট্রিগারিং পদ্ধতি।
৫)      ট্রিগারিং পদ্ধতি।

ইলেকট্রিক্যাল শর্ট নোট

৭০। কারেন্ট কাকে বলে?
পরিবাহী পদার্থের মধ্যকার মুক্ত ইলেকট্রন সমূহ একটি নিদ্রিষ্ট দিকে প্রবাহিত হওয়ার হারকেই কারেন্ট বলে। ইহাকে I বা i দ্বারা প্রকাশ করা হয়, এর একক অ্যাম্পিয়ার (A বা Amp.) অথবা কুলম্ব/সেকেন্ড ।


৭১। ভোল্টেজ কাকে বলে?
পরিবাহী পদার্থের পরমাণুগুলির মুক্ত ইলেকট্রন সমূহকে স্থানচ্যুত করতে যে বল বা চাপের প্রয়োজন সেই বল বা চাপকেই বিদ্যুৎ চালক বল বা ভোল্টেজ বলে। একে V দ্বারা প্রকাশ করা হয় এর একক Volts.


৭২। রেজিষ্ট্যান্স কাকে বলে?
পরিবাহী পদার্থের মধ্য দিয়ে কারেন্ট প্রবাহিত হওয়ার সময় পরিবাহী পদার্থের যে বৈশিষ্ট্য বা ধর্মের কারণে উহা বাধাগ্রস্ত হয় উক্ত
বৈশিষ্ট্য বা ধর্মকেই রোধ বা রেজিষ্ট্যান্স বলে। এর প্রতীক R অথবা r, আর একক ওহম (Ω)।


৭৩। ট্রান্সফরমার
ট্রান্সফরমার একটি ইলেক্ট্রিক্যাল মেশিন যা পরিবর্তনশীল বিদ্যুৎকে (Alternating current) এক ভোল্টেজ থেকে অন্য ভোল্টেজে রূপান্তরিত করে। ট্রান্সফরমার স্টেপ আপ অথবা স্টেপ ডাউন দুই ধরনের হয়ে থাকে এবং এটি ম্যাগনেটিক ইন্ডাকশন (Magnetic induction) নীতি অনুসারে কাজ করে। ট্রান্সফরমারে কোন চলমান/ঘূর্ণায়মান অংশ থাকে না, এটি সম্পূর্ণ স্থির ডিভাইস। ট্রান্সফরমারে দুটি উইন্ডিং থাকে, প্রাইমারি এবং সেকেন্ডারি উইন্ডিং । প্রাইমারি ওয়াইন্ডিয়ে ভোল্টেজ প্রদান করলে ম্যাগনেটিক ফিল্ড তৈরি হয় এবং ম্যাগনেটিক ফ্লাক্স আয়রন কোরের মধ্য দিয়ে সেকেন্ডারি ওয়াইন্ডিয়ে যায় এবং সেখানে ম্যাগনেটিক ফিল্ড তৈরি হয়। যার ফলশ্রুতিতে সেকেন্ডারি কয়েলে ভোল্টেজ পাওয়া যায়। ট্রান্সফরমারের ভোল্টেজ পরিবর্তনের
হার প্রাইমারি এবং সেকেন্ডারি কয়েলের প্যাঁচ সংখ্যার হারের উপর নির্ভর করে। তবে মনে রাখবেন, ট্রান্সফরমার শুধু ভোল্টেজের পরিবর্তন ঘটায় কিন্তু পাওয়ার ও ফ্রিকুয়েন্সি অপরিবর্তিত থাকে। পাওয়ার ঠিক থাকে তাই ভোল্টেজ পরিবর্তনের জন্য কারেন্টেরও পরিবর্তন হয়।


৭৪। ট্রান্সফরমেশন রেশিও
উত্তরঃ ট্রান্সফরমারের উভয় দিকের ইন্ডিউসড ভোল্টেজ এবং কারেন্ট ও কয়েলের প্যাচের সংখার সাথে একটি
নিদ্রিস্ট অনুপাত মেনে চলে, ইহাই ট্রান্সফরমেশন রেশিও বা টার্ন রেশিও। ইহাকে সাধারণত a দ্বারা প্রকাশ করা হয়,
অর্থাৎ a = Ep/Es = Np/Ns = Is/Ip
৬। ইন্সট্রুমেন্ট ট্রান্সফরমার 
CT (Current Transformer) এটি সাধারণত কম
রেঞ্জের মিটার দিয়ে সার্কিটের বেশি পরিমান কারেন্ট পরিমাপ করার জন্য ব্যবহার করা হয়। PT (Potential
Transformer) এটি সাধারণত কম রেঞ্জের মিটার দিয়ে সার্কিটের বেশি পরিমান ভোল্টেজ পরিমাপ করার জন্য
ব্যবহার করা হয়। CT ও PT এভাবে ব্যবহার করা হলে এগুলোকে ইন্সট্রুমেন্ট ট্রান্সফরমার বলে।


৭৫। সার্কিট ব্রেকার
সার্কিট ব্রেকার হলো একটি বৈদ্যুতিক সুইচিং ডিভাইস যা দ্বারা ইলেকট্রিক্যাল সার্কিটকে সাপ্লাই হতে সংযুক্ত ও বিচ্ছিন্ন করা হয়। তবে এটি ইলেকট্রিক্যাল সার্কিটে নিয়ন্ত্রণ ও রক্ষন যন্ত্র হিসাবে কাজ করে। ওভার লোড বা শর্ট সাকিট দেখা দিলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ঐ ইলেকট্রিকাল সার্কিটকে সরবরাহ থেকে বিচ্ছিন্ন করে দেয়। তবে সার্কিট ব্রেকার স্বয়ংক্রিয়ভাবে সার্কিটে সংযোগ করেনা ।


৭৬। আইসোলেটর
বৈদ্যুতিক সাবস্টেশনের বিভিন্ন যন্ত্রপাতি বিশেষ করে ট্রান্সফরমারকে নো-লোড অবস্থায় বা সামান্য লোড অবস্থায় লাইন হতে বিচ্ছিন্ন করার জন্য আইসোলেটর ব্যবহার করা হয়। অর্থাৎ আইসোলেটর এক ধরনের সুইস, যা অফলাইনে অপারেটিং করা হয়।


৭৭। সাব-স্টেশন কাকে বলে?
পাওয়ার সিস্টেম ব্যবস্থায় সাব-স্টেশন এমন এক কেন্দ্র যেখানে এমন সব সরঞ্জামাদির ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে বিভিন্ন প্রকার বৈদ্যুতিক বৈশিষ্ট্য
যেমন- ভোল্টেজ, এসি/ডিসি কনভার্সন, ফ্রিকুয়েন্সি, পাওয়ার ফ্যাক্টর ইত্যাদির পরিবর্তনে সাহায্য করে, এ ধরনের কেন্দ্রকে সাব-স্টেশন বা বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র বলে।


৭৮। পাওয়ার লাইন ক্যারিয়ার (PLC)
যে লাইনের মাধ্যমে পাওয়ার স্টেশন, সাব-স্টেশন, রিসিভিং স্টেশনে নিজস্ব জরুরী যোগাযোগ ব্যবস্থাপনা টেলিফোনের মাধ্যমে সম্পন্ন করা হয়
তাকে পাওয়ার লাইন ক্যারিয়ার (PLC) বলে।


৭৯। Q-ফ্যাক্টর
AC সার্কিটে সিরিজ রেজোন্যান্সের সময় সার্কিটের L অথবা C এর আড়াআড়িতে ভোল্টেজ প্রয়োগকৃত ভোল্টেজের তুলনায় বহুগুণে বৃদ্ধি পায়।
রেজোন্যান্সের কারনে সৃষ্ট এই ভোল্টেজ বেড়ে যাওয়াকে সিরিজ রেজোনেন্ট সার্কিটের Q-ফ্যাক্টর (Quality Factor) বলে।


৮০। পাওয়ার ফ্যাক্টর
পাওয়ার ফ্যাক্টরঃ পাওয়ার ফ্যাক্টর হল একটিভ পাওয়ার অর্থাৎ যে পাওয়ার আমরা ব্যবহার করতে পারি এবং এ্যপারেন্ট পাওয়ারের অনুপাত। ইহাকে cosθ দ্বারা প্রকাশ করা হয়, যার মান 0 হতে 1 পর্যন্ত।


৮১। লোড ফ্যাক্টর
গড় লোড এবং সর্বোচ্চ চাহিদার অনুপাতকে লোড ফ্যাক্টর বলে। Load Factor = Average load/Max. Demand or Peak load.
এর মান ১ এর নিচে হয়।


৮২। প্লান্ট ফ্যাক্টর
কোন পাওয়ার প্লান্টের গড় লোড এবং নির্ধারিত রেটেড ক্যাপাসিটিরঅনুপাতকে প্লান্ট ফ্যাক্টর বলে।
Plant Factor = Average load/ Rated capacity of the plant


৮৩। ডিমান্ড ফ্যাক্টর
প্লান্টের সর্বোচ্চ চাহিদা এবং  সংযুক্ত লোডের অনুপাতকে ডিমান্ড ফ্যাক্টর বলে। Demand Factor = Max. Demand/Connected Load 

৮৪। ফরম ফ্যাক্টর
ফরম ফ্যাক্টর (Form Factor): কোন সাইন ওয়েভের কার্যকরী মান (RMS value) এবং গড় মান (Average Value) এর অনপাতকে ফরম ফ্যাক্টর (Form Factor) বলে। একে Kf দ্বারা প্রকাশ করা হয় যার মান 1.11

৮৫। পিক ফ্যাক্টর
পিক ফ্যাক্টর (Peak Factor): কোন সাইন ওয়েভের সরবচ্চ মান (Max. value) এবং কার্যকরী মান (RMS value) এর অনপাতকে
পিক ফ্যাক্টর (Form Factor) বলে। একে Ka দ্বারা প্রকাশ করা হয় যার মান 1.41

৮৬। স্কিন ইফেক্ট
AC বিদ্যুৎ প্রবাহ কোন পরিবাহির মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হওয়ার সময় সে পরিবাহির ভিতরে প্রবেশ না করে উহার সারফেস দিয়ে প্রবাহিত হতে
চেস্টা করে, এটাকে স্কিন ইফেক্ট বলে। এই স্কিন ইফেক্ট এর ফলে লাইনের রেজিস্ট্যান্স বৃদ্ধি পায় যার ফলে লাইন লসও বেড়ে যায়।

৮৭।যখন দুইটি কন্ডাক্টর এর স্পেসিং ব্যাসের তুলনায় বেশি অবস্থায় রেখে তাদের আড়াআড়িতে AC ভোল্টেজ প্রয়োগ করে ধিরে ধিরে বাড়ানো হয়
তখন একটি পর্যায় আসে। এই বিশেষ পর্যায় কন্ডাক্টরের চারপাশে বাতাস ইলেক্ট্রস্ট্যাটিক স্ট্রেস হয়ে আয়নিত হয় এবং বাতাসের ইন্সুলেশন স্ট্রেংথ ভেঙ্গে যায়। এই অবস্থায় কন্ডাক্টরের চারপাশে জিম জিম শব্দসহ হালকা অনুজ্জ্বল বেগুনী রস্মি দেখা যায় এবং ওজন গ্যাসের সৃষ্টি হয়, এই অবস্থাটিকে করোনা নামে পরিচিত।

৮৮। প্রক্সিমিটি ইফেক্ট
সমান্তরাল দুইটি পরিবাহীর কারেন্ট যদি পরস্পর বিপরীতমুখী হয়, তাহলে উভয় পরিবাহীর নিকটবর্তী অংশে কারেন্ট ডেনসিটি বেড়ে যায়। আবার একমুখী কারেন্ট হলে দূরবর্তী অংশে কারেন্ট ডেনসিটি বেড়ে যায়। এ ঘটনাকে প্রক্সিমিটি ইফেক্ট বলে। ইহার প্রভাবে অসম কারেন্ট প্রবাহিত হয়, লাইনের রেজিস্ট্যান্স বৃদ্ধি পায় এবং সেলফ রিয়াক্ট্যান্স এর মান কমে যায়।

৮৯। ফ্যারান্টি ইফেক্ট
মিডিয়াম বা লং ট্রান্সমিশন লাইনে ওপেন সার্কিট বা লোড শুন্য অবস্থায় কিংবা অল্প লোডে চলার সময় প্রেরন প্রান্ত অপেক্ষা গ্রহন প্রান্তের
ভোল্টেজের মান বেশি হতে দেখা দেয়। এই ঘটনা বা phenomenon কে ফেরান্টি ইফেক্ট বলে।

৯০। অটো ট্রান্সফরমার
অটো ট্রান্সফরমার এমন এক ব্যাতিক্রমি ট্রান্সফরমার যার মধ্যে কেবল একটি ওয়াইন্ডিং থাকে। ইহার কিছু অংশ প্রাইমারি আর কিছু অংশ
সেকেন্ডারি, উভয় কয়েল ইলেকট্রিক্যাল ও ম্যাগনেটিক্যালি সংযুক্ত থাকে। তারপরও একে ট্রান্সফরমার বলা হয়, কারণ ইহার
কার্যপ্রণালী দুই ওয়াইন্ডিং ট্রান্সফরমার এর মতই।

৯১। স্পেসিফিক রেজিস্ট্যান্স বা রেজিস্টিভিটি
নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় একক দৈর্ঘ্য ও একক প্রস্থচ্ছেদের ক্ষেত্রফল বিশিষ্ট কোন একটি পরিবাহী পদার্থের অথবা একক বাহু বিশিষ্ট কোন একটি ঘনক
আকৃতির পরিবাহী পদার্থের দুটি বিপরীত তলের মধ্যবর্তী রোধ বা রেজিস্ট্যান্সকে উক্ত পরিবাহীর রেজিস্টিভিটি বা আপেক্ষিক রোধ
বলে।

৯২। R.M.S মান
একটি সার্কিটে একটি নির্দিস্ট সময়ে কোন নির্দিস্ট পরিমান ডিসি (D/C) প্রবাহিত হলে যে পরিমান তাপ উৎপন্ন, সেই পরিমান তাপ উৎপন্ন করতে ঐ সার্কিটে উক্ত নির্দিস্ট সময়ে যে পরিমান এসি প্রবাহিত করা প্রয়োজন তাকে ঐ এসি (A/C) কারেন্টের RMS মান বলে। RMS value = 0.707 x Max. Value

৯৩। রেজোন্যান্ট ফ্রিকুয়েন্সি
একটি AC সার্কিটে ইনডাকট্যান্স ও ক্যাপাসিট্যান্স এর মান যাই হোকনা কেন যে ফ্রিকুয়েন্সিতে ঐ সার্কিটের ইন্ডাকটিভ রিয়েকট্যান্স
(XL) এবং ক্যাপাসিটিভ রিয়েকট্যান্স (XC) সমান হয়, সেই ফ্রিকুয়েন্সিকে রেজোন্যান্ট ফ্রিকুয়েন্সি বলে । একে fr দ্বারা প্রকাশ করা হয়

৯৪। রীলে
রীলে এমন একটি সয়ংক্রীয় ডিভাইস, যা বৈদ্যুতিক সার্কিট এ কোন ফল্ট সংঘটিত হলে, সার্কিট এর প্রটেকটিভ ডিভাইস গুলো কে সয়ংক্রীয় ভাবে অপারেট করে এবং ফল্টযুক্ত অংশ কে ফল্টবিহীন অংশ হতে আলাদা করে ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করে।

৯৫। ১০ টি রিলের নাম
১। প্রাইমারি রিলে      ২। সেকেন্ডারি রিলে         ৩। ডিরেকশনাল রিলে     ৪। ডিফারেন্সিয়াল রিলে        ৫। থার্মাল রিলে।
৬। ইলেক্ট্র থার্মাল রিলে ৭। রিভার্স  পাওয়ার রিলে ৮। সলিনয়েড এন্ড  প্লাঞ্জার রিলে ৯। ডিসট্যান্স রিলে  ১০। ওভার ভোল্টেজ ও ওভার কারেন্ট রিলে

৯৬। রিভার্স পাওয়ার রীলে
প্যারালেল অপারেশনে কোন অল্টারনেটরের ইনপুট কোন কারনে বন্ধ  হলে বা অন্য কোন ত্রুটিতে ঐ অলটারনেটর যদি বাসবার হতে পাওয়ার
নেয় অর্থাৎ উল্টাদিক হতে পাওয়ার  নিয়ে অল্টারনেটরটি মোটর হিসাবে কাজ করে তখন যে রিলের মাধ্যমে প্রটেকশন দেয়া হয় তার নাম রিভার্স পাওয়ার রীলে। এ রকম অবস্থায় রিভার্স পাওয়ার রীলে এনারজাইজড হয় এবং ঐ অল্টারনেটরের সার্কিট ব্রেকার ট্রিপ করে সিস্টেমকে রক্ষা করে।

৯৭। থার্মাল রীলে
যে রীলে কারেন্ট বৃদ্ধির ফলে তাপমাত্রা বৃদ্ধিতে সাড়া দেয়,  তাকে থার্মাল রীলে বলে। এটা সাধারণত মোটর কন্ট্রোল সার্কিট, ব্যালান্স এবং আন-ব্যালান্স থ্রি-ফেজ সার্কিটে ব্যবহার করা হয়। 

৯৮। ডিফারেনশিয়াল রীলে
ডিফারেনশিয়াল রীলে এমন এক ধরনের ডিভাইস, যা দুই বা ততোধিক ইলেকট্রিক্যাল মান বা দিকের ভেক্টর পার্থক্য, যখন একটি আগে থেকেই
নির্ধারিত মানের চেয়ে বেশি বা কম হয় তখন এই রীলে কাজ করে সিস্টেমকে বা ইলেকট্রিক্যাল যন্ত্রকে রক্ষা করে।

৯৯। HRC ফিউজ
HRC= High Rupturing Capacity । উচ্চ কারেন্ট  প্রবাহিত হয় এরকম লাইনে যে ফিউজ ব্যবহার হয় সেগুলো HRC ফিউজ। এতে
চিনা মাটির তৈরি কেসিং এর মধ্যে ফিউজ তার সংযুক্ত থাকে। ফিউজ তারের চারদিকে বালু বা চক পাউডার এবং কেসিং এর দু-মাথায় দুটি
পিতলের ঢাকনা থাকে। ফিউজ তার উভয় ঢাকনার সাথে সংযুক্ত থাকে।

১০০। বুখলজ রীলে
ট্রান্সফরমারের বিভিন্ন ত্রুটির প্রটেকশন ও সতর্কীকরণ ব্যবস্থার জন্য ট্রান্সফরমার ট্যাংক ও কনজারভেটর এর মাঝে পাইপে যে রীলে বসানো
থাকে সেটাই বুখলজ রীলে। ত্রুটিজনিত অতিরিক্ত কারেন্ট হতে সৃষ্ট উত্তাপে ট্রান্সফরমার ট্যাংকে যে গ্যাসের সৃষ্টি হয়, তার চাপেই এই
রীলে কাজ করে থাকে। অর্থাৎ শুধুমাত্র অয়েল কুলিং ট্রান্সফরমারে এই রীলে ব্যবহৃত হয়।

১০১। আর্থিং সুইস কি?
ট্রান্সমিশন লাইন রক্ষণাবেক্ষণের সময় লাইনে বিদ্যমান চার্জিং কারেন্টকে মাটিতে পাঠানোর জন্য যে সুইস ব্যবহৃত হয় সেটি আর্থিং সুইস (ES)
নামে পরিচিত। আগে আইসোলেটর দিয়ে সার্কিট ডিসকানেক্ট করে আর্থ সুইস দ্বারা লাইনকে আর্থের সাথে সংযোগ করা হয়।

১০২। ওয়েভ ট্রাপ কি?
সাব-স্টেশনে ব্যবহৃত ক্যারিয়ার সরঞ্জামাদির মধ্যে ওয়েভ ট্রাপ অন্যতম একটি ডিভাইস, যার মাধ্যমে ট্রান্সমিশন লাইনের ওয়েভকে ফিল্টার
করা হয়। পাওয়ার লাইনের মাধ্যমেই কমুনিকেশন ফ্রিকুয়েন্সিও পাঠানো হয়, পরবর্তীতে এই ওয়েভ ট্রাপ দিয়ে কমুনিকেশন ফ্রিকুয়েন্সিকে আলাদা করে শব্দ শক্তিতে রুপান্তর করে টেলিফোন বা যোগাযোগ ব্যবস্থা সম্পন্ন করা হয়।

১০৩। সার্জ ভোল্টেজ কি?
পাওয়ার সিস্টেমে হঠাৎ করে খুব অল্প সময়ের জন্য অস্বাভাবিক ভোল্টেজ বৃদ্ধিকে সার্জ ভোল্টেজ বলে। একে ট্রানজিয়েন্ট ভোল্টেজও বলে।

১০৪। কারেন্ট লিমিটিং রিয়াক্টর
কারেন্ট লিমিটিং রিয়াক্টর বা বিদ্যুৎ সীমিত করন রিয়াক্টর যথেষ্ট ইন্ডাক্টিভ রিয়াক্ট্যান্স বিশিষ্ট এক ধরনের ইন্ডাকটিভ কয়েল। শর্ট সার্কিট
অবস্থায় কারেন্টের পরিমাণকে সীমিত রেখে ফল্ট কারেন্টের বিপদমাত্রা নিরাপদ সীমায় নিয়ে আসার জন্য এই রিয়াক্টর লাইনের সাথে
সিরিজে সংযোগ করা হয়।

১০৫। লোড শেডিং
যখন চাহিদার তুলনায় উৎপাদিত বিদ্যুৎ এর পরিমান কম হয়, তখন কোন কোন এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রেখে অন্যান্য এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ চালু রাখা হয়, যাতে ওভার লোডে পুরো সিস্টেম বন্ধ হয়ে না যায়। এ ব্যবস্থাকে লোড শেডিং বলে।

১০৬। লোড শেয়ারিং
একটি বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রের উপর অর্পিত সকল লোড বিভিন্ন প্লান্টের সকল জেনারেটরের মধ্যে যুক্তিযুক্ত ভাবে বন্টন করাকে লোড শেয়ারিং বলে।

১০৭। ‘ j ‘ operator কাকে বলে?
একটি operator যার মান √-1 কোন ভেক্টরের সহিত মাল্টিপ্লাইং ফ্যাক্টর হিসাবে ব্যবহৃত হয়ে উক্ত ভেক্টর এর ৯০ বামাবর্তে ঘূর্ণন নির্দেশ টাকা ‘ j ‘ operator বলে।

১০৮। ওহমের সূত্র
ওহমের সুত্রঃ স্থির তাপমাত্রায় কোন বর্তনীর মধ্য দিয়ে যে কারেন্ট প্রবাহিত হয়, তাহা ঐ বর্তনীর দুই প্রান্তের বিভব পার্থক্যের সহিত সরাসরি সমানুপাতিক এবং রেজিস্টেন্সের সহিত উল্টানুপাতিক।
অর্থাৎ I αV or I α1/V or I =V/R.

১০৯। কারশফের সূত্র
কারশফের কারেন্ট সুত্র (KCL):

কোন বৈদ্যুতিক নেটওয়ার্কের এক বিন্দুতে মিলিত কারেন্ট সমুহের বীজগাণিতিক যোগফল শুন্য অথবা কোন বিন্দুতে আগত কারেন্ট = নির্গত
কারেন্ট।

কারশফের ভোল্টেজ সুত্র (KVL):

কোন বদ্ধ বৈদ্যুতিক নেটওয়ার্কের সকল ই.এম.এফ এবং সকল ভোল্টেজ ড্রপের বীজগাণিতিক যোগফল শুন্য।

১১০। ফ্যারাডের সূত্র
প্রথম সুত্রঃ একটি তার বা কয়েলে ই. এম. এফ আবিষ্ট হয় তখন, যখন উক্ত তার বা কয়েলের সাথে সংশ্লিষ্ট চৌম্বক ফ্লাক্স বা চৌম্বক বল রেখার পরিবর্তন ঘটে।

দ্বিতীয় সুত্রঃ আবেশিত বিদ্যুচ্চালক বল এর পরিমান চৌম্বক বল রেখার পরিবর্তনের হারের সাথে সরাসরি সমানুপাতিক।

উপরোক্ত সূত্র দুটি একত্রে এভাবে লেখা যায়ঃ একটি পরিবাহী এবং একটি চৌম্বক ক্ষেত্রে আপেক্ষিক গতি যখন এরুপভাবে বিদ্যমান থাকে যে,
পরিবাহীটি চৌম্বক ক্ষেত্রটিকে কর্তন করে, তখন পরিবাহিতে আবেশিত একটি বিদ্যুচ্চালক বল সংঘটিত কর্তনের হারের সাথে সমানুপাতিক।

১১১। লেনজের সূত্র লিখ।
আবেশিত বিদ্যুচ্চালক বলের কারনে পরিবাহী তারে প্রবাহিত আবেশিত কারেন্ট পরিবাহী তারের চারপাশে একটি চৌম্বক ক্ষেত্র সৃষ্টি করে, যা
দারা আবেশিত কারেন্টের উৎপত্তি, উহাকেই (অর্থাৎ পরিবর্তনশীল ফ্লাক্স) এ (সৃষ্ট চৌম্বক ক্ষেত্র) বাধা প্রদান করে । যেখানে পরিবাহী স্থির এবং
চৌম্বক ক্ষেত্র গতিতে থাকে সেখানে লেনজের সূত্র ব্যবহার হয়।

১১২। ফ্লেমিং এর রাইট হ্যান্ড রুল কি?
দক্ষিণ হস্তের বৃদ্ধাঙ্গুলি, তর্জনী ও মধ্যমাকে পরস্পর সমকোণে রেখে বিস্তৃত করলে যদি তর্জনী চৌম্বক বলরেখার অভিমুখ এবং বৃদ্ধাঙ্গুলি
পরিবাহী তারের ঘূর্ণনের অভিমুখ নির্দেশ করে, তবে মধ্যমা পরিবাহিতে প্রবাহিত আবেশিত কারেন্টের অভিমুখ নির্দেশ করেবে।
ইহাই ফ্লেমিং এর রাইট হ্যান্ড রুল। যেখানে চৌম্বক ক্ষেত্র স্থির এবং পরিবাহী গতিতে থাকে, সেখানে ফ্লেমিং এর রাইট হ্যান্ড রুল ব্যবহার
করা হয়।

১১৩। মিউচুয়াল ফ্লাক্স কাকে বলে?
পাশাপাশি অবস্থিত দুটি কয়েলের একটিতে কারেন্ট প্রবাহের ফলে সৃষ্ট ফ্লাক্সের যে অংশবিশেষ অন্যটিতে সংশ্লিষ্ট হয়, তাকে মিউচুয়াল ফ্লাক্স
বলে।

১১৪। এডি কারেন্ট
যখন একটি বৈদ্যুতিক চুম্বকের কয়েলের মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত কারেন্ট পরিবর্তিত হতে থাকে, তখন চৌম্বক ক্ষেত্রও পরিবর্তিত হতে থাকে। এই
পরিবর্তনশীল ফ্লাক্স কয়েলের তারকে কর্তন করে, ফলে কয়েলে একটি ভোল্টেজের সৃষ্টি হয়। একই সময়ে এই ফ্লাক্স লৌহ দণ্ডকেও কর্তন করে। ফলে এই লৌহ দণ্ডেও ভোল্টেজের সৃষ্টি হয়। এই ভোল্টেজের কারনে লৌহ দণ্ডে একটি কারেন্ট আবর্তিত হতে থাকে, এই আবর্তিত কারেন্টকেই এডি কারেন্ট বলে।

১১৫। স্যাগ
দুইটি পোল বা টাওয়ারের মধ্যে কন্ডাকটর লাগানো হলে কন্ডাকটরটি কিছুটা ঝুলে পড়ে। পোল বা টাওয়ার দুইটির যে বিন্দুতে কন্ডাকটর লাগানো হয়েছে সেই বিন্দু দুইটির সংযোগকারি কাল্পনিক রেখা হতে কন্ডাকটরটির সর্বোচ্চ ঝুলকে স্যাগ (SAG) বা ঝুল বলে।

১১৬। তার ও ক্যাবল
তার খোলা বা হালকা ইন্সুলেশন যুক্ত হয় এবং সলিড বা স্ট্রান্ডেড হয়, কিন্তু ক্যাবল সব সময় ইন্সুলেটেড ও স্ট্রান্ডেড হয়।

১১৭। A.C.S.R ক্যাবল
একে Steel cored aluminium-ও বলে। উচ্চ ভোল্টেজ পরিবহন করার জন্য অ্যালুমিনিয়াম কন্ডাকটরের কেন্দ্রে প্রলেপ যুক্ত ষ্টীল কোর ব্যবহার করে A.C.S.R তার তৈরি করা হয়। এতে অ্যালুমিনিয়াম তারের টান সহন ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

১১৮। লাইটিং এরেস্টার
লাইটনিং এরেস্টার বা সারজ ডাইভারটার এক ধরনের ইলেকট্রিক্যাল প্রটেকটিভ ডিভাইস, যা পাওয়ার সিস্টেমে হাই ভোল্টেজকে বা সারজ
ভোল্টেজকে সরাসরি মাটিতে প্রেরন করে।

১১৯। AC বা অল্টারনেটিং কারেন্ট কি?
যে কারেন্টের দিক সময়ের সাথে সাথে পরিবর্তিত হয় তাকে অল্টারনেটিং কারেন্ট (AC) বলে।

১২০। সিস্টেম লস কি?
উৎপাদন কেন্দ্রের নিজস্ব ব্যবহার সহ যন্ত্রপাতির অপচয়, পরিবহন তারের রেজিসটেন্স জনিত অপচয় এবং অন্যান্য কারিগরি-অকারিগরি

১২১। ফিডার কি?
জনবহুল এলাকা, কারখানা বা আবাসিক এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করার লক্ষে উচ্চ ভোল্টেজ উপকেন্দ্র বা গ্রিড উপকেন্দ্র হতে বিভিন্ন লোড
সেন্টারে বিদ্যুৎ সরবরাহ প্রদানের জন্য যে untapped লাইন নির্মাণ করা হয় তাকে ফিডার বলে।

১২২। স্ট্রিং ইফিসিয়েন্সি কি?
সাসপেনশন ডিস্ক ইন্সুলেটর এর N-সংখ্যক ইউনিটের স্পার্ক ওভার ভোল্টেজ একটি ইউনিটের N-গুন স্পার্ক ওভার ভোল্টেজের অনুপাতকে স্ট্রিং ইফিসিয়েন্সি বলে।
স্ট্রিং ইফিসিয়েন্সি = N-সংখ্যক ইউনিটের SOV/ N x একটি ইউনিটের SOV (Max. Volts)
SOV= Spark Over Voltage

১২৩। ট্রান্সফরমারের ব্রীদার কি?
উত্তরঃ ট্রান্সফরমারের ট্যাংকে জলীয়বাস্পমুক্ত অর্থাৎ শুষ্ক বাতাস প্রবেশের জন্য ট্রান্সফরমারে যে প্রকোষ্ঠ ব্যবহার করা হয় তাকে ব্রীদার
বলে।

১২৪। মিনিয়েচার সার্কিট ব্রেকার কাকে বলে?
মিনিয়েচার শব্দের আভিধানিক অর্থ হল ক্ষুদ্রাকার। যে সার্কিট ব্রেকার অল্প কারেন্টে কাজ করে এবং আকারের দিক দিয়েও ছোট এই ধরনের
সার্কিট ব্রেকারগুলোকে মিনিয়েচার সার্কিট ব্রেকার বলে।

১২৫। বাসবার কি?
বাসবার এক ধরনের তামা বা  এলুমিনিয়ামের তৈরি পরিবাহী পাত, বার বা রড, যা এক বা একাধিক সার্কিটে ইলেকট্রিক্যাল এনার্জি
সংগ্রহ ও বিতরন করে।

১২৬। এয়ার সার্কিট ব্রেকার কাকে বলে?
যে সার্কিট ব্রেকারে আর্ক নির্বাপণ এবং অপারেটিং স্বাভাবিক বায়ুমণ্ডলের বাতাসের চাপে করা হয় তাকে এয়ার সার্কিট ব্রেকার বলে।

১২৭। মোটর কাকে বলে ?
ইহা এক প্রকার ইলেকট্রিকাল মেশিন যা সরবরাহ থেকে ইলেকট্রিকাল শক্তি গ্রহন করে যান্ত্রিক শক্তিতে রুপান্তর করে তাকে মোটর বলে । ইহা AC ও DC এর হয়ে থাকে ।

১২৮। জেনারেটর
জেনারেটর এমন একটি যন্ত্র বা মেশিন যান্ত্রিক শক্তিকে বৈদ্যুতিক শক্তিতে রুপান্তরিত করা হয় ।

১২৯। কম্যুটেটর
প্রত্যেক ডিসি জেনারেটরের আর্মেচারে উৎপন্ন কারেন্ট সব সময় এসি হয়ে থাকে, ডিসি জেনারেটরের এই এসি ভোল্টেজকে বহিঃসার্কিটে
ডিসি পাওয়ার জন্য যে ডিভাইস বা মেকানিজম ব্যবহৃত হয় তাকে কমুটেটর বলে।

১৩০। এক্সাইটার
ফিল্ড তৈরি করতে এক্সাইটেশন ভোল্টেজ দরকার, যার মাধ্যমে অল্টারনেটরের ফিল্ডে এক্সাইটেশন ভোল্টেজ দেয়া হয় তাকে এক্সাইটার
বলে। এটা একটি এক্সটারনাল ডিসি সাপ্লাই ব্যবস্থা (ব্যাটারি, ডিসি শান্ট জেনারেটর বা রেক্টিফায়ার) যার মাধ্যমে ফিল্ডে ডিসি সাপ্লাই
দিয়ে অল্টারনেটরে চুম্বক ফিল্ড তৈরি করা হয়।

১৩১। What is The difference between earth and neutral?
Neutral is the return path of the conductor through which current flows back to the system. However
earth is used for protection against high fault current. When the current is very high it flows through earth and bypass the equipment or device thus protecting it.

১৩২। মিউচুয়াল ফ্লাক্স কাকে বলে?
পাশাপাশি অবস্থিত দুটি কয়েলের একটিতে কারেন্ট প্রবাহের ফলে সৃষ্ট ফ্লাক্সের যে অংশবিশেষ অন্যটিতে সংশ্লিষ্ট হয়, তাকে মিউচুয়াল ফ্লাক্স
বলে।

১৩৩। সিনক্রোনাইজিং
সার্কিটের লোড বৃদ্ধি পেলে এবং একটি অল্টারনেটর দ্বারা যদি সে বর্ধিত লোডের চাহিদা পুরন করা সম্ভব না হয় তাহলে দুই বা ততোধিক
অল্টারনেটরকে কিছু শর্ত সাপেক্ষে একটি আরেকটির সাথে প্যরালেলে অপারেশন করা হয়, এই পদ্ধতিকে সিনক্রোনাজিং বলে।

১৩৪। মোটর স্লিপ
মোটরের এর সিনক্রোনাস স্পীড N ও রোটর স্পীড N এর পার্থক্যকে সিনক্রোনাস স্পীড দ্বারা ভাগ করলে যে মান পাওয়া যায় তাকে ইন্ডাকশন
মোটরের স্লিপ(S) বলে। ইহাকে শতকরায় প্রকাশ করা হয়। ইহার মান সাধারণত 4% থেকে 8% থাকে।

১৩৫। ব্যাক ই এম এফ
যখন কোন ডিসি মোটরের আর্মেচার ফিল্ড চুম্বক ক্ষেত্রের ভিতর ঘুরতে থাকে তখন ঐ আর্মেচারে কন্ডাকটর চুম্বক বল রেখাকে কর্তন করে ফলে
আর্মেচার কন্ডাক্টর বাহিরের কারেন্ট ছাড়াও ঘূর্ণনের জন্য ভোল্টেজ উৎপন্ন করে যার অভিমুখ সরবরাহ ভোল্টেজের বিপরীত, এই ভোল্টেজকে ব্যাক ই এম এফ বলে। Back e.m.f, E = φzNP/60A Volts or E = V-I R Volts

১৩৬। আরমেচার রিয়াকশন
কোন কন্ডাক্টরের ভিতর দিয়ে কারেন্ট প্রবাহিত হলে সে কন্ডাক্টরের চতুর্দিকে একটি চুম্বক ক্ষেত্রের সৃষ্টি হয়। ডিসি মেশিনের পোলের চুম্বক ক্ষেত্রের উপর আর্মেচার কন্ডাক্টরের প্রবাহ জনিত চুম্বক ক্ষেত্রের প্রভাবকে আর্মেচার রিয়াকশন বলে। এর ফলে কার্বন ব্রাশে স্পার্ক দেখা দেয় এবং টার্মিনাল ভোল্টেজ কমে যায়। Air Gap বাড়িয়ে, Compensating Winding এবং Interpole ব্যবহার করে আর্মেচার রিয়াকশন কমানো যায়।

১৩৭। সিনক্রোনাস মোটর
যে মোটর নো-লোড হতে ফুল লোড পর্যন্ত একটি নির্দিস্ট গতিবেগে ঘুরে তাকে সিনক্রোনাস মোটর বলে। এই মোটরের স্পীড সবসময়

N = 120f/P হয়ে থাকে।

১৩৮। ট্রান্সমিশন লাইনের ট্রান্সপজিশনিং কি?
অসমান দূরত্বের আনব্যালান্স তিন ফেজ ওভারহেড লাইনের ব্যালান্স প্রতিষ্ঠা করার লক্ষে নির্দিষ্ট ব্যবধানে প্রতিটি তারের মধ্যে পারস্পারিক
স্থান বিনিময়ের ব্যবস্থা কে ট্রান্সপজিশনিং বলা হয়।

১৩৯। সেমিকন্ডাক্টর
ইহা এমন একটি পদার্থ যাহার কন্ডাকটিভ অর্থাৎ যে পদার্থের আউটার অরবিটে ব্থাকে তাকে সেমিকন্ডাক্টর বলে ।
যেমন – জার্মেনিয়াম, সিলিকন ইত্যাদি ।

১৪০। জেনার ডায়োড
যে সকল ক্রিস্টাল ডায়োড এমনভাবে ডোপিং করা হয় যার একটি শার্প ব্রেকডাউন ভোল্টেজ থাকে। জেনার ডায়োড সর্বদাই রিভার্স বায়াসে
কাজ করে। ইহা ভোল্টেজ রেগুলেটর হিসাবে কাজ করে।

১৪১। অ্যামপ্লিফায়ার
অ্যামপ্লিফায়ার বা বিবর্ধক এমন একটি ডিভাইস যার মাধ্যমে কোন দুর্বল বা ছোট সিগন্যালকে শক্তিশালী বা বড় সিগন্যালে রূপান্তরিত করা যায়।

১৪২। ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং এর যে শাখায় ভ্যাকুয় সম্পর্কে আলোচনা ও গবেষণা করা হয় তাকে ইলেকট্রনিক্স বলে

১৪৩। অসিলেটর
ইহা এমন একটি ডিভাইস যার মাধ্যমে চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন রেঞ্জের বা মানের ফ্রিকুয়েন্সি জেনারেট করা যায়। ইহা মুলতঃ কোন ডিসি
সোর্স থেকে প্রাপ্ত শক্তিকে পরিবর্তনশীল আউটপুটে রূপান্তরিত করে থাকে।

১৪৪। রিপল ফ্যাক্টর
রেক্টিফায়ার এর আউটপুটে পালসেটিং DC এর AC কম্পোনেন্ট এর RMS মান এবং DC কম্পোনেন্ট এর মানের অনুপাত একটি ধ্রুব সংখ্যা, এই ধ্রুব সংখাকে রিপল ফ্যাক্টর বলে। রিপল ফ্যাক্টর এর মান যত কম হয় DC তত ভালো কোয়ালিটির হয়।

১৪৫। এনালগ ও ডিজিটাল সিগন্যাল
যে সিগন্যাল সময়ের সাথে পরিবর্তিত হয় এবন যেকোন মানে থাকতে পারে তাকে এনালগ সিগন্যাল বলে। আর যে সিগন্যালে শুধু মাত্র দুইটি লেভেল (0,1 অথবা high, low) থাকে, তাকে ডিজিটাল সিগন্যাল বলে।

১৪৬। বিট ও বাইট
বিটঃ বাইনারি ডিজিট ( 0, 1) এর প্রত্যেকটিকে বিট বলে।
বাইটঃ ৮টি বিট এর গ্রুপকে একত্রে বাইট বলে।

১৪৭। মাল্টিপ্লেক্সার ও ডিমাল্টিপ্লেক্সার
মাল্টিপ্লেক্সার: যে সার্কিটের একাধিক ইনপুট ও একটি মাত্র আউটপুট থাকে এবং যথাযথ নির্বাচন ব্যবস্থার মাধ্যমে যে কোন একটি ইনপুট
সিগনালকে অউটপুটে পাঠায় তাকে মাল্টিপ্লেক্সার বলে।

ডিমাল্টিপ্লেক্সার: যে সার্কিটের একটি ইনপুট ও একাধিক আউটপুট থাকে এবং যথাযথ নির্বাচন ব্যবস্থার মাধ্যমে ইনপুট সিগনালকে যেকোন অউটপুটে পাঠায় তাকে মাল্টিপ্লেক্সার বলে।

১৪৮। কারনু ম্যাপ (Karnough Map)
যে ম্যাপের সাহায্যে লজিক রাশিমালা সরলীকরণ করা হয় তাকে  কারনু ম্যাপ বলে। মরিস কারনুফ এই ম্যাপ আবিস্কার করেন, তার নামানুসারে এর নাম কারনু ম্যাপ রাখা হয়।

১৪৯। বুলিয়ান বীজগনিত
লজিক গেইট ও লজিক সার্কিটের জন্য যে সকল বীজগনিত ও ইকুইশন ব্যবহার করা হয় তাকে বুলিয়ান বীজগনিত বলে।

১৫০। সিলিকন কন্ট্রোল রেক্টিফায়ার (SCR) 
SCR এর অর্থ হল Silicon Controlled Rectifier । ইহা তিন টার্মিনাল ( Anode, Cathode, Gate), চার স্তর, তিন জাংশন বিশিষ্ট PNPN সেমিকন্ডাক্টর সুইচিং ডিভাইস।

১৫১। ‘ Heat Sink’ কি?
ইহা এক প্রকার ধাতুর সীট যা থাইরিস্টর বা অন্য কোন ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস (আই সি, ট্রানজিস্টর) থেকে অতিরিক্ত তাপমাত্রা কমানোর জন্য ব্যবহৃত হয়।

১৫২। ইউনিভার্সাল লজিক গেইট
যে সকল লজিক গেইট দ্বারা অন্যান্য সকল গেইট তৈরি করা যায় তাদেরকে ইউনিভার্সাল লজিক গেইট বলে। NAND ও NOR ইউনিভার্সাল লজিক গেইট।

১৫৩। ট্রান্সডিউসার ও সেন্সর
যে সকল ডিভাইস এক প্রকার শক্তিকে আরেক প্রকার শক্তিতে রুপান্তর করে তাকে ট্রান্সডিউসার বলে।
আর ট্রাসডিউসারকে যখন বিশেষ উদ্দেশ্যে তৈরি কোন যন্ত্রের সহায়ক হিসেবে ব্যবহার করা হয় তখন তাকে ঐ যন্ত্রের সেন্সর বলা হয়।

১৫৪। SCADA কি?
Supervisory Control and Data Acquisition (SCADA) : The combination of transducers, communication links and data processing systems which provides information to the National Load Dispatch Centre(NLDC) on the operation of the Transmission System and the Generating Units.

১৫৫। Smart Grid
A smart grid puts advanced information and communication technology into electricity generation, delivery and consumption with dynamic pricing, making systems cleaner, safer, and more reliable and efficient into the current electricity grid.

১৫৬। মাল্টিভাইব্রেটর
যে ডিভাইসের মাধ্যমে Square বা Non- Sinusoidal ওয়েভ জেনারেট করা হয় তাকে মাল্টিভাইব্রেটর বলে।
মাল্টিভাইব্রেটর একধরনের অ্যামপ্লিফায়ার যার দুটি স্টেজ। এই দুটি স্টেজকে এমনভাবে কাপ্লিং করা হয় যে, একটির আউটপুট অন্যটির ইনপুট
হিসাবে কাজ করে।

১৫৭। রেক্টিফায়ার
যে ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইসের মাধ্যমে এসি (A/C) কে ডিসি (D/C) তে রুপান্তরিত করা হয় তাকে রেক্টিফায়ার বলে।

১৫৮। পিক ইনভারস ভোল্টেজ (PIV)
ইহা রেকটিফায়ার সার্কিটের সরবচ্চ রিভার্স ভোল্টেজ যাতে একটি ডায়োড নষ্ট না হয়ে কাজ করতে পারে। PIV এর চেয়ে বেশি ভোল্টেজ
হলে ডায়োড নষ্ট হয়ে যায়।

১৫৯। ক্লিপিং ও ক্লাম্পিং সার্কিট
ক্লিপিং: যে সার্কিটের সাহায্যে সাইনওয়েভকে বিভিন্ন আকৃতিতে পরিবর্তন করা যায় তাকে ক্লিপিং সার্কিট বলে।

ক্লাম্পিং: যে সার্কিটের সাহায্যে কোন সিগন্যাল ভোল্টেজ এর পজিটিভ বা নেগেটিভ পিক মানকে কাঙ্ক্ষিত ডিসি মানে আনা যায়, তাকে
ক্লাম্পিং সার্কিট বলে।

১৬০। মডুলেশন ও ডিমডুলেশন
ক্যারিয়ার ওয়েভের সাথে সিগন্যালকে মিশ্রিত করাকে মডুলেশন বলে। আবার মুল সিগন্যালকে ক্যারিয়ার ওয়েভ থেকে আলাদা করাকে ডিমডুলেশন বলে।

১৬১। সিগন্যালে নয়েজ কি?
ডাটা কমুনিকেশনে বা কোন কন্ট্রোল সিস্টেমে মূল সিগন্যালের সাথে কোন মাধ্যম দ্বারা প্রভাবিত অনাকাঙ্ক্ষিত সিগন্যালকে নয়েজ বলে।

১৬২। ফ্লিপ ফ্লপ সার্কিট
যে ডিজিটাল সার্কিটে দুইটি স্টেবল স্টেট থাকে এবং একটি ট্রিগারিং পালস প্রয়োগ করলে উহার স্টেট বা অবস্থার পরিবর্তন হয়, তবে ঐ মেমরি
উপাদানকে ফ্লিপ ফ্লপ বলে।

১৬৩। এনকোডার ও ডিকোডার
এনকোডারঃ যে সার্কিটের সাহায্যে দশমিক বা এনালগ ডাটাকে বাইনারি ডাটায় বা মেশিনের বোধগম্য ভাষায় রুপান্তর করা যায় তাকে এনকোডার বলে।

ডিকোডারঃ যে সার্কিটের সাহায্যে বাইনারি ডাটায় বা মেশিনের বোধগম্য ভাষাকে দশমিক বা এনালগ ভাষায় রুপান্তর করা যায় তাকে ডিকোডার বলে।

১৬৪। LDR কি?
LDR (Light Dependent Resistor) এটি এমন এক ধরনের রেজিস্টর যার মান আলোর সাথে পরিবর্তিত হয়।

১৬৫। বাইপোলার ট্রানজিস্টর ও ইউনিপোলার ট্রানজিস্টর
যে ট্রানজিস্টর এ হোল ও ইলেকট্রন দুইটি ক্যারিয়ার প্রবাহের ফলে কারেন্ট প্রবাহের সৃষ্টি হয় তাকে বাইপোলার ট্রানজিস্টর বলে। যেমন NPN ও PNP ট্রানজিস্টর।
যে ট্রানজিস্টর এ হোল ও ইলেকট্রন এর যেকোন একটি ক্যারিয়ার প্রবাহের ফলে কারেন্ট প্রবাহের সৃষ্টি হয় তাকে ইউনিপোলার ট্রানজিস্টর বলে। যেমনঃ FET

১৬৬। ফিডব্যাক কি?
যে সকল সার্কিটের আউটপুট সিগন্যালকে পুনরায় ব্যবহারের জন্য ঐ সার্কিটের ইনপুট হিসাবে ব্যবহার করা হয় এবং তা থেকে আউটপুট পাওয়া যায় তাকে ফিডব্যাক বলে।

১৬৭। এমপ্লিচিউড মডুলেশন (AM) ও ফ্রিকুয়েন্সি মডুলেশন (FM)
AM (Amplitude Modulation): ক্যারিয়ার ওয়েভের Amplitude সিগন্যাল ওয়েভের তাৎক্ষনিক মান অনুসারে পরিবর্তন
করার প্রক্রিয়াকে এমপ্লিচিউড মডুলেশন বলে।

FM (Frequency Modulation): ক্যারিয়ার ওয়েভের Frequency সিগন্যাল ওয়েভের তাৎক্ষনিক মানের সাথে সমানুপাতিক ভাবে পরিবর্তন করার প্রক্রিয়াকে ফ্রিকুয়েন্সি মডুলেশন বলে।

১৬৮। পূর্ণরুপ কিছু-
GSM = Global System for Mobile Communication
CDMA = Code Division Multiple Access.
FDMA = Frequency Division Multiple Access.
VSAT = Very Small Aperture Terminal.
PWM = Pulse Width Modulation
CMOS = Complementary Metal Oxide
Semiconductor
MOSFET = Metal Oxide Semiconductor Field Effect
Transistor
LASER = Light Amplification by Stimulated
Emission of Radiation
LDR =Light Dependent Resistor.
AWG = American Wire Gauge.
SWG = Standard Wire Gauge.
NLDC = National Load Dispatch Centre.
SCADA = Supervisory Control and Data Acquisition.
IEEE = Institute of Electrical and Electronics Engineers

১৬৯।    সোল্ডারিং বলতে কি বোঝ? এতে ব্যবহৃত উপাদান সমূহ কি কি ও এদের অনুপাত কত?

উত্তরঃ যে পদ্ধতিতে দুই বা ততোধিক ধাতব পদার্থ সংযুক্ত বা একত্রিত করা হয় তাকে সোল্ডারিং বলে। এতে ব্যবহৃত     উপাদান সমূহ হচ্ছে সীসা ও টিন, এদের অনুপাত ৪০ঃ৬০।

১৭০।    সোল্ডারিং এর সময় রজন ব্যবহার করা হয় কেন বা এর সুবিধা কি?

উত্তরঃ সংযোগস্থল ভালভাবে পরিষ্কার এবং মজবুত করার জন্য সোল্ডারিং এর সময় রজন ব্যবহার করা হয়।

১৭১।    রেজিস্টর কি? বিভিন্ন ধরনের রেজিস্টরের নাম লিখ।

উত্তরঃ ইলেকট্রিকাল ও ইলেকট্রনিক্স সার্কিটে কারেন্ট প্রবাহকে সীমিত  রাখার জন্য এবং কারেন্ট প্রবাহের পথে বাথা দেয়ার     জন্য যে উপাদান ব্যবহার করা হয় তাকে রেজিস্টর বা রোধক বলে।
বিভিন্ন ধরনের রেজিস্টর: কার্বন রেজিস্টর, ওয়্যারউন্ড রেজিস্টর, সিরামিক রেজিস্টর, ফিল্ম টাইপ রেজিস্টর ইত্যাদি।

১৭২।    কালার কোড পদ্ধতি কি? বিভিন্ন রং এর মান লিখ।

উত্তরঃ রেজিস্টরের গায়ের রং দেখে রেজিস্টরের মান নির্নয় করার পদ্ধতিকে কালার কোড পদ্ধতি বলে।

বিভিন্ন রং এর মানঃ  কালো ০,  বাদামী = ১,  লাল = ২,  কমলা = ৩,  হলুদ = ৪,  সবুজ = ৫,  নীল = ৬, বেগুনী = ৭,       ধূসর = ৮, সাদা = ৯, সোনালী  =   ৫%, রুপালী =   ১০%, নো কালার =   ২০%।

১৭৩।    রেজিস্টেন্স, ক্যাপাসিটেন্স ও কন্ডাকটেন্স বলতে কি বুঝ?

উত্তরঃ রেজিস্টেন্স: রেজিস্টর যে ধর্মের কারনে বাধা প্রদান করে সেই ধর্মকে রেজিস্টেন্স বলে।

ক্যাপাসিটেন্স: ক্যাপাসিটরের যে বৈশিষ্টের কারনে চার্জ সঞ্চয় বা ধারন করে তাকে ক্যাপাসিটেন্স বলে।

কন্ডাকটেন্স: কন্ডাকটর যে বৈশিষ্টের কারনে এর মধ্য দিয়ে বিদ্যুৎ প্রবাহ করে তাকে কন্ডাকটেন্স বলে।

১৭৪।    টলারেন্স ব্যান্ড বলতে কি বোঝ?

উত্তরঃ কোন রেজিস্টরের শেষ কালার বা ব্যান্ডকে টলারেন্স ব্যান্ড বলে। যা রেজিস্টরের মানের ভারসম্য রক্ষা করে।

১৭৫।    ইলেকট্রনিক্স কাজে কোন রেজিস্টর বেশি ব্যবহৃত হয়?

উত্তরঃ ইলেকট্রনিক্স কাজে কার্বন রেজিস্টর বেশি ব্যবহৃত হয়।

১৭৬।    কন্ডাক্টর, সেমিকন্ডাক্টর ও ইনসুলেটর বলতে কি বোঝ?
উত্তরঃ কন্ডাক্টর: যে পদার্থের ভ্যলেন্স ইলেকট্রন সংখ্যা ৪ এর কম তাকে কন্ডাকটর বলে।
সেমিকন্ডাক্টর: যে পদার্থের ভ্যলেন্স ইলেকট্রন সংখ্যা ৪ টি তাকে সেমিকন্ডাক্টর বলে।
ইনসুলেটর: যে পদার্থের ভ্যালেন্স ইলেকট্রন সংখ্যা ৪ এর বেশি তাকে ইনসুলেটর বলে।

১৭৭।    ত্রিযোজি ও পঞ্চযোজি মৌল কি? কয়েটির নাম লিখ।

উত্তরঃ ত্রিযোজি মৌল: যে মৌলের যোজনী সংখ্যা ৩টি তাকে ত্রিযোজি মৌল বলে।
যেমন: গ্যালিয়াম, ইন্ডিয়াম, অ্যালুমিনিয়াম, বোরন ইত্যাদি।

পঞ্চযোজি মৌল: যে মৌলের যোজনী সংখ্যা ৫টি তাকে পঞ্চযোজি মৌল বলে।
যেমন: আর্সেনিক, অ্যান্টিমনি, ফসফরাস ইত্যাদি।

১৭৮।    জার্মেনিয়ামের চেয়ে সিলিকন বেশি ব্যবহৃত হয় কেন?

উত্তরঃ  জার্মেনিয়ামের চেয়ে সিলিকন বেশি ব্যবহৃত হয় কারণ জার্মেনিয়ামের চেয়ে সিলিকন বেশি  তাপ  সহ্য  করতে  পারে     এবং সিলিকনের দাম কম।

১৭৯।    হোল, ইলেকট্রন ও ডোপিং বলতে কি বোঝ?

উত্তরঃ হোল: হোল বলতে এটমের মধ্যে ইলেকট্রনের ঘাটতি জনিত সৃষ্ট (+) ve চার্জের আধিক্যকে বুঝায়।

ইলেকট্রন: এটি পরমাণুর ক্ষুদ্রতম ও গুরুত্বপূর্ণ কণিকা যা নেগেটিভ চার্জ বহন করে।

ডোপিং: খাঁটি সেমিকন্ডাকটরে ভেজাল মিশ্রিত করে এর পরিবাহীতা বৃদ্ধি করার পদ্ধতি বা কৌশলকে ডোপিং বলে।

১৮০।    কো-ভ্যালেন্ট বন্ড ও ভ্যালেন্স ইলেকট্রন বলতে কি বোঝ?

উত্তরঃ কো-ভ্যালেন্ট বন্ড: পরমাণুর শেষ কক্ষপাতের ইলেকট্রন সমূহ যে বন্ধনের  মাধ্যমে  একটি  আরেকটির  সাথে  সংযুক্ত     থাকে সেই বন্ধনকে কো-ভ্যালেন্ড বন্ড বলে।

ভ্যালেন্স ইলেকট্রন: পরমাণুর শেষ কক্ষপাতের ইলেকট্রন সমূহকে ভ্যালেন্স ইলেকট্রন বলে।

১৮১।    সেমিকন্ডাকটর কত প্রকার ও কি কি ? এদের সংজ্ঞা দাও।

উত্তরঃ সেমিকন্ডাকটর দুই প্রকার। ১) খাঁটি সেমিকন্ডাকটর  ২) ভেজাল সেমিকন্ডাকটর

খাঁটি সেমিকন্ডাক্টর: ডোপিং এর পূর্বে বিশুদ্ধ সেমিকন্ডাকটরকে খাঁটি সেমিকন্ডাক্টর বলে।

ভেজাল সেমিকন্ডাকটর: ডোপিং এর পরে ভেজালযুক্ত সেমিকন্ডাকটরকে ভেজাল (Extrinsic) সেমিকন্ডাক্টর বলে।

ভেজাল সেমিকন্ডাকটর দুই প্রকার: ১) পি-টাইপ সেমিকন্ডাক্টর  ২) এন-টাইপ সেমিকন্ডাক্টর

পি-টাইপ সেমিকন্ডাক্টর: কোন খাঁটি সেমিকন্ডাকটরের সাথে ভেজাল হিসেবে সামান্য পরিমাণ ত্রিযোজি মৌল যেমন: ইন্ডিয়াম,     গ্যালিয়াম, অ্যালূমিনিয়াম ইত্যাদি মিশ্রিত করা হয় তাকে পি-টাইপ সেমিকন্ডাক্টর বলে।

এন-টাইপ সেমিকন্ডাক্টর: কোন খাঁটি সেমিকন্ডাকটরের সাথে ভেজাল হিসেবে সামান্য পরিমাণ পঞ্চযোজী মৌল যেমন:        আর্সেনিক, এন্টিমনি, ফসফরাস ইত্যাদি মিশ্রিত করা হয় তাকে এন-টাইপ সেমিকন্ডাক্টর বলে।

১৮২।     সেমিকন্ডাক্টরের সুবিধা ও অসুবিধা লিখ।
উত্তরঃ সেমিকন্ডাক্টরের সুবিধা:     ১) সেমিকন্ডাক্টরে কম পাওয়ার লস হয়।
                                                    ২) এর কোন তাপশক্তির প্রয়োজন হয় না।
                                                 ৩) সেমিকন্ডাকক্টরের আয়ুষ্কাল অনেক বেশি।
                                                ৪) এটি দ্বারা তৈরী ডিভাইস খুব ছোট হয়।
                                              ৫) এটি ভঙ্গুর নয়।
সেমিকন্ডাক্টরের অসুবিধা:        ১) তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেলে সেমিকন্ডাকটরের কন্ডাকটিভিটি বৃদ্ধি পায়।
২) তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেলে কো – ভ্যালেন্ড বন্ড ভেঙ্গে মুক্ত ইলেকট্রনের সৃষ্টি হয়।
৩) তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেলে রেজিস্ট্যান্স কমে এবং তাপমাত্রা কমলে রেজিস্ট্যান্স বৃদ্ধি পায়।

১৮৩।    বায়াসিং বলতে কি বোঝ? ইহা কত প্রকার ও কি কি?

উত্তরঃ কোন ট্রানজিস্টরকে সচল করার জন্য বাহির থেকে যে ডি.সি সাপ্লাই দেয়া হয় তাকে বায়াসিং বলে।

বায়াসিং দুই প্রকার: ১) ফরোয়ার্ড বায়াসিং  ২) রিভার্স বায়াসিং

ফরোয়ার্ড বায়াসিং: ব্যাটারির P প্রান্ত পজিটিভের সাথে এবং N প্রান্ত নেগিটিভের সাথে যুক্ত করে যে বায়াসিং করা হয় তাকে     ফরোয়ার্ড     বায়াসিং বলে।

রিভার্স বায়াসিং: ব্যাটারির P প্রান্ত নেগিটিভের সাথে এবং N প্রান্ত পজিটিভের  সাথে যুক্ত  করে  যে  বায়াসিং  করা  হয়      তাকে রিভার্স  বায়াসিং বলে।

১৮৪।    লিকেজ কারেন্ট বলতে কি বোঝায়?

উত্তরঃ মাইনোরিটি ক্যারিয়ারের জন্য পি-এন জাংশন ডায়োডে যে সামান্ন কারেন্ট প্রবাহিত হয় তাকে লিকেজ কারেন্ট বলে।

১৮৫।    নী ভোল্টেজ বা অফসেট ভোল্টেজ কাকে বলে?

উত্তরঃ পি-এন জাংশন ডায়োডে ফরোয়ার্ড ভোল্টেজের যে মানে ফরোয়ার্ড কারেন্ট বৃদ্ধি পায় তাকে নী ভোল্টেজ বা অফসেট     ভোল্টেজ বলে।

১৮৬।    ডিফিউশন ও ডিফিউশন কারেন্ট কাকে বলে?

উত্তরঃ ডিফিউশন: জাংশন ভেদ করে হোল ও ইলেকট্রনের চলাচলের প্রবণতাকে ডিভিউশন বলে।

ডিফিউশন কারেন্ট: ডিভিউশন এর কারণে উচ্চ অঞ্চল থেকে নিু অঞ্চলে সৃষ্ট কারেন্ট প্রবাহকে ডিভিউশন কারেন্ট বলে।

১৮৭।    ডিপ্লে¬শন লেয়ার কাকে বলে?

উত্তরঃ পি-টাইপ ও এন-টাইপ এর সমন্বয়ে যে ইলেক্টিক ফিল্ড সৃষ্টি করে তাকে ডিপ্লে¬শন লেয়ার বলে।

১৮৮।    ডায়োডের লোড লাইন কাকে বলে?

উত্তরঃ যে ফরোয়ার্ড বৈশিষ্ট রেখার উপর ডায়োডের কারেন্ট ও ভোল্টেজ এর সঠিক মান নির্নয় করা হয় তাকে ডায়োডের  লোড লাইন বলে।

১৮৯।   কুইসেন্ট বিন্দু কাকে বলে?

উত্তরঃ ডায়োডের স্ট্যাটিক বৈশিষ্ট রেখা ও লোড লাইনের ছেদ বিন্দুকেই অপারেটিং বা কুইসেন্ট বিন্দু  বলে।     এর মাধ্যমে আমরা নির্দিষ্ট লোড রেজিস্টেন্স যে কোন ডায়োডে কি পরিমাণ ভোল্টেজের জন্য কি পরিমাণ কারেন্ট প্রবাহ  হচ্ছে তা জানতে পরি।

১৯০।    ফিল্টার সার্কিট কাকে বলে ? উহা কত প্রকার ও কি কি?

উত্তরঃ যে সার্কিটের মাধ্যমে পালসেটিং ডিসি কে খাঁটি ডিসি তে পরিণত করা হয় তাকে ফিল্টার সার্কিট বলে।

ইহা পাঁচ প্রকারঃ ১) সান্ট ক্যাপাসিটর ফিল্টার  ২) সিরিজ ইন্ডাক্টর ফিল্টার  ৩) ইন্ডাক্টর ও ক্যাপাসিটর ফিল্টার
৪) রেজিস্টেন্স ও ক্যাপাসিটেন্স ফিল্টার          ৫)  ফিল্টার

১৯১।    রিপল ও পালসেটিং ডিসি কাকে বলে?

উত্তরঃ রিপল: রেক্টিফায়ারের আউটপুট একমুখী হলেও ইহা waveform আকৃতিতে থাকে অর্থাৎ এ আউটপুটে AC এবং DC উভয় ধরণের কম্পোনেন্ট বিদ্যমান থাকে।

পালসেটিং ডিসি: রেক্টিফায়ারের আউটপুটে যে ডিসি পাওয়া যায় তা সম্পূর্ণ খাঁটি ডিসি নয়, এতে কিছুটা এসির প্রবণতা বা     বৈশিষ্ট থাকে, এসি যুক্ত এ ডিসিকে পালসেটিং ডিসি বলে।

১৯২।    জিনার ডায়োড কি? ইহা কোন রিজিয়নে কাজ করে?

উত্তরঃ অত্যাধিক পরিমাণে ডোপিংকৃত সিলিকন দ্বারা তৈরি পি.এন. জাংশন ডায়োড, যা রিভার্স বায়াস প্রয়োগে শার্প ব্রেক     ডাউন ভোল্টেজ প্রদর্শন করে তাকে জিনার ডায়োড বলে। ইহা ব্রেক ডাউন রিজিয়নে কাজ করে।

১৯৩।    জিনার ডায়োডকে ভোল্টেজ স্ট্যাবিলাইজার হিসেবে ব্যবহার করা হয় কেন?

উত্তরঃ যদি কোন কারণে লোড কারেন্ট বাড়ে বা কমে তবে জিনার ডায়োড জিনার ক্রিয়ার মাধ্যমে তার কারেন্টকে সম     পরিমাণ কমিয়ে বা বাড়িয়ে স্থির মানে রাখতে পারে বলে একে ভোল্টেজ ষ্ট্যাবিলাইজার হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

১৯৪।    ডায়াক ও ট্রায়াক এর ব্যবহার লিখ।

উত্তরঃ ট্রায়াকের ব্যবহার:
১)    উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন ল্যাম্পের সুইচ হিসেবে ব্যবহৃত হয়।
২)    ইলেক্ট্রনিক সার্কিটের মাধ্যমে ট্রান্সফরমারের ট্যাপ চেঞ্জিং – এ ব্যবহৃত হয়।
৩)    রেডিও এর ইন্টাফারেন্স কমানোর জন্য ব্যবহৃত হয়।
৪)    মোটরের গতিবেগ নিয়ন্ত্রনে ব্যবহৃত হয়।
৫)    লাইট কন্ট্রোল সার্কিটে ব্যবহৃত হয়।

ডায়াকের ব্যবহার:
১)    ট্রায়াককে ট্রিগারিং করতে ব্যবহৃত হয়।
২)    আলো নিয়ন্ত্রণ সার্কিটে ব্যবহৃত হয়।
৩)    তাপ নিয়ন্ত্রনে ব্যবহৃত হয়।
৪)    ইউনিভার্সাল মটরের গতি নিয়ন্ত্রণ করণে ব্যবহৃত হয়।

২৮।    কয়েকটি বিশেষ ধরনের ডায়োডের নাম লিখ।
উত্তরঃ জিনার ডায়োড, টানেল ডায়োড এবং লাইট ইমিটিং ডায়োড।

১৯৫।    ভ্যারাক্টর ডায়োড কি? ফটো ডায়োডের সেনসিটিভিটি লিখ।

উত্তরঃ ভ্যারাক্টর ডায়োড: পরিমিত ভেজাল মিশ্রিত পি-টাইপ ও এন-টাইপ সেমিকন্ডাক্টর দ্বারা তৈরী রিভার্স বায়াসে     পরিচালিত, যার জাংশন ক্যাপাসিট্যান্স বায়াস পরিবর্তনের সাথে পরিবর্তিত হয় তাকে ভ্যারাক্টর ডায়োড বলে।

ফটো ডায়োডের সেনসিটিভিটি: আউটপুট কারেন্ট এর সাথে ইনসিডেন্ট লাইট এর অনুপাতকে ফটো ডায়োডের     সেনসিটিভিটি বলা হয়। আউটপুট কারেন্ট ইনসিডেন্ট লাইটের সাথে সুষমভাবে পরিবর্তিত হয়।

১৯৬।    সোলার সেল এর অপর নাম কি?

উত্তরঃ ফটো ভোল্টেইক সেল এবং এনার্জি কনভার্টার।

১৯৭।    রেকটিফিকেশন কেন করা হয়?

উত্তরঃ এসিকে বা দ্বিমুখী কারেন্টকে একমুখী কারেন্টে রূপান্তর বা রেকটিফাই করার জন্য রেকটিফিকেশন করা হয়।

১৯৮।    SCR কে কত ভাবে ON করা যায়?

উত্তরঃ SCR কে পাঁচ ভাবে ON করা যায়, যথা:
১)    গেইট ট্রিগারিং পদ্ধতি।
২)    থার্মাল ট্রিগারিং পদ্ধতি।
৩)    রেডিয়েশন ট্রিগারিং পদ্ধতি।
৪)    ভোল্টেজ ট্রিগারিং পদ্ধতি।
৫)      ট্রিগারিং পদ্ধতি।

ইলেকট্রিক্যাল পড়ুয়াদের জন্য কিছু অসাধারণ প্রশ্ন ও উত্তর


১। প্রঃ একটি চোক কয়েলের সহিত সিরিজে বাতি লাগানো হয়েছে, বাতি উজ্জ্বল ভাবে জলে, বাতি ডিম জ্বলে, বাতি জ্বলে না কি হতে পারে ?

উঃ চোক কয়েল শর্ট, চোক কয়েল কাটা।

২। প্রঃ টিউব লাইট কত ফুট লম্বা কত ওয়াটের হয় ?
উ : ৪’ফুট ৪০ ওয়াট এবং ২’ফুট ২০ ওয়াট সাধারনত।

৩। প্রঃ স্টার্টার ছারা টিউব লাইট জ্বালানো যায় কি ?
উঃ হাঁ যায়,পুশ বাটন সুইচ ব্যবহার করে অথবা তারে তারে সংযোগ করেই বিচ্ছিন্ন করে দিতে হয়।

৪। প্রঃ টিউব লাইট এক বার জ্বলে আবার পর মুহুর্ত্তেই নিভে এরূপ করতেছেদোষ কোথয় ?
উঃ স্টার্টার খারাপ কাজ করতেছে না।

৫। প্রঃ টিউব লাইটের দুই দিক জ্বলে থাকে পূর্ন ভাবে জ্বলে নাকারন কি ?
উঃ টিউবের ভিতর প্রয়োজনীয় গ্যাস নাই, অথবা প্রয়োজনীয় ভোল্টেজ পাচ্ছেনা, অথবা স্টার্টার সার্কিট ব্রেক করতেছে না অথবা চোক কয়েল দুর্বল হয়েপরেছে।

৬। সুইচ অফ করা সত্বেও হোল্ডারে সাপ্লাই পাত্তয়া যায়
উ :সুইচ লাইনে ব্যবহার না করে নিউট্রালে ব্যবহার করা হয়েছে।

দুই পিস সকেটের উভয় পিনে টেষ্টার জ্বলে কিন্তু বাতি জ্বলে না
উ: নিউট্রাল পাচ্ছে না।

৮। বাসার সকল লোড অফে থাকা সত্বেও মিটার ঘুরে
উ : ওয়্যারিং কোথাও আর্থ পেয়ে গিয়েছে।

৯। কলিং বেলের আওয়াজ খুব বেশী কি ভাবে কমাবে ?
উ : কম পাওয়ারের বাতি কলিং বেলের সাথে সিরেজে ব্যবহার করে।

১০। বাতির কাঁচ ভেঙ্গে গেলে ফিলামেন্ট হতে আর আলো বের হয় না কেন ?
উ: ফিলামেন্ট অকসিজেন পায় বিধায় ইহা জ্বলে যায়।

১১। সান্ট ফিল্ডের কয়েল চিকন তারের অধিক প্যাঁচের এবং সিরিজ ফিল্ডের কয়েল মোটা তারের কম প্যাঁচের থাকে কেন ?
উ: কারন সান্ট ফিল্ড পূর্ণ ভোল্টেজ পায় এবং সিরিজ ফিল্ড পূর্ণ লোড কারেন্ট পায়।

১২। একটি ডিসি জেনারেটর পূর্ণ স্পিডে ঘুরতেছে কিন্তু ভোল্টেজ উৎপন্ন হইতেছে নাকারন কি?
উ: (১) ফিল্ডে রেসিডিয়্যাল মেগনেটিজম নেই
(২) জেনারেটর উল্টা ঘুরতেছে
(৩) ফিল্ডের কয়েল ওপেন
(৪) আর্মেচার কয়েল ওপেন
(৫) কার্বন ব্্রাস কম্যুটেটরে সংযোগ নেই।

১৩। একটি ডিসি মোটর উল্টা ঘুরতেছে কি ভাবে ঠিক করেবে?
: হয় ইহার ফিল্ডের কানেকশন না হয় আর্মেচারের কানেকশন উল্টাইায়া দিতে হবে


১৪। স্টার্টার মোটরর্স্টাট দেয়া ছারা আর কি কি কাজ করে?
উ: ইহা ওভার লোডে এবং সাপ্লাই চলে গেলে মোটরকে সোর্স হতে আপনা আপনি বিচ্ছিন্ন করে।

১৫। স্টার্টারের হাতল শেষ প্রান্তে থাকে না
উ: হোলডিং কোয়েল কাজ করে না, খারাপ।

১৬। একটি ১০ হর্স পাওয়ারের মোটর দ্বারা ১০ হর্স পাওয়ারের জেনারেটর ঘুরিয়ে তাহা হতে ১০ হর্স পাওয়ার জেনারেশন পাওয়া যাবে কি?
উ: না, কারন কখনও ইনপুট আউটপুট সমান হয় না।

১৭। ডায়নামো কি ?
উ: ডিসি জেনারেটরকে ডায়নামো বলে।

১৮। আর্মেচার লোহার তৈরি কিন্তু কম্যুটেটর তামার তৈরির কারন কি ?
উ: কারন আর্মেচার ম্যাগনেটিক ফিল্ডে থাকে আর কম্যুটেটর ম্যাগনেটিক ফিল্ডের বাইরে থাকে।

১৯। কোন প্রকার ওয়্যাইন্ডিং কখন ব্যবহ্নত হয় ?
উ: ল্যাপ ওয়্যাইন্ডিং বেশী কারেন্টের জন্য এবং ওয়েভ ওয়্যাইন্ডিং বেশী ভোল্টেজের জন্য ব্যবহ্নত হয়।

২০। এক ফেজ মোটরের দোষ কি ?
উ: ইহা নিজে নিজে র্স্টাট নিতে পারে না।

২১। তিন ফেজ হতে এক ফেজ নেয়া যায় কি ?
উ: হ্যাঁ, যদি স্টার কানেকশন থাকে, তবে একটি লাইন ও নিউট্রালে এক ফেজ সাপ্লাই পাওয়া যায়।

২২। সিলিং ফ্যানের স্পিড কমে যাওয়ার কারন কি?
উ: পূর্ণ ভোল্টেজ পাচ্ছে না, না হয় ক্যাপাসিটর দুর্বল না হয় বল বিয়ারিং জ্যাম, না হয় কয়েলের ইন্সুলেশন দূর্বল।

২৩। পাখা পূর্ণ বেগে ঘুরা সত্বেও বাতাস পাওয়া যায় না কেন ?
উ: পাখার ব্লেডের বাক কম না হয় পাখার পিছনে প্রয়োজনীয় ফাকা জায়গা নেই।

২৪। পাখা উল্টা ঘুরে গেলে কি ভাবে ঠিক করবে ?
উ: ক্যাপাসিটরের কয়েল কানেকশন বদল করে, আথবা হয় রানিং না হয় র্স্টাটিং কয়েল বদল করে ঠিক করা যায়।

২৫। সিলিং ফ্যানের কোন দিকের বল বিয়ারিং সাধারনতঃ আগে খারাপ হয় ?
উ: উপরের বিয়ারিং খারাপ হয়।

২৬। সিলিং ফ্যান স্টার্ট দেওয়ার সংঙ্গে সংঙ্গে ইহার কানেকটিং রডে খট খট আওয়াজ হয়ে পরে আওয়াজ বন্ধ হয়ে যায় কারন কি ?
উ: ইহার রডে রাবার বুশ নেই।

২৭। কোন মোটর এসি এবং ডিসি উভয় সাপ্লাই চলে ?
উ: ইউনিভার্সাল মোটর (ডিসি সিরিজ মোটর) ।

২৮। তিন ফেজ মোটর উল্টা ঘুরতেছে, কিভাবে ঠিক করবে ?
উ: ইহার যে কোন দুই ফেজের জায়গা বদল করে দিতে হবে।

২৯। তিন ফেজ ১০ ঘোড়া ইন্ডাকশন মোটর ফুল লোডে কত কারেন্ট নিবে ?
উ: ১৫ এম্পিয়ার (প্রতি ঘোড়া ১.৫ এম্পিয়ার হিসাবে)।

৩০। তিন ফেজ মোটর স্টার্ট দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে স্টার্ট নেয় না গোঁ গোঁ শব্দ করে
উ: (১) তিন ফেজের – কোন এক ফেজে সাপ্লাই নেই
(২) মেইন সুইচে কোন ফেজের ফিউজ নেই
(৩) মোটরের তিন ফেজ ওয়াইন্ডিং এর কোন ফেজ কাটা, সাপ্লাই পাচ্ছে না
(৪) বল বিয়ারিং খুব জ্যাম
(৫) মোটরের স্যাপ্ট বাঁকা হয়ে গিয়েছে।

৩১। চলন্ত অবস্থায় তিন ফেজ মোটরেরএক ফেজ চলে গেলেকি হবে ?
উ : যদি লোড বিহীন অবস্থায় থাকে তবে মোটর ঘুরতে থাকবে কিন্তু গরম হয়েযাবে এবং ভিন্ন রকম আওয়াজ করবে। আর যদি লোডেড অবস্থায় থাকে , তবে মোটরসঙ্গে সঙ্গে বন্ধ হয়ে যাবে। যদি মেইন সুইচ অফ করে দেওয়া না হয়, তবে মোটরজ্বলে যাবে।

৩২। তিন ফেজ ২০ ঘোড়া মোটরের জন্য ক্রয়কৃত স্টার ডেল্টা স্টার্টার ১০ ঘোড়া তিন ফেজ মোটরের ব্যবহার করা যাবে কি ?
উ : হ্যাঁ, যাবে তবে কারেন্ট সেটিং এর মান কমিয়ে দিতে হবে।

৩৩। স্টার ডেল্টা স্টার্টারের ম্যাগনেটিক কয়েল কত ভোল্টেজ সাপ্লাই পায় ?
উ : সরাসরি ৪০০ ভোল্টসাপ্লাই পায়। (লাইন টু লাইন)

৩৪। একটি তিন ফেজ মোটরেরবডিতে টেস্ট বাতির এক মাথা সংযোগ করে অন্য মাথাসাপ্লাই এর সাথে সংযোগ করলে বাতি পূর্ণ ভাবে জ্বলে, ইহাতে কি বুঝা যায় ?
উ : মোটরের বডি ভাল ভাবে আর্থ করা হয়েছে।

৩৫। ইন্সুলেশন রেজিস্ট্যান্স কি মিটার দ্বারা মাপা হয় ?
উ : মেগার দ্বারা।

৩৬। আর্থ রেজিস্ট্যান্স কি ভাবে মাপা হয় ?
উ : মেগার আর্থ টেস্টারের সাহায্যে অথবামোটামুটি ভাবে একটি ১০০ওয়াটের বাতি আর্থ তার লাইনের মধ্যে সংযোগ করার পর যদি উজ্জ্বল ভাবে জ্বলে , তাহলে আর্থিং ভাল আছে।

৩৭। আর্থিং রেজিস্ট্যান্স কত হওয়া বান্ছনীয় ?
উ : বাসাবাড়ীর জন্য বেশীর পক্ষে ৫ ওহম এবং সাব স্টেশন ও পাওয়ার লাইনের জন্য বেশীর পক্ষে ১ ওহম হওয়া দরকার।

৩৮। কোন ট্রান্সফরমারের কেবল মাত্র একটি কয়েল থাকে ?
উ : অটো ট্রান্সফরমার।

৩৯। এক ফেজ ট্রান্সফরমার দ্বারা তিন ফেজ সাপ্লাই দেওয়া যায় কি ?
উ : হ্যাঁ যায়, ভি ভি বা ওপেন ডেল্টাকানেকশন করে।

৪০। ট্রান্সফরমার হামিং কি ?
উ : ট্রান্সফরমারের কোর এবং কয়েল কানেকশন যদি মজবুত ভাবে না করাথাকে, লুজ কানেকশন থাকে তাহলে ফুল লোড অবস্থায় কাঁপতে থাকে এবং এক প্রকারআওয়াজ হয়, তাহাই হামিং।

৪১। ট্রান্সফরমার গরম হওয়ার কারন কি ?
উ : (১) ওভার লোড হওয়ার জন্য হতে পারে
(২) ইন্সুলেশন দুর্বল হয়ে গেলে
(৩) কোথাও আর্থ হয়ে গেলে
(৪) ওভার ভোল্টেজ সাপ্লাইয়ের জন্য।

৪২। সিলিকা জেলের স্বাভাবিক রং কি রূপ থাকে ?
উ : ভাল অবস্থায় ধব ধবে সাদা, কিন্তু জলীয় বাস্প গ্রহন করলে কিছুটা বাদামী রং এর হয়ে যায়,আবার উত্তাপ দিলে ইহা সাদা হয়ে যায়।

৪৩। ট্রান্সফরমার তৈলের কাজ কি ?
উ : ইহার প্রধান কাজ দুটি- প্রথমত ইহা ইন্সুলেশনের কাজ করে, দ্বিতীয়ত ট্রান্সফরমারকে ঠান্ডা রাখতে সাহায্যে করে।

৪৪। ব্রিদার কি ?
উ : ইহা ট্রান্সফরমারের কনজার্ভেটরের সহিত লাগানো থাকে, যার মাধ্যমেবাহির হতে ঠান্ডা বাতাস ফিল্টার হয়ে ট্যাংকে ঢুকে এবং গরম বাতাস ট্যাংক হতেবাহির হয়ে যায়।

৪৫। বুকল্স রিলে কি ?
উ : ইহা এক প্রকার রিলে যাহা ট্রান্সফরমারের ট্যাংক ও কনজার্ভেটরেরসংযোগকারী পাইপের মধ্যে বসানো থাকে এবং ট্রান্সফরমারের ভিতরেত্রুটি দেখাদিলে সর্তক ঘন্টা বাজিয়ে থাকে।

৪৬। গার্ড ওয়্যার কি ?
উ : ট্রান্সমিশন লাইনের নীচে ব্যবহ্নত তার, যাহা আর্থের সহিত সংযোগ থাকে।

৪৭। ব্যাটারীর সলিউশন তৈরির সময় এসিড পানিতে না পানি এসিডে মিশাতে হয় ?
উ : এসিড পানিতে মিশাতে হয়।

৪৮। জাম্পার কি ?
উ : মেইন লাইন হতে বাসা বাড়ীতে সাপ্লাই লাইনের সংযোগ রক্ষাকারী তার।

৪৯। ডেম্পার ওয়্যাইন্ডিং কি ?
উ : সিনক্রোনাস মোটরকে র্স্টাট দেওয়ার জন্য ইহার পোলের উপর মোটাতারের ওয়্যাইন্ডিং দেওয়া হয় এবং ইহা অল্টারনেটরে ও ব্যবহ্নত হয় হান্টিং দোষকমানোর জন্য।

৫০। সি.বিকি ?
উ : সার্কিট ব্রেকার যাহা ক্রটি পূর্ণলাইনকে আপনা আপনি র্সোস হতে বিচ্ছিন্ন করে।

৫১। .সি কেডি.সি এবং ডি.সিকেএ.সিকি ভাবে করা হয় ?
উ :এ.সি কে ডি.সি করা হয় রেকটিফায়ার ও রোটারী কনভার্টার দ্বারা এবং ডি.সি কে এ.সি করা হয় ইনভার্টার দ্বারা।

ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ালেখা



১.পারমাণবিক সংখ্যা কাকে বলে?

উত্তরঃ কোন পদার্থের পরমাণুর নিউক্লিয়াসে অবস্হিত প্রোটনের মোট সংখ্যাকে পারমাণবিক সংখ্যা বলে।

২. বদ্ধ ও মুক্ত ইলেকট্রন কী?

উত্তরঃ কাচ,রাবার,মাইকা ইত্যাদি ইনসুলেটিং পদার্থের বহিস্হ কক্ষপথের ইলেকট্রন গুলো প্রবল আকর্ষণ শক্তি দ্বারা শক্তভাবে কেন্দ্রের সাথে বাধা থাকে এদেরকে বদ্ধ ইলেকট্রন বলে।

তামা,অ্যালুনিনিয়াম ইত্যাদি পদার্থের বহিস্হ কক্ষপথের ইলেকট্রন অত্যন্ত হালকাভাবে কেন্দ্রের সাতে আবদ্ধ থাকে এদেরকে মুক্ত ইলেকট্রন বলে।

৩. কুলম্ব কী?

উত্তরঃ কোনো বৈদ্যুতিক সার্কিটের মধ্য দিয়ে এক সেকেন্ডে যতগুলো ইলেকট্রন প্রবাহিত হয় তাকে S.I এককে এক কুলম্ব বলে।
১ কুলম্ব= ৬.২৫*১০^১৮ টি ইলেকট্রন

৪. বিদ্যুৎ প্রবাহের ফলে কি কি প্রতিক্রিয়া দেখা যায়?

উত্তরঃ ক.তাপীয় ক্রিয়া
খ. চৌম্বকীয় ক্রিয়া
গ. রাসায়নিক ক্রিয়া
ঘ. শারীরবৃত্তীয় ক্রিয়া

৫. ভ্যালেন্স ইলেকট্রন কী?

উত্তরঃ পরমাণুর বহিস্হ কক্ষপথের ইলেকট্রন সংখ্যাকে ভ্যালেন্স ইলেকট্রন বলে।

৬. AC ও DC এর মধ্যে মূল পার্থক্য কি ?
উত্তরঃ Ac হল দ্বিমুখী প্রবাহ আর Dc হল এক মুখি প্রবাহ
AC হচ্ছে বিদ্যুতের দ্বিমুখী প্রবাহ যা আমরা বাড়ী বা ইন্ড্রাস্ট্রিতে পাই এবং সরবরাহ করা হয় পাওয়ার ইউটিলিটি গ্রিড থেকে। DC হচ্ছে বিদ্যুতের একমুখী প্রবাহ যা আমরা পাই ব্যাটারি থেকে।
AC= Alternating Current
DC= Direct Current
AC হল পরিবর্তনশীল বিদ্যুৎ প্রবাহ।
DC হল অপরিবর্তনশীল বিদ্যুৎ প্রবাহ।

AC কারেন্ট একটি দিকবর্তী প্রবাহ । যা প্রতি সেকেন্ডে ৫০ থেকে ৬০ বার দিক পরিবর্তন করে থাকে । অপর দিকে DC হচ্ছ অপ্রত্যাবর্তী প্রবাহ । যা সময়ের সাথে দিক পরিবর্তন করে না ।

৭. ফ্যান আস্তে অথবা জোরে যেভাবে ছাড়া হোক বিদ্যুৎ কি একই খরচ হয়?
উত্তরঃ আমরা সাধারণত দুই প্রকারের ফ্যান রেগুলেটর ব্যবহার করে থাকি। (ক) ইলেকট্রিক্যাল রেগুলেটর (খ) ইলেকট্রনিক রেগুলেটর। ইলেকট্রিক্যাল রেগুলেটর তৈরি হয় ট্যাপিং যুক্ত ইন্ডাকটরের দ্বারা। বৈদ্যুতিক ফ্যান চলার সময় এই রেগুলেটর কমিয়ে দিলে ফ্যানের রোটেশন কমে কিন্তু রেগুলেটর উত্তপ্ত হয়। এই অপ্রয়োজনীয় উত্তাপের কারনে বৈদ্যুতিক পাওয়ার খরচ হয়। ফলে ইলেকট্রিক্যাল রেগুলেটর ব্যবহার করলে ফ্যানের গতি কম-বেশির সাথে রেগুলেটর লস যথাক্রমে বেশি ও কম হয় ফলে বৈদ্যুতিক পাখার গতি যাই হোক, বিদ্যুৎ খরচ প্রায় একই হয়।
অন্যদিকে ইলেকট্রনিক রেগুলেটর তৈরি হয় থাইরিস্টর জাতীয় ইলেকট্রনিক সুইচিং ডিভাইস দিয়ে। এতে অপ্রয়োজনীয় উত্তাপের পরিমাণ অত্যন্ত নগন্য থাকায় রেগুলেটর লস হয় না বললেই চলে। ফলে বৈদ্যুতিক পাখার গতি কমালে বিদ্যুৎ খরচ কমে এবং পাখার গতি বাড়ালে বিদ্যুৎ খরচ বাড়ে। তাই ইলেকট্রনিক রেগুলেটর ব্যবহার করলে ফ্যানের গতি কম হলে বিদ্যুৎ খরচও কম হয় ।
ভোল্টামিটার এবং অ্যামমিটারকে বর্তনীতে কিভাবে যুক্ত করা হয় ?
তড়িৎ বর্তনীর যে দুটি বিন্দুর বিভব প্রভেদ মাপতে হবে সেই দুটি বিন্দুর সঙ্গে ভোল্টামিটারকে সমান্তরাল সমবায়ে যুক্ত করা হয় । আবার কোনো তড়িৎ বর্তনীর প্রবাহমাত্রা পরিমাপ করতে অ্যামমিটারকে তড়িৎবর্তনীতে শ্রেণি সমবায়ে যুক্ত করা হয় ।
আমিটারকে বর্তনীর সাথে সিরিজে এবং ভোল্টমিটারকে প্যারালালে সংযুক্ত করতে হয়।

৮. ট্রান্সডিউসার ও সেন্সরের মধ্যে পার্থক্য কি? 

উত্তরঃ Transducer – ইহার Output সাধারনত Analog হয়। ইহা দ্বারা সাধারনত কোন কিছুর চাপ বা Pressure নির্নয় করা হয়। ইহার Output সাধারনত – 0 – 10V, 0 – 20mah হয়।
গঠন : ইহার ভিতরে Coil যুক্ত ডায়াফ্রাম থাকে একটি গোলাকার Iron বা Magnet দন্ডের চারপাশে মিলে, অর্থাৎ গোলাকার দন্ডের মধ্যে।
চাপ বা Pressure এর মাধ্যমে উক্ত ডায়াফ্রাম Core এর মধ্যে Up – Down করে Coil এর মধ্যে দিয়ে বিদ্যুৎ প্রবাহের তারতম্য ঘটায়। ঐ বিদ্যুৎ প্রবাহের তারতম্য Calculation করে Output নির্ধারণ করা হয়।
আর সাধারন Sensor দ্বারা Digital Output পাওয়া যায়।
আশা করি বুঝতে পেরেছেন।
যে সকল ডিভাইস এক প্রকার শক্তিকে আরেক প্রকার শক্তিতে রুপান্তর করে তাহাই ট্রান্সডিউসার।
আর ট্রাসডিউসারকে যখন বিশেষ উদ্দেশ্যে তৈরি কোন যন্ত্রের সহায়ক হিসেবে ব্যবহার করা হয় তখ তাকে ঐ যন্ত্রের সেন্সর বলা হয়।

৯. এ্যামপিয়ার টার্ন কি?
উত্তরঃ ম্যাগনেটিক সার্কিটের তারের পেঁচ ও প্রবাহিত কারেন্টের গুণফলকে এ্যামপিয়ার টার্ন বলে। এটি ম্যাগনেটো মোটিভ ফোর্স বা এম.এম.এফ. এর একক।
এ্যামপিয়ার টার্ন AT, কারেন্ট I এবং তারের পেঁচ সংখ্যা N হলে,
AT = IN

১০. রিল্যাকট্যান্স কি?
উত্তরঃ ম্যাগনেটিক ফ্লাক্স পথের বাধাকে রিল্যাকট্যান্স বলে।
এটি ইলেকট্রিক সার্কিটের রেজিস্ট্যান্সের মত। এর প্রতীক R এবং একক এ্যামপিয়ার টার্ন/ওয়েবার।
দৈর্ঘ্য L, এ্যাবসলিউট পারমিয়্যাবিলিটি µ, ভ্যাকুয়ামে এ্যাবসলিউট পারমিয়্যাবিলিটি µ০ ক্ষেত্রফল A হলে,
R = L/µ0µA

১১. ইলেকট্রো স্ট্যাটিক ফিল্ড কি?
উত্তরঃ যে স্থানে একটি একক চার্জ যে বল অনুভব করে তাকে ইলেকট্রো স্ট্যাটিক ফিল্ড বলে।

১২. বৈদ্যুতিক বল রেখার বৈশিষ্ট্য কি?
উত্তরঃ ১. বৈদ্যুতিক বল রেখা পজেটিভ চার্জ হতে বের হয়ে নেগেটিভ চার্জে শেষ হয়।
২. বল রেখাগুলো খোলা ও বক্র।
৩. বল রেখাগুলো পরস্পরকে কখনও ছেদ করে না।
৪. বল রেখাগুলো দৈর্ঘ্য বরাবর সংকুচিত হয়।
৫. বল রেখাগুলো পরস্পরের উপর পার্শ্ব চাপ দেয়।

১৩. সাইকেল কি?
উত্তরঃ অলটারনেটিং কারেন্ট কোন একদিকে প্রবাহিত হয়ে শূন্য হতে সর্বোচ্চ অবস্থানে, সর্বোচ্চ অবস্থান হতে আবার শূন্য অবস্থানে এবং বিপরীতক্রমে শূন্য হতে সর্বোচ্চ অবস্থানে, সর্বোচ্চ অবস্থান হতে আবার শূন্য অবস্থানে ফিরে আসে তাকে সাইকেল বলে।

১৪. ফ্রিকোয়েন্সী কি?
উত্তরঃ কোন পরিবর্তনশীল রাশির প্রতি সেকেন্ডে যতগুলি সাইকেল সস্পন্ন হয় তাকে ফ্রিকোয়েন্সী বলে।
একে f দ্বারা প্রকাশ করা হয়। টাইম পিরিয়ড T হলে, f = 1/T

১৫. পিরিয়ড কি?
উত্তরঃ কোন পরিবর্তনশীল রাশির এক সাইকেল সম্পন্ন হতে যে সময়ের প্রয়োজন তাকে পিরিয়ড বলে।
একে T দ্বারা প্রকাশ করা হয়। ফ্রিকোয়েন্সী f হলে,  T = 1/f

১৬. ফেজ কি?
উত্তরঃ পরিবর্তনশীল রাশির কোন নির্দিষ্ট সময়ে এর কৌণিক অবস্থানকে ফেজ বলে।

১৭. ফেজ অ্যাঙ্গেল কি?
উত্তরঃ এ.সি. সার্কিটে ভোল্টেজ এবং কারেন্টের মধ্যবর্তী কোণকে ফেজ অ্যাঙ্গেল বলে।

১৮. অলটারনেশন কি?
উত্তরঃ পরিবর্তনশীল রাশির অর্ধ সাইকেলকে অলটারনেশন বলে।

১৯. ফর্ম ফ্যাক্টর কি?
উত্তরঃ কোন সাইন ওয়েভের আর.এম.এস. এবং গড় মানের অনুপাতকে ফর্ম ফ্যাক্টর বলে।
একে Kf দ্বারা প্রকাশ করা হয়।     Kf = আর.এম.এস./ গড় মান

২০. পিক ফ্যাক্টর কি?
উত্তরঃ কোন ওয়েভের সর্বোচ্চ মান ও আর.এম.এস. মানের অনুপাতকে ক্রেস্ট ফ্যাক্টর বা পিক ফ্যাক্টর বা এ্যামপ্লিচুড ফ্যাক্টর বলে।   একে Ka দ্বারা প্রকাশ করা হয়।      Ka = সর্বোচ্চ মান / আর.এম.এস. মান

২১. পাওয়ার ফ্যাক্টর কয় প্রকার?
উত্তরঃ পাওয়ার ফ্যাক্টর তিন প্রকারঃ
১. ল্যাগিং পাওয়ার ফ্যাক্টর (Lagging Power Factor).
২. লিডিং পাওয়ার ফ্যাক্টর (Leading Power Factor).
৩. ইউনিটি পাওয়ার ফ্যাক্টর (Unity Power Factor)

২২. পাওয়ার ফ্যাক্টর কি?
উত্তরঃ এ.সি. সার্কিটে কারেন্ট ও ভোল্টেজের মধ্যবর্তী কোণের কোসাইন মানকে পাওয়ার ফ্যাক্টর বলে।
অথবা
অ্যাকটিভ পাওয়ার ও আপাত পাওয়ারের অনুপাতকে পাওয়ার ফ্যাক্টর বলে।
কারেন্ট ও ভোল্টেজের মধ্যবর্তী কোণ ϴ হলে, পাওয়ার ফ্যাক্টর (pf) = Cosϴ

২৩. ল্যাগিং পাওয়ার ফ্যাক্টর কি?
উত্তরঃ এ.সি. সার্কিটে ক্যাপাসিটিভ লোডের চেয়ে ইন্ডাকটিভ লোড বেশী হলে, কারেন্ট ভোল্টেজের পরে অবস্থান করে, সার্কিটের এই অবস্থায় পাওয়ার ফ্যাক্টরকে ল্যাগিং পাওয়ার ফ্যাক্টর বলে।
এই সার্কিটকে ইন্ডাকটিভ সার্কিটও বলে।
মনে রাখার সহজ উপায়:    E L I
ই.এম.এফ.(E) ইন্ডাক্টর(L) কারেন্ট(I)
L তে ইন্ডাকটিভ সার্কিট, E তে ই.এম.এফ., I তে কারেন্ট।
ইন্ডাকটিভ সার্কিটে ভোল্টেজ আগে, কারেন্ট পরে।

২৪. লিডিং পাওয়ার ফ্যাক্টর কি?
উত্তরঃ এ.সি. সার্কিটে ইন্ডাকটিভ লোডের চেয়ে ক্যাপাসিটিভ লোড বেশী হলে, ভোল্টেজ কারেন্টের পরে অবস্থান করে, সার্কিটের এই অবস্থায় পাওয়ার ফ্যাক্টরকে লিডিং পাওয়ার ফ্যাক্টর বলে।
এই সার্কিটকে ক্যাপাসিটিভ সার্কিট বলে।
মনে রাখার সহজ উপায়:
I C E
কারেন্ট(I) ক্যাপাসিটর(C) ই.এম.এফ.(E)
C তে ক্যাপাসিটিভ সার্কিট, E তে ই.এম.এফ., I তে কারেন্ট।
ক্যাপাসিটিভ সার্কিটে কারেন্ট আগে, ভোল্টেজ পরে।

২৫. ইউনিটি পাওয়ার ফ্যাক্টর কি?
উত্তরঃ এ.সি. সার্কিটে ইন্ডাকটিভ লোড ও ক্যাপাসিটিভ লোড সমান হলে, ভোল্টেজ ও কারেন্ট একসাথে অবস্থান করে, সার্কিটের এই অবস্থায় পাওয়ার ফ্যাক্টরকে ইউনিটি পাওয়ার ফ্যাক্টর বলে।
এই সার্কিটকে রেজিস্টিভ সার্কিটও বলা হয়। ইউনিটি পাওয়ার ফ্যাক্টর সার্কিটের পাওয়ার ফ্যাক্টর 1 হয়।

২৬. ইলেকট্রিক ফ্লাক্স ডেনসিটি কি?
উত্তরঃ প্রতি একক ক্ষেত্রফলে যে পরিমাণ ইলেকট্রিক ফ্লাক্স অতিক্রম করে তাকে ইলেকট্রিক ফ্লাক্স ডেনসিটি বলে।
এর প্রতিক D এবং একক কুলম্ব/বর্গ মিটার।

২৭. ডাই ইলেকট্রিক পদার্থ কি?
উত্তরঃ ডাই ইলেকট্রিক শব্দের অর্থ অপরিবাহী।
যে সকল পদার্থ বিদ্যুৎ পরিবাহী নয়, মুক্ত ইলেকট্রন নেই এবং বৈদ্যুতিক শক্তিকে সঞ্চয় করে রাখতে পারে তাকে ডাই ইলেকট্রিক পদার্থ বলে।

২৮. ডাই ইলেকট্রিক কনস্ট্যান্ট কি?
উত্তরঃ একটি ক্যাপাসিটরের প্লেট সমূহের মধ্যবর্তী বৈদ্যুতিক বলরেখা গুলোকে কেন্দ্রীভূত করার ডাই ইলেকট্রিক পদার্থের সামর্থকে ডাই ইলেকট্রিক কনস্ট্যান্ট বলে।

২৯. এক ফ্যারাড কাকে বলে?
উত্তরঃ এক ভোল্ট বিভব পার্থক্যর কারণে যদি ডাই ইলেকট্রিকে এক কুলম্ব ইলেকট্রিক চার্জ সঞ্চিত হয়, তবে ঐ পরিমাণ ক্যাপাসিট্যান্সকে এক ফ্যারাড বলে।

৩০. ইলেকট্রলাইট কি?
উত্তরঃ সেলে রাসায়নিক বিক্রিয়ার জন্য যে তরল বা পেস্ট ব্যাবহার করা হয় তাকে ইলেকট্রলাইট বলে।
ইলেকট্রলাইট হিসেবে সালফিউরিক এসিড, নাইট্রিক এসিড, এ্যামোনিয়াম ক্লোরাইড, এ্যালুমিনিয়াম ক্লোরাইড ইত্যাদি ব্যাবহার করা হয়।
ড্রাই সেলে পেস্ট ইলেকট্রলাইট এবং লিকুইড সেলে তরল ইলেকট্রলাইট ব্যাবহার করা হয়।

৩০. প্রাইমারী সেল কি?
উত্তরঃ যে সেলের শক্তি শেষ হয়ে গেলে পুনরায় একে কর্মক্ষম করা যায় না তাকে প্রাইমারী সেল বলে।
অল্প পাওয়ারের প্রয়োজন এমন যায়গায় সাধারণত প্রাইমারী সেল ব্যাবহার করা হয়। যেমনঃ ঘড়ি, রিমোট কন্ট্রোল, খেলনা ইত্যাদি।

৩১. কারেন্ট কাকে বলে?

উত্তরঃ পরিবাহী পদার্থের মধ্যকার মুক্ত ইলেকট্রন সমূহ একটি নিদ্রিষ্ট দিকে প্রবাহিত হওয়ার হারকেই কারেন্ট বলে।

 ইহাকে I বা i দ্বারা প্রকাশ করা হয়, এর একক অ্যাম্পিয়ার (A বা Amp.) অথবা কুলম্ব/সেকেন্ড ।

৩২ ভোল্টেজ কাকে বলে?
উত্তরঃ পরিবাহী পদার্থের পরমাণুগুলির মুক্ত ইলেকট্রন সমূহকে স্থানচ্যুত করতে যে বল বা চাপের প্রয়োজন সেই বল বা
চাপকেই বিদ্যুৎ চালক বল বা ভোল্টেজ বলে। একে V দ্বারা প্রকাশ করা হয় এর একক Volts.

৩৩. রেজিষ্ট্যান্স কাকে বলে?
উত্তরঃ পরিবাহী পদার্থের মধ্য দিয়ে কারেন্ট প্রবাহিত হওয়ার সময় পরিবাহী পদার্থের যে বৈশিষ্ট্য বা ধর্মের কারণে উহা
বাধাগ্রস্ত হয় উক্ত বৈশিষ্ট্য বা ধর্মকেই রোধ বা রেজিষ্ট্যান্স বলে। এর প্রতীক R অথবা r, আর একক ওহম (Ω)।

৩৪. ট্রান্সফরমার
উত্তরঃ ট্রান্সফরমার একটি ইলেক্ট্রিক্যাল মেশিন যা পরিবর্তনশীল বিদ্যুৎকে (Alternating current) এক ভোল্টেজ থেকে
অন্য ভোল্টেজে রূপান্তরিত করে। ট্রান্সফরমার স্টেপ আপ অথবা স্টেপ ডাউন দুই ধরনের হয়ে থাকে এবং এটি
ম্যাগনেটিক ইন্ডাকশন (Magnetic induction) নীতি অনুসারে কাজ করে। ট্রান্সফরমারে কোন চলমান/ঘূর্ণায়মান অংশ থাকে না, এটি সম্পূর্ণ স্থির ডিভাইস। ট্রান্সফরমারে দুটি উইন্ডিং থাকে, প্রাইমারি এবং সেকেন্ডারি উইন্ডিং । প্রাইমারি ওয়াইন্ডিয়ে ভোল্টেজ প্রদান করলে ম্যাগনেটিক ফিল্ড তৈরি হয় এবং ম্যাগনেটিক ফ্লাক্স আয়রন কোরের মধ্য দিয়ে সেকেন্ডারি ওয়াইন্ডিয়ে যায় এবং সেখানে ম্যাগনেটিক ফিল্ড তৈরি হয়। যার ফলশ্রুতিতে সেকেন্ডারি কয়েলে ভোল্টেজ পাওয়া যায়। ট্রান্সফরমারের ভোল্টেজ পরিবর্তনের হার প্রাইমারি এবং সেকেন্ডারি কয়েলের প্যাঁচ
সংখ্যার হারের উপর নির্ভর করে। তবে মনে রাখবেন, ট্রান্সফরমার শুধু ভোল্টেজের পরিবর্তন ঘটায় কিন্তু পাওয়ার
ও ফ্রিকুয়েন্সি অপরিবর্তিত থাকে। পাওয়ার ঠিক থাকে তাই ভোল্টেজ পরিবর্তনের জন্য কারেন্টেরও পরিবর্তন হয়।

৩৫. ট্রান্সফরমেশন রেশিও
উত্তরঃ ট্রান্সফরমারের উভয় দিকের ইন্ডিউসড ভোল্টেজ এবং কারেন্ট ও কয়েলের প্যাচের সংখার সাথে একটি
নিদ্রিস্ট অনুপাত মেনে চলে, ইহাই ট্রান্সফরমেশন রেশিও বা টার্ন রেশিও। ইহাকে সাধারণত a দ্বারা প্রকাশ করা হয়,
অর্থাৎ a = Ep/Es = Np/Ns = Is/Ip

৩৬. ইন্সট্রুমেন্ট ট্রান্সফরমার
উত্তরঃ CT (Current Transformer) এটি সাধারণত কম রেঞ্জের মিটার দিয়ে সার্কিটের বেশি পরিমান কারেন্ট পরিমাপ করার জন্য ব্যবহার করা হয়। PT (Potential Transformer) এটি সাধারণত কম রেঞ্জের মিটার দিয়ে সার্কিটের বেশি পরিমান ভোল্টেজ পরিমাপ করার জন্য ব্যবহার করা হয়। CT ও PT এভাবে ব্যবহার করা হলে এগুলোকে ইন্সট্রুমেন্ট ট্রান্সফরমার বলে।

৩৭. সার্কিট ব্রেকার
উত্তরঃ সার্কিট ব্রেকার হলো একটি বৈদ্যুতিক সুইচিং ডিভাইস যা দ্বারা ইলেকট্রিক্যাল সার্কিটকে সাপ্লাই হতে সংযুক্ত ও বিচ্ছিন্ন করা হয়। তবে এটি ইলেকট্রিক্যাল সার্কিটে নিয়ন্ত্রণ ও রক্ষনযন্ত্র হিসাবে কাজ করে। ওভার লোড বা শর্ট সাকিট দেখা দিলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ঐ ইলেকট্রিকাল সার্কিটকে সরবরাহ থেকে বিচ্ছিন্ন করে দেয়। তবে সার্কিট ব্রেকার স্বয়ংক্রিয়ভাবে সার্কিটে সংযোগ করেনা ।

৩৮. আইসোলেটর
উত্তরঃ বৈদ্যুতিক সাবস্টেশনের বিভিন্ন যন্ত্রপাতি বিশেষ করে ট্রান্সফরমারকে নো-লোড অবস্থায় বা সামান্য লোড
অবস্থায় লাইন হতে বিচ্ছিন্ন করার জন্য আইসোলেটর ব্যবহার করা হয়। অর্থাৎ আইসোলেটর এক ধরনের সুইস, যা
অফলাইনে অপারেটিং করা হয়।

৩৯. সাব-স্টেশন কাকে বলে?
উত্তরঃ পাওয়ার সিস্টেম ব্যবস্থায় সাব-স্টেশন এমন এক কেন্দ্র যেখানে এমন সব সরঞ্জামাদির ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে বিভিন্ন
প্রকার বৈদ্যুতিক বৈশিষ্ট্য যেমন- ভোল্টেজ, এসি/ডিসি কনভার্সন, ফ্রিকুয়েন্সি, পাওয়ার ফ্যাক্টর ইত্যাদির পরিবর্তনে
সাহায্য করে, এ ধরনের কেন্দ্রকে সাব-স্টেশন বা বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র বলে।

৪০. পাওয়ার লাইন ক্যারিয়ার (PLC)
উত্তরঃ যে লাইনের মাধ্যমে পাওয়ার স্টেশন, সাব-স্টেশন, রিসিভিং স্টেশনে নিজস্ব জরুরী যোগাযোগ ব্যবস্থাপনা
টেলিফোনের মাধ্যমে সম্পন্ন করা হয় তাকে পাওয়ার লাইন ক্যারিয়ার (PLC) বলে।

৪১. Q-ফ্যাক্টর
উত্তরঃ AC সার্কিটে সিরিজ রেজোন্যান্সের সময় সার্কিটের L অথবা C এর আড়াআড়িতে ভোল্টেজ প্রয়োগকৃত ভোল্টেজের তুলনায় বহুগুণে বৃদ্ধি পায়। রেজোন্যান্সের কারনে সৃষ্ট এই ভোল্টেজ বেড়ে যাওয়াকে সিরিজ রেজোনেন্ট সার্কিটের Q-ফ্যাক্টর (Quality Factor) বলে।

৪২. পাওয়ার ফ্যাক্টর
উত্তরঃ পাওয়ার ফ্যাক্টরঃ পাওয়ার ফ্যাক্টর হল একটিভ পাওয়ার অর্থাৎ যে পাওয়ার আমরা ব্যবহার করতে পারি এবং এ্যপারেন্ট পাওয়ারের অনুপাত। ইহাকে cosθ দ্বারা প্রকাশ করা হয়, যার মান 0 হতে 1 পর্যন্ত।

৪৩. লোড ফ্যাক্টর
উত্তরঃ গড় লোড এবং সর্বোচ্চ চাহিদার অনুপাতকে লোড ফ্যাক্টর বলে। Load Factor = Average load/Max. Demand or Peak load. এর মান ১ এর নিচে হয়।

৪৪. প্লান্ট ফ্যাক্টর
উত্তরঃ কোন পাওয়ার প্লান্টের গড় লোড এবং নির্ধারিত রেটেড ক্যাপাসিটির অনুপাতকে প্লান্ট ফ্যাক্টর বলে।

৪৫.  একটি আধুনিক এ, সি পাওয়ার সিস্টেমের উপাদানগুলির নাম লিখ।

উত্তরঃ এসি ব্যবস্থায় ট্রান্সমিশন তিন ফেজে তিন তার এবং ডিস্ট্রিবিউশনের ক্ষেএে তিন ফেজ চার তার ব্যবস্থা সাধরণত ব্যবহৃত হয় । একটি আধুনিক এসি পাওয়ার সিস্টেমের উপাদান সমুহ সাধারণতঃ নিম্নরূপ হয়ে থাকেঃ-
ক] উৎপাদন কেন্দ্র ।
খ] স্টেপ আপ কেন্দ্র ।
গ] ট্রান্সমিশন লাইন।
ঘ] সুইচিং ষ্টেশন।
ঙ] স্টেপ ডাউন উপকেন্দ্র ।
চ] প্রাইমারী ডিষ্ট্রিবিউশন লাইন বা নেটওয়াক্।
ছ] সার্ভিস ট্রান্সফরমার বা বিতরণ ট্রান্সফরমার।
জ] সেকেন্ডারি ডিষ্ট্রিবিউশন লাইন।

৪৬. ফিডার কাকে বলে? ফিডার লাইনের বৈশিষ্ট্য কি কি?

উত্তরঃ বিভিন্ন জনবহুল এলাকা, শিল্পাঞ্চল বা আবাসিক এলাকায় বিদ্যুৎ বিতরণের জন্য উচ্চ ভোল্টেজ উপকেন্দ্র বা গ্রিড উপকেন্দ্র থেকে বিভিন্ন লোড সেন্টারে বিদ্যুৎ সরবরাহের নিমিত্তে যে বৈদ্যুতিক লাইন নির্মাণ করা হয় তাকে ফিডার বলে । অর্থাৎ উচ্চ ভোল্টেজ বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র হতে নিন্মচাপের বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রের মধ্যে সংযুক্ত লাইনের নামই ফিডার ।
ফিডার লাইনের বৈশিষ্ট্য সমুহ নিন্মরুপঃ
১। ফিডারে কোন ট্যাপিং থাকেনা ।
২। কারেন্ট ডেনসিটি সর্বত্র সমান থাকে ।
৩। সর্বত্র কারেন্ট ক্যাপাসিটরের উপর ভিত্তি করে ডিজাইন করা হয়।
৪। ভোল্টেজ ড্রপ তত গুরত্ত দেওয়া হয় না ।

৪৭. করোনা কি? করোনার ফলে কি কি ইফেক্ট এর সৃষ্টি হয়?

উত্তরঃ যখন ২টি কন্ডাকটর এর Spacing ব্যাসের তুলনায় বেশি অবস্থায় রেখে তাদের আড়াআড়ি AC Voltage প্রয়োগ করে ধিরে ধিরে বাড়ানো হয় তখন এমন একটি বিশেষ পর্যায় আশে যে পর্যায়ে কন্ডাকটর এর চার পাশে বাতাস ইলেক্ট্রোস্ট্যাটিক stress হয়ে আয়নিত হয় এবং বাতাসের ইন্সুলেশন ষ্ট্রেংথ ভেঙ্গে পড়ে । এই অবস্থায় কন্ডাকটর এর চার পাশে জিম জিম শব্দ সহকারে যে হালকা অনুজ্জল বেগুনি রশ্মি দেখা যায় এবং ওজন গ্যাসের সৃষ্টি হয় উহাই করোনা নামে পরিচিত ।
করোনার ইফেক্ট বা প্রভাবঃ
১। হিমিং বা জিম জিম শব্দ সৃষ্টি করে
২। কন্ডাক্টরের চার পাশে বেগুনি আভা দেখা যায়
৩। ওজন গ্যাসের সৃষ্টি
৪। হারমনিক্স কারেন্টের সৃষ্টি হয়
৫। পাওয়ার লস হয়।

৪৮. করোনার সুবিধা-অসুবিধা কি কি ?
উত্তরঃ সুবিধাঃ
১। সার্জ ভোল্টেজ এর ফলে সৃষ্ট ট্রানজিয়েন্ট ইফেক্টকে সীমিত রাখে বলে একে সুইস গিয়ারের Safety bulb হিসাবে ব্যাবহার হয় ।
২। করোনার কারনে পরিবাহিদ্বয়ের মাঝে ইলেক্ট্রোস্ট্যাটিক স্ট্রেস এর মান হ্রাস পায়, কারন এসময় পরিবাহীর চারপাশে বাতাস পরিবাহী হিসাবে কাজ করে ও পরিবাহীর virtual ব্যাস বৃদ্ধি পায় ।
অসুবিধাঃ
১। পাওয়ার লস হয়
২। ওজন গ্যাসের সৃষ্টি হয়
৩। পরিবাহী ক্ষয়প্রাপ্ত হয়
৪। হারমনিক্স এর সৃষ্টি হয়
৫। নিকটবর্তী কমিউনিকেশন লাইনে বিঘ্ন ঘটে
৬। দক্ষতা হ্রাস পায়।

৪৯. করোনা পাওয়ার লস কি? সমিকরনটি লিখ ।
উত্তরঃ করোনা সংগঠিত হওয়ার কারনে যে পাওয়ার লসের সৃষ্টি হয়, তাকে করোনা লস বলে । ইহাকে p দ্বারা প্রকাশ করা হয় ।

৫০. স্কিন ইফেক্ট কি?
উত্তরঃ এসি বিদ্যুৎ প্রবাহে কোন পরিবাহীর মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হওয়ার সময় সে পরিবাহীর ভিতরে প্রবেশ না করে পরিবাহীর উপরিভাগ দিয়ে প্রবাহিত হওয়ার চেষ্টা করে, এটাকে স্কিন ইফেক্ট বলে । স্কিন ইফেক্টের কারনে লাইনের রেজিষ্ট্যান্স বৃদ্ধি পায় ফলে লাইন লসও বৃদ্ধি পায় ।

৫১. ট্রান্সমিশন লাইনে স্কিন ইফেক্ট এর প্রভাব লিখ? কমানোর উপায় কি?
উত্তরঃ ট্রান্সমিশন লাইনে স্কিন ইফেক্টের কারনে লাইনের রেজিষ্ট্যান্স বৃদ্ধি পায় ফলে লাইন লসও বৃদ্ধি পায় ।
স্কিন ইফেক্ট কমানোর উপায়ঃ
১। কন্ডাক্টরের ব্যাসার্ধ কমিয়ে
২। ফাঁপা সিলিন্ডার আকারের পরিবাহী ব্যাবহার করে
৩। Stranded কন্ডাকটর ব্যবহার করে
৪। ব্যারেল আকৃতির ও Aluminium কন্ডাকটর ব্যবহার করে ।

৫২. প্রক্সিমিটি ইফেক্ট কাকে বলে? ইহার প্রভাব ও কমানোর উপায় লিখ ।
উত্তরঃ যখন একটি কারেন্ট পরিবাহী এর পাশে আরেকটি কারেন্ট পরিবাহী থাকে, তখন এর ফ্লাক্স পূর্বের কারেন্ট পরিবাহীতে সংশ্লিষ্ট হয় । এই ফ্লাক্সের ফলাফল উভয় কন্ডাক্টরের দূরবর্তী অর্ধাংশের চেয়ে নিকটবর্তী অর্ধাংশে বেশি দেখা যায় । যার ফলে কন্ডাকটর সমগ্র প্রস্থচ্ছেদ ব্যপিয়া অসম কারেন্ট বণ্টন হতে থাকে এবং স্কিন ইফেক্টের ন্যায় রেজিষ্ট্যান্স বৃদ্ধি পায় । এই ঘটনাকে প্রক্সিমিটি ইফেক্ট বলে ।
প্রভাবঃ
এই ইফেক্টের ফলে কন্ডাকটর সমগ্র প্রস্থচ্ছেদ ব্যপিয়া অসম কারেন্ট বণ্টন হতে থাকে এবং স্কিন ইফেক্টের ন্যায় রেজিষ্ট্যান্স বৃদ্ধি পায় ও সেলফ রিয়্যাকট্যান্সের মান হ্রাস পায় ।
কমানোর উপায়ঃ
১। ফ্রিকুয়েন্সি রেঞ্জ কমিয়ে
২। কন্ডাকটর এর স্পেসিং বৃদ্ধি করে
৩। Stranded কন্ডাকটর ব্যবহার করে।

৫৩. এডি কারেন্ট লস কাকে বলে?
উত্তরঃ হিসটেরেসিস লস ছাড়াও চৌম্বক উপাদানের মজ্জায় আবর্তমান বা এডি কারেন্টের কারনে কিছু অপচয় হয়, একে এডি কারেন্ট লস বলে।

ডিজিটাল সিস্টেম ব্যাবহারের কারন কি?

ডিজিটাল সিস্টেমের সুবিধা সমুহ হচ্ছেঃ
) এই সিস্টেমের অপারেশনাল ষ্টেজ দুটি অন ও অফ
) এই সিস্টেমের সার্কিট ছোট, সহজ ও হাল্কা।
) পাওয়ার লস কম হয়
) হাই একুরেসি বা উচ্চমান সঠিকটা।
) এই সিস্টেমের তথ্য সহজে সংরক্ষন করা যায়।
) ইহা উচ্চ গতি সম্পন্ন ও বিশ্বস্ততা বেশি।

নাম্বারিং সিস্টেম গুলো কি কি?

নাম্বারিং সিস্টেমগুলো প্রধানত চার প্রকারঃ
1. Binary Numbering System (ইহার বেস ২,যথা-0,1)

  1. Octal Numbering System (ইহারবেস৮,যথা-0,1,2,3,4,5,6,7)

  2. Decimal Numbering System (ইহারবেস১০,যথা- 0,1,2,3,4,5,6,7,8,9

4.Hexadecimal Numbering System (ইহার বেস১৬, যথা- 0,1,2,3,4,5,6,7,8,9,A,B,C,D,E,F)

 ছাড়াও আরও কতগুলি নাম্বারিং সিস্টেম আছে, যেমন
1) BCD (8421) code, 2) Excess-3 code, 3) Humming Code, 4) Gray code, 5) ASCII code

বাইনারি সিস্টেমে বিটনিবলবাইট বলতে কি বুঝ?

বিট– বাইনারি ডিজিট অর্থাৎ 0,1 এর প্রত্যেকটিকে বিটবলে।
নিবল– ৪টি বিট এর গ্রুপকে নিবল বলে।<
বাইট– ৮টি বিট এর গ্রুপকে বাইট বলে।

 

ইঞ্জিনিয়ারিং ছাত্রের জন্য প্রয়োজনীয় সূত্র ! 

ওহমের সূত্র (Ohm’s Law)

1826 সালে জার্মান বিজ্ঞানী ড: জর্জ সাইমন ওহম কারেন্ট, ভোল্টেজ এবং রেজিস্ট্যান্সের মধ্যে সম্পর্ক নির্ণয় করেন, এ সম্পর্কই ওহমের সূত্র নামে পরিচিত।

কোন পরিবাহীর মধ্য দিয়ে সুষম উষ্ণতায় প্রবাহিত কারেন্ট ঐ পরিবাহীর দুপ্রান্তের ভোল্টেজের  সমানুপাতিক।

অথবা

কোন পরিবাহির ভিতর দিয়ে স্থির তাপমাত্রায় প্রবাহিত কারেন্ট ঐ পরিবাহির দুপ্রান্তের বিভব পার্থক্যের  সমানপাতিক এবং রেজিস্ট্যান্সের বাস্তানুপাতিক।

ওহমের সূত্র মতে, কোন পরিবাহীর দুই প্রান্তের বিভব পার্থক্য V এবং প্রবাহিত কারেন্ট I হলে,

V α I

বা, V = IR         এখানে, R = পরিবাহীর রেজিস্ট্যান্স (সমানুপাতিক ধ্রুবক)

ওহমের সূত্রের সীমাবদ্ধতা:

ওহমের সূত্রকে যদিও ইলেকট্রিসিটির গুরু বলে মানা হয়, এর কিছু সীমাবদ্ধতা আছে

১. ওহমের সূত্র DC এর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য, AC এর ক্ষেত্রে নয়।
২. তাপমাত্রা পরিবর্তন হলে ওহমের সূত্র প্রযোজ্য নয়।
৩. তাপমাত্রা স্থির থাকলেও সিলিকন কার্বাইডের ক্ষেত্রে ওহমের সূত্র প্রযোজ্য নয়।
৪. জটিল সার্কিট সমূহ ওহমের সূত্রের সাহায্যে সমাধান করা যায় না।Engineering law

ফ্যারাডের ইলেকট্রোলাইসিস সূত্র (Farads Law of Electrolysis)

বিখ্যাত বিজ্ঞানী মাইকেল ফ্যারাডে ইলেকট্রোলাইসিসের দুটি সূত্র উদ্ভাবন করেন।

প্রথম সূত্র:

ইলেকট্রোলাইসিস প্রক্রিয়ায় ইলেকট্রোডের উপর জমা হওয়া পদার্থের পরিমাণ, দ্রবণ বা ইলেকট্রোলাইটের ভিতর দিয়ে প্রবাহিত বিদ্যুতের পরিমাণের সমানুপাতিক।

দ্বিতীয় সূত্র:

ইলেকট্রোলাইসিস প্রক্রিয়ায় ইলেকট্রোডের উপর জমা হওয়া পদার্থের পরিমাণ এদের তড়িৎ রাসায়নিক সমতুলের সমানুপাতিক।

চার্জের পরিমাণ q
প্রবাহিত কারেন্ট i
কারেন্ট প্রবাহের সময় t এবং
পদর্থের তড়িৎ রাসায়নিক সমতুল Z হলে,

প্রথম সূত্র অনুযায়ী m α q
দ্বিতীয় সূত্র অনুযায়ী m α Z

লেন্‌জের সূত্র(Lenz’s law)

লেনজ এর সুত্র একটি সহজ উপায় যার মাধ্যমে আমরা বুঝতে পারি কিভাবে তড়িৎ চুম্বকীয় বর্তনী নিউটনের ৩য় সুত্র এবং শক্তির সংরক্ষণ সুত্র মেনে চলে । লেনজ এর সুত্র হেনরিক লেনজ এর নামানুসারে করা হয়েছে।এতে বলা হয়

একটি প্রবর্তিত তড়িচ্চালক বল সব সময় তড়িৎকে বৃদ্ধি করে যার চুম্বকীয় ক্ষেত্র প্রকৃত চুম্বক প্রবাহের বিরোধিতা করে ।

লেনজ এর সুত্র ফারাডের সুত্রের আবেশ ঋণাত্মক চিহ্ন দেয়

\mathcal{E}=-\frac{\partial \Phi_\mathrm{B}}{\partial t}

এর থেকে বুঝা যায় যে আবেশিত তড়িচ্চালক বল (ℰ) এবং চুম্বকীয় প্রবাহ (∂ΦB) এর মধ্যে বিপরীত চিহ্ন আছে ।

থেভেনিন থিউরম (Thevenin Theorem)

ই.এম.এফ. এর একাধিক উৎস এবং রেজিস্ট্যান্স সমন্বয়ে গঠিত একটি জটিল নেটওয়ার্কের দুটি বিন্দুতে সংযুক্ত একটি লোড রেজিস্ট্যান্সের কারেন্ট একই হবে, যদি লোডটি ই.এম.এফ. এর একটি মাত্র স্থির উৎসের সাথে সংযুক্ত থাকে। যার ই.এম.এফ. লোডের প্যারালেলে অপেন সার্কিট ভোল্টেজের সমান এবং যার ইন্টারনাল রেজিস্ট্যান্স দুটি প্রান্ত হতে বিপরীত দিকের নেটওয়ার্কের রেজিস্ট্যান্টের সমান। ই.এম.এফ. এর উৎসগুলো এদের সমতুল্য ইন্টারনাল রেজিস্ট্যান্সে স্থলাভিষিক্ত হবে।

সুপার পজিশন থিউরম (Superposition Theorem)

কোন লিনিয়ার বাইলেটারাল নেটওয়ার্কে একটি বিন্দুতে প্রবাহিত কারেন্ট বা দুটি বিন্দুতে ই.এম.এফ. এর একাধিক উৎসের কারণে ঐ বিন্দু বা বিন্দুগুলোতে প্রবাহিত আলাদা আলাদা কারেন্ট সমুহের বা ই.এম.এফ. পার্থক্য সমুহের বীজগাণিতিক যোগফল সমান হবে যদি প্রতিটি উৎসকে আলাদা আলাদা ভাবে বিবেচনা করা হয় এবং অন্য উৎস গুলোর প্রতিটি সমমানের ইন্টারনাল রেজিস্ট্যান্সে রূপান্তর করা হয়।

কারশফের সূত্র (Kirchhoff’s Law)

কারশফের কারেন্ট সূত্র (Kirchhoff’s Current Law):

একটি সার্কিটের কোন বিন্দুতে মিলিত কারেন্ট সমুহের বীজগাণিতিক যোগফল সমান।

অথবা

একটি সার্কিটের কোন বিন্দুতে আগত কারেন্ট ও নির্গত কারেন্ট সমান।

কারশফের ভোল্টেজ সূত্র (Kirchhoff’s Voltage Law):

কোন বদ্ধ বৈদ্যুতিক নেটওয়ার্কের সকল ই.এম.এফ এবং সকল ভোল্টেজ ড্রপের বীজগাণিতিক যোগফল শূন্য।

কুলম্বের সূত্র (Coulomb’s Law)

প্রথম সূত্র:
একই ধরণের চার্জ পরস্পরকে বিকর্ষণ করে এবং বিপরীত ধর্মী চার্জ পরস্পরকে আকর্ষণ করে।

দ্বিতীয় সূত্র:
দুইটি বিন্দু চার্জের মধ্যে আকর্ষণ বা বিকর্ষণ বল চার্জ দুইটির পরিমাণের গুণফলের সমানুপাতিক এবং এদের মধ্যে দূরত্বের বর্গের ব্যস্তানুপাতিক।

দুটি বিন্দু চার্জের পরিমাণ যথাক্রমে Q1 ও Q2, এদের মধ্যকার দূরত্ব d হলে,

বল F α Q1Q2/d2

বা, F = k F α Q1Q2/d2                         এখানে, K = 9X109 [ধ্রুবক]

এ্যাম্‌পিয়ারস ল (Ampere’s Law)

ফ্রান্সের গণিত শাস্ত্রবিদ আদ্রেঁ ম্যারিয়ে এ্যাম্‌পিয়ার কারেন্টবাহী দুটি পরিবাহীর মধ্যকার বলের সূত্র আবিষ্কার করেন। তাঁর নাম অনুসারে এই সূত্রের নামকরণ করা হয়।

কারেন্টবাহী দুটি সমান্তরাল পরিবাহীর মধ্যে ক্রিয়াশীল বল পরিবাহী দুইটির দৈর্ঘ্য এবং এদের মধ্যদিয়ে প্রবাহীত কারেন্টের গুণফলের সমানুপাতিক এবং পরিবাহী দুইটির মধ্যকার দূরত্বের ব্যস্তানুপাতিক।

যদি ক্রিয়াশীল বল F, কারেন্ট I1 ও I2, পরিবাহী দুইটির দৈর্ঘ্য L, পরিবাহী দুইটির মধ্যকার দূরত্ব r হয়,

তবে, F α I1I2L/r

বা, F = 2X10-7I1I2L/r                       এখানে, 2X10-7= সমানুপাতিক ধ্রুবক

ফ্লেমিং এর লেফট হ্যান্ড রুল (Fleming’s Left Hand Rule)

বাম হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলি, তর্জনী এবং মধ্যমাকে পরস্পর সমকোণে রেখে বিস্তৃত করলে, তর্জনী চুম্বক বলরেখার দিক ও মধ্যমা কারেন্টের দিক নির্দেশ করলে, বৃদ্ধাঙ্গুলি পরিবাহী তারের ঘূর্ণন দিক নির্দেশ করবে।

এই সূত্রের সাহায্যে মোটরের ঘূর্ণন দিক বের করা যায়।

ম্যাক্সওয়েল কর্ক-স্ক্রু রুল (Maxwell Cork Screw Rule)

বৃটিশ পদার্থ বিজ্ঞানী জেমস ক্লার্ক ম্যাক্সওয়েল ১৮৭৩ সালে কর্ক-স্ক্রুর সাহায্যে চুম্বক বলরেখার দিক নির্ণয়ের সূত্র বের করেন।

পরিবাহীর যেদিকে কারেন্ট প্রবাহিত হয়, সে দিকে ডান হাতে কর্ক-স্ক্রুকে ঘুরালে বৃদ্ধাঙ্গুলি যেদিকে ঘুরে সেদিকে চুম্বক বলরেখার দিক নির্দেশ করবে।

এম্পিয়ারস সুইমিং রুল (Ampere’s Swimming Rule)

বিদ্যুৎ পরিবাহী তারের মধ্য দিয়ে প্রবাহীত কারেন্টের দিকে যদি কোনো ব্যাক্তি পরিবাহীর উপর এমন ভাবে সাঁতার দেয়, যাতে পরিবাহীর কাছে রাখা কম্পাস চুম্বকের দিকে তার মুখ থাকে, তবে ঐ ব্যাক্তির বাম হাত যেদিকে প্রসারিত হবে, কম্পাস চুম্বকের উত্তর মেরু সেদিকে বিক্ষেপ দেখাবে অর্থাৎ ঐদিকে চুম্বক বলরেখার অভিমুখ হবে।

রাইট হ্যান্ড রুল (Right Hand Rule)

কারেন্ট প্রবাহের দিকে বৃদ্ধাঙ্গুলি রেখে ডান হাত দিয়ে পরিবাহি তারকে মুষ্টি বদ্ধ করলে, তার বেষ্টনকারী আঙ্গুলগুলো তারের চতুপার্শ্বে বৃত্তাকার বল রেখার দিক নির্দেশ করবে।

জুলের সূত্র (Joules Law)

১৮৪১ সালে ইংরেজ বিজ্ঞানী ডঃ জেমস প্রেস্কট জুল তাপ সম্পর্কিত একটি সূত্র উদ্ভাবন করেন, যা জুলের সূত্র নামে পরিচিত হয়।

যদি তাপকে H, কারেন্টকে I, রেজিস্ট্যান্সকে R এবং সময় কে t দিয়ে প্রকাশ করা হয়, তবে গানিতিক ভাবে লেখা যায়ঃ
১. H α I2, যখন R এবং t ধ্রুব
২. H α R, যখন I এবং t ধ্রুব
৩. H α t, যখন I এবং R ধ্রুব

অতএব, H α I2Rt
বা           H=I2RT/J        এখনে, J = 4200 জুল/কিলো ক্যালোরি মেকানিক্যাল ইকুভেলেন্ট অফ হিট (সমানুপাতিক ধ্রুবক)

রেজিস্ট্যান্সের সূত্র (Resistance Law)

একটি নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় একটি পরিবাহীর রেজিস্ট্যান্স দৈর্ঘ্যের সমানুপাতিক, প্রস্থের বাস্তানুপাতিক এবং এর রেজিস্ট্যান্স পরিবাহি পদার্থের আপেক্ষিক রেজিস্ট্যান্সের উপর নির্ভর করে।

রেজিস্ট্যান্স R, প্রস্থচ্ছেদের ক্ষেত্রফল A এবং দৈর্ঘ্য L হলে,

R α L/A

বা, R = ρL/a      এখানে, ρ= স্পেসিফিক রেজিস্ট্যান্স (সমানুপাতিক ধ্রুবক)

 

 

ইলেকট্রিক্যাল ছাত্রদের জন্য কিছু সাধারণ প্রশ্ন ? ও উত্তর!

১। একটি আধুনিক এ, সি পাওয়ার সিস্টেমের উপাদানগুলির নাম লিখ

এসি ব্যবস্থায় ট্রান্সমিশন তিন ফেজে তিন তার এবং ডিস্ট্রিবিউশনের ক্ষেএে তিন ফেজ চার তার ব্যবস্থা সাধরণত ব্যবহৃত হয় । একটি আধুনিক এসি পাওয়ার সিস্টেমের উপাদান সমুহ সাধারণতঃ নিম্নরূপ হয়ে থাকেঃ-
ক] উৎপাদন কেন্দ্র ।
খ] স্টেপ আপ কেন্দ্র ।
গ] ট্রান্সমিশন লাইন।
ঘ] সুইচিং ষ্টেশন।
ঙ] স্টেপ ডাউন উপকেন্দ্র ।
চ] প্রাইমারী ডিষ্ট্রিবিউশন লাইন বা নেটওয়াক্।
ছ] সার্ভিস ট্রান্সফরমার বা বিতরণ ট্রান্সফরমার।
জ] সেকেন্ডারি ডিষ্ট্রিবিউশন লাইন।

Lightbulb-Custom-510x338Professional-Electrical07

ফিডার কাকে বলে? ফিডার লাইনের বৈশিষ্ট্য কি কি?

বিভিন্ন জনবহুল এলাকা, শিল্পাঞ্চল বা আবাসিক এলাকায় বিদ্যুৎ বিতরণের জন্য উচ্চ ভোল্টেজ উপকেন্দ্র বা গ্রিড উপকেন্দ্র থেকে বিভিন্ন লোড সেন্টারে বিদ্যুৎ সরবরাহের নিমিত্তে যে বৈদ্যুতিক লাইন নির্মাণ করা হয় তাকে ফিডার বলে । অর্থাৎ উচ্চ ভোল্টেজ বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র হতে নিন্মচাপের বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রের মধ্যে সংযুক্ত লাইনের নামই ফিডার ।
ফিডার লাইনের বৈশিষ্ট্য সমুহ নিন্মরুপঃ
১। ফিডারে কোন ট্যাপিং থাকেনা ।
২। কারেন্ট ডেনসিটি সর্বত্র সমান থাকে ।
৩। সর্বত্র কারেন্ট ক্যাপাসিটরের উপর ভিত্তি করে ডিজাইন করা হয় ।
৪। ভোল্টেজ ড্রপ তত গুরত্ত দেওয়া হয় না ।

করোনা কি? করোনার ফলে কি কি ইফেক্ট এর সৃষ্টি হয়?

যখন ২টি কন্ডাকটর এর Spacing ব্যাসের তুলনায় বেশি অবস্থায় রেখে তাদের আড়াআড়ি AC Voltage প্রয়োগ করে ধিরে ধিরে বাড়ানো হয় তখন এমন একটি বিশেষ পর্যায় আশে যে পর্যায়ে কন্ডাকটর এর চার পাশে বাতাস ইলেক্ট্রোস্ট্যাটিক stress হয়ে আয়নিত হয় এবং বাতাসের ইন্সুলেশন ষ্ট্রেংথ ভেঙ্গে পড়ে । এই অবস্থায় কন্ডাকটর এর চার পাশে জিম জিম শব্দ সহকারে যে হালকা অনুজ্জল বেগুনি রশ্মি দেখা যায় এবং ওজন গ্যাসের সৃষ্টি হয় উহাই করোনা নামে পরিচিত ।
করোনার ইফেক্ট বা প্রভাবঃ
১। হিমিং বা জিম জিম শব্দ সৃষ্টি করে
২। কন্ডাক্টরের চার পাশে বেগুনি আভা দেখা যায়
৩। ওজন গ্যাসের সৃষ্টি
৪। হারমনিক্স কারেন্টের সৃষ্টি হয়
৫। পাওয়ার লস হয়

করোনার সুবিধা-অসুবিধা কি কি ?

সুবিধাঃ
১। সার্জ ভোল্টেজ এর ফলে সৃষ্ট ট্রানজিয়েন্ট ইফেক্টকে সীমিত রাখে বলে একে সুইস গিয়ারের Safety bulb হিসাবে ব্যাবহার হয় ।
২। করোনার কারনে পরিবাহিদ্বয়ের মাঝে ইলেক্ট্রোস্ট্যাটিক স্ট্রেস এর মান হ্রাস পায়, কারন এসময় পরিবাহীর চারপাশে বাতাস পরিবাহী হিসাবে কাজ করে ও পরিবাহীর virtual ব্যাস বৃদ্ধি পায় ।
অসুবিধাঃ
১। পাওয়ার লস হয়
২। ওজন গ্যাসের সৃষ্টি হয়
৩। পরিবাহী ক্ষয়প্রাপ্ত হয়
৪। হারমনিক্স এর সৃষ্টি হয়
৫। নিকটবর্তী কমিউনিকেশন লাইনে বিঘ্ন ঘটে
৬। দক্ষতা হ্রাস পায়

করোনা পাওয়ার লস কি? সমিকরনটি লিখ ।

করোনা সংগঠিত হওয়ার কারনে যে পাওয়ার লসের সৃষ্টি হয়, তাকে করোনা লস বলে । ইহাকে p দ্বারা প্রকাশ করা হয় ।

স্কিন ইফেক্ট কি?

এসি বিদ্যুৎ প্রবাহে কোন পরিবাহীর মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হওয়ার সময় সে পরিবাহীর ভিতরে প্রবেশ না করে পরিবাহীর উপরিভাগ দিয়ে প্রবাহিত হওয়ার চেষ্টা করে, এটাকে স্কিন ইফেক্ট বলে । স্কিন ইফেক্টের কারনে লাইনের রেজিষ্ট্যান্স বৃদ্ধি পায় ফলে লাইন লসও বৃদ্ধি পায় ।

ট্রান্সমিশন লাইনে স্কিন ইফেক্ট এর প্রভাব লিখ? কমানোর উপায় কি?

ট্রান্সমিশন লাইনে স্কিন ইফেক্টের কারনে লাইনের রেজিষ্ট্যান্স বৃদ্ধি পায় ফলে লাইন লসও বৃদ্ধি পায় ।
স্কিন ইফেক্ট কমানোর উপায়ঃ
১। কন্ডাক্টরের ব্যাসার্ধ কমিয়ে
২। ফাঁপা সিলিন্ডার আকারের পরিবাহী ব্যাবহার করে
৩। Stranded কন্ডাকটর ব্যবহার করে
৪। ব্যারেল আকৃতির ও Aluminium কন্ডাকটর ব্যবহার করে ।

প্রক্সিমিটি ইফেক্ট কাকে বলে? ইহার প্রভাব ও কমানোর উপায় লিখ ।

যখন একটি কারেন্ট পরিবাহী এর পাশে আরেকটি কারেন্ট পরিবাহী থাকে, তখন এর ফ্লাক্স পূর্বের কারেন্ট পরিবাহীতে সংশ্লিষ্ট হয় । এই ফ্লাক্সের ফলাফল উভয় কন্ডাক্টরের দূরবর্তী অর্ধাংশের চেয়ে নিকটবর্তী অর্ধাংশে বেশি দেখা যায় । যার ফলে কন্ডাকটর সমগ্র প্রস্থচ্ছেদ ব্যপিয়া অসম কারেন্ট বণ্টন হতে থাকে এবং স্কিন ইফেক্টের ন্যায় রেজিষ্ট্যান্স বৃদ্ধি পায় । এই ঘটনাকে প্রক্সিমিটি ইফেক্ট বলে ।
প্রভাবঃ

এই ইফেক্টের ফলে কন্ডাকটর সমগ্র প্রস্থচ্ছেদ ব্যপিয়া অসম কারেন্ট বণ্টন হতে থাকে এবং স্কিন ইফেক্টের ন্যায় রেজিষ্ট্যান্স বৃদ্ধি পায় ও সেলফ রিয়্যাকট্যান্সের মান হ্রাস পায় ।
কমানোর উপায়ঃ
১। ফ্রিকুয়েন্সি রেঞ্জ কমিয়ে
২। কন্ডাকটর এর স্পেসিং বৃদ্ধি করে
৩। Stranded কন্ডাকটর ব্যবহার করে

এডি কারেন্ট লস কাকে বলে?

হিসটেরেসিস লস ছাড়াও চৌম্বক উপাদানের মজ্জায় আবর্তমান বা এডি কারেন্টের কারনে কিছু অপচয় হয়, একে এডি কারেন্ট লস বলে।

বিদ্যুচৌম্বক আবেশ (Eletromagnetic Induction) কাকে বলে?

যখন কোন পরিবাহী বা কন্ডাকটরের সাথে সংশ্লিষ্ট চৌম্বক ফ্লাক্স পরিবর্তিত হয়, তখন পরিবাহীটির ভিতরে একটি ই. এম. এফ আবিষ্ট হয়। যদি পরিবাহীটি একটি লুপ বা সার্কিট গঠন করে, তবে এতে কারেন্ট প্রবাহিত হবে। এই প্রক্রিয়াকেই বিদ্যুচৌম্বক আবেশ (Eletromagnetic Induction) বলে।

ফ্যারাডের সূত্র লিখ।

প্রথম সুত্রঃ একটি তার বা কয়েলে ই. এম. এফ আবিষ্ট হয় তখন, যখন উক্ত তার বা কয়েলের সাথে সংশ্লিষ্ট চৌম্বক ফ্লাক্স বা চৌম্বক বল রেখার পরিবর্তন ঘটে।
দ্বিতীয় সুত্রঃ আবেশিত বিদ্যুচ্চালক বল এর পরিমান চৌম্বক বল রেখার পরিবর্তনের হারের সাথে সরাসরি সমানুপাতিক।
উপরোক্ত সূত্র দুটি একত্রে এভাবে লেখা যায়ঃ একটি পরিবাহী এবং একটি চৌম্বক ক্ষেত্রে আপেক্ষিক গতি যখন এরুপভাবে বিদ্যমান থাকে যে, পরিবাহীটি চৌম্বক ক্ষেত্রটিকে কর্তন করে, তখন পরিবাহিতে আবেশিত একটি বিদ্যুচ্চালক বল সংঘটিত কর্তনের হারের সাথে সমানুপাতিক।

লেনজের সূত্র লিখ।

আবেশিত বিদ্যুচ্চালক বলের কারনে পরিবাহী তারে প্রবাহিত আবেশিত কারেন্ট পরিবাহী তারের চারপাশে একটি চৌম্বক ক্ষেত্র সৃষ্টি করে, যা দারা আবেশিত কারেন্টের উৎপত্তি, উহাকেই (অর্থাৎ পরিবর্তনশীল ফ্লাক্স) এ (সৃষ্ট চৌম্বক ক্ষেত্র) বাধা প্রদান করে ।

লেনজের সূত্র কোথায় ব্যবহার হয়?

যেখানে পরিবাহী স্থির এবং চৌম্বক ক্ষেত্র গতিতে থাকে সেখানে লেনজের সূত্র ব্যবহার হয়।

ফ্লেমিং এর রাইট হ্যান্ড রুল কি?

দক্ষিণ হস্তের বৃদ্ধাঙ্গুলি, তর্জনী ও মধ্যমাকে পরস্পর সমকোণে রেখে বিস্তৃত করলে যদি তর্জনী চৌম্বক বলরেখার অভিমুখ এবং বৃদ্ধাঙ্গুলি পরিবাহী তারের ঘূর্ণনের অভিমুখ নির্দেশ করে, তবে মধ্যমা পরিবাহিতে প্রবাহিত আবেশিত কারেন্টের অভিমুখ নির্দেশ করেবে। ইহাই ফ্লেমিং এর রাইট হ্যান্ড রুল।

ফ্লেমিং এর রাইট হ্যান্ড রুল কোথায় প্রযোজ্য হয়?

যেখানে চৌম্বক ক্ষেত্র স্থির এবং পরিবাহী গতিতে থাকে, সেখানে ফ্লেমিং এর রাইট হ্যান্ড রুল ব্যবহার করা হয়।

মিউচুয়াল ইনডাকট্যাঁন্স কাকে বলে?

যে বৈশিষ্ট্য বা ধর্মের কারনে পাশাপাশি দুটি কয়েলে একটির কারেন্টের পরিবর্তনের ফলে অন্যটিতে ভোল্টেজ আবিষ্ট হয় উক্ত ধর্ম বা বৈশিষ্ট্যকে মিউচুয়াল ইনডাকট্যাঁন্স বলে।

সেলফ ইনডাকট্যাঁন্স কাকে বলে?

এটা কয়েলের এমন একটি ধর্ম বা বৈশিষ্ট্য, যা কয়েলে প্রবাহিত কারেন্ট বা কয়েলের চারদিকের ফ্লাক্সের হ্রাস- বৃদ্ধিতে বাধা দান করে।

হিসটেরেসিস কাকে বলে?

চৌম্বক গুণাবলীর কিছুটা অংশ চৌম্বক পদার্থ কত্রিক নিজের মধ্যে রেখে দেয়ার প্রবনতাকেই হিসটেরেসিস বলে।

চৌম্বকী করন চক্র কাকে বলে?

একটি লোহাকে চুম্বকে পরিনত করা, আবার চুম্বকহীন করা এবং আবার চুম্বকে পরিনত করা, আবার চুম্বকহীন করা, এই প্রক্রিয়া অনবরত চলতেই থাকলে এই প্রক্রিয়াকেই চৌম্বকী করন চক্র (সাইকেল অব ম্যাগনেটাইজেশন) বলে।

ম্যাগনেটাইজেশন বা B-H কার্ভ কি?

X- এক্সিস কে ম্যাগনেটাইজিং ফোরস (H) এবং Y- এক্সিস কে ফ্লাক্স ডেনসিটি (B) হিসেবে ধরে যে কার্ভ আকা হয় তাকে ম্যাগনেটাইজেশন বা B-H কার্ভ বলে।

এডি কারেন্ট কি?

যখন একটি বৈদ্যুতিক চুম্বকের কয়েলের মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত কারেন্ট পরিবর্তিত হতে থাকে, তখন চৌম্বক ক্ষেত্রও পরিবর্তিত হতে থাকে। এই পরিবর্তনশীল ফ্লাক্স কয়েলের তারকে কর্তন করে, ফলে কয়েলে একটি ভোল্টেজের সৃষ্টি হয়। একই সময়ে এই ফ্লাক্স লৌহ দণ্ডকেও কর্তন করে। ফলে এই লৌহ দণ্ডেও ভোল্টেজের সৃষ্টি হয়। এই ভোল্টেজের কারনে লৌহ দণ্ডে একটি কারেন্ট আবর্তিত হতে থাকে, এই আবর্তিত কারেন্টকেই এডি কারেন্ট বলে।

এডি কারেন্ট লস কাকে বলে?

হিসটেরেসিস লস ছাড়াও চৌম্বক উপাদানের মজ্জায় আবর্তমান বা এডি কারেন্টের কারনে কিছু অপচয় হয়, একে এডি কারেন্ট লস বলে।

 

List of electrical and electronic measuring equipment

Below is the list of measuring instruments used in electrical and electronic work.

Name

Purpose

Ammeter (Ampermeter)

Measures current

Capacitance meter

Measures the capacitance of a component

Curve tracer

Applies swept signals to a device and allows display of the response

Cos Phi Meter

Measures the power factor

Distortionmeter

Measures the distortion added to a circuit

Electricity meter

Measures the amount of energy dissipated

ESR meter

Measures the equivalent series resistance of capacitors

Frequency counter

Measures the frequency of the current

Leakage tester

Measures leakage across the plates of a capacitor

LCR meter

Measures the inductance, capacitance and resistance of a component

Microwave power meter

Measures power at microwave frequencies

Multimeter

General purpose instrument measures voltage, current and resistance (and sometimes other quantities as well)

Network analyzer

Measures network parameters

Ohmmeter

Measures the resistance of a component

Oscilloscope

Displays waveform of a signal, allows measurement of frequency, timing, peak excursion, offset, …

Psophometer

Measures AF signal level and noise

Q meter

Measures Q factor of the RF circuits

Signal analyzer

Measures both the amplitude and the modulation of a RF signal

Signal generator

Generates signals for testing purposes

Spectrum analyser

Displays frequency spectrum

Sweep generator

Creates constant-amplitude variable frequency sine waves to test frequency response

Transistor tester

Tests transistors

Tube tester

Tests vacuum tubes (triode, tetrode etc.)

Wattmeter

Measures the power

Vectorscope

Displays the phase of the colors in color TV

Video signal generator

Generates video signal for testing purposes

Voltmeter

Measures the potential difference between two points in a circuit. (Includes: DVM and VTVM)

VU meter

Measures the level of AF signals in Volume units

প্রশ্নঃ লো ভোল্টেজে মোটর চালালে কি মোটর পুড়ে যাওয়ার সম্ভবনা আছে?

আমরা বাসা বাড়িতে ফ্যান বলতে বুঝি সিলিং ফ্যান টেবিল ফ্যান,ওয়াল ফ্যান ,স্ট্যান্ড ফ্যান ইত্যাদি।দেখতে আলাদা হলেও সবই আসলে একই জিনিস।

সবই সিঙ্গেল ফেজ ইন্ডাকশন মোটর।কোনো মোটরের ক্ষমতা নির্ভর করে মূলত ভোল্টেজ আর কারেন্টের উপর।একই শক্তি পাওয়ার জন্য যদি ভোল্টেজ কমান তা হতে তার সাথে কারেন্ট বাড়াতে হবে আবার যদি কারেন্ট কমাতে চান তা হলে ভোলেজ বাড়াতে হবে। কিন্তু প্রতিটা মোটরেরই সর্বোচ্চ ভোল্টেজ বা কারেন্ট লিমিট আছে তার বেশী দেওয়া হলে সেটি অবধারিত ভাবে খারাপ হবে।

বিভিন্ন কলকারখানা তে সাধারনত যে মোটরগুলি রিওয়াইন্ডিং এর দরকার হয় তাদের বেশীরভাগের কয়েল পুড়ে যাওয়ার কারন লো ভোল্টেজ।মনে করুন মেসিন একটা নির্দিষ্ট লোড নিয়ে কাজ করছে, হটাৎ করে ভোল্টজ লো হয়ে গেল এখন মোটর চাইবে তার শক্তি কন্সট্যান্ট রাখতে ফলে সাপ্লাই থেকে আরো বেশী কারেন্ট টানবে।

কোনো তারের ভিতর দিয়ে যখন বিদ্যুৎ প্রবাহ হয় তখন তার টি গরম হতে থাকে এই তাপ উৎপাদনের হার তারের ভিতর দিয়ে যাওয়া কারেন্টের বর্গের সমানুপাতিক। মানে কারেন্ট দ্বিগুন বাড়লে তাপ চার গুন বাড়বে।
ঠিক এই কারনে লো ভোল্টেজে লোড সহ মোটর বেশী কারেন্ট টানে ফলে মোটরের ওয়াইন্ডিং এর তার খুব গরম হয়ে যায় এবং একসময় পুড়ে যায়।

এই লো ভোল্টেজ থেকে আমরা মোটরকে বাচানোর জন্য আন্ডারভোল্টেজ রিলে ও সার্কিট ব্রেকার লাগানোর পরামর্শ দিই। কাষ্টমার রা সাধারনত বড় মোটর গুলির প্রোটেকশন এর জন্য আমাদের বলেন কিন্তু ছোট মোটরগুলিই খারাপ হয় বেশী।

এত গেল ইন্ডাস্ট্রিয়াল থ্রি ফেজ মোটরের কথা। এবার একটা মজাদার প্রশঙ্গে আসি। বলুন তো পাখা তে লোড কী? পাখার লোড কি সবসময় এক থাকে?

এক তো পাখার নিজের ব্লেডের ওজন কে তা প্রথমে তার স্থিতিজাড্য থেকে সরাতে হয় তাই ব্লেডের ওজন অবশ্যই একটা লোড লোড।

আর একটা লোড আছে তা হল ভিস্কাস ফ্রিকশান( viscous friction ) লোড। যারা ফিজিক্স নিয়ে পড়াশোনা করছেন তারা ভালো বুঝতে পারবেন।দুটি তলের মধ্যে ভিস্কাস ফ্রিকশন তাদের রিলেটিভ ভেলোসিটির উপর নির্ভর করে।এর অর্থ হল এই যদি একটি বাতাসের স্তর আর পাখার ব্লেড কে তল হিসাবে কল্পনা করি তা হলে ফ্যানের ব্লেডের স্পীড যত বাড়বে বাতাস ফ্যানের ব্লেড কে ঘুরতে তত বেশী বাধা দেবে।এই বাধা টপকনোর জন্য ফ্যানের মোটর কে আরো বেশী শক্তি প্রদান করতে হবে। যারা ফ্যানের মোটর ডিজাইন করে তারা স্টেডি স্টেট পাওয়ার এর কথা বিবেচনা করেই ডিজাইন করে।

ভোল্টেজ কম হলে মোটর স্লো হয়ে যায় ফলে স্লিপ বেড়ে যায় ।যার ফলে রোটর কারেন্টের ফ্রীকোয়েন্সী বেড়ে যায় ফলে রোটরের পাওয়ার লস বেড়ে যায় ও রোটর গরম হতে শুরু করে। বেশীর ভাগ মোটরের রোটর সলিড স্কুইরেল কেজ টাইপের হওয়ার জন্য পোড়ে না কিন্তু স্টেটর ওয়াইন্ডীং পুড়ে যায়।

ভোল্টেজ যদি খুব কম না হয় (১৫০- ১৮০ভোল্ট) তা হলে চালাতে পারেন তেমন কোনো সমস্যা হবে না। কিন্তু ভোল্টেজ এর কম হলে চালাবেন না।

কিন্তু মনে করুন আপনি রাতে ফ্যান চালিয়ে ঘুমিয়ে গেছেন আর ভোল্টেজ খুব লো হয়ে গেছে তা হলে কি করবেন?

আমাদের কাছে এমন ডিভাইস আছে যা ভোল্টেজ লো হলেই অটোমেটিক ফ্যান কে ডিস্কানেক্ট করে দেবে। তা আর বাড়িতে লাগিয়ে কাজ নেই খাজনার থেকে বাজনা বেশী হয়ে যাবে।এগুলো ইন্ডাস্ট্রিয়াল পারপাশে ইউজ হয়।

 

No automatic alt text available.

প্রশ্নঃ 
১)ইনভার্টার কোথায় ব্যাবহার করবো? কেন করবো?
২) স্টার-ডেল্টা কেন ব্যবহার করবো? 
৩) সফট স্টার্টার কেন ব্যবহার করবো???

১। ইনভার্টার কোথায় ব্যাবহার করবো? কেন করবো?

ইনভার্টার বা ভিএফডি বা ড্রাইভ মূলত ব্যাবহার করা হয় লোডের স্পিড বা গতিকে কন্ট্রোল করার জন্য।

ধরুন আপনার একটি কনভেয়ার বেল্ট আছে। যাকে আপনার মাঝে মাঝে 10m/minute এ ঘুরাতে হবে।আবার মাঝে মাঝে 5 m/minute ঘুরাতে হবে।

তাহলে আপনি এই বেল্টের স্পিড কিভাবে কন্ট্রোল করবেন? অবশ্যই ঘুরানোর জন্য যে মোটর আছে তার স্পিড কন্ট্রোল করবেন।আর এর স্পিড কন্ট্রোল করার জন্য আপনাকে ইনভার্টার / ভিএফডি / ড্রাইভ ব্যাবহার করতে হবে।

ইনভার্টার / ভিএফডি/ ড্রাইভ দিয়ে মোটরের লোড নেওয়ার ক্ষমতাকে কমবেশী করা যায়।ধরুন আপনার মোটরটি সর্বোচ্চ Weight 10kg উঠাতে পারবে।এখন আপনার প্রয়োজন ৫ কেজির বেশী হলে আপনার ওই মোটর ওভার লোড হয়ে বন্ধ হয়ে যাবে।

এটা কিভাবে করবেন? Its simple, Inverter থেকে Program করে টর্ক ক্যাপাসিটি কমিয়ে দিন। ইনভার্টার ব্যাবহার করার ফলে আপনি আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী আপনার মোটরকে বা লোডকে যখন খুশি বা যেভাবে খুশি নিয়ন্ত্রন করতে পারছেন।যার ফলে আপনার বিদ্যুৎ ও সাশ্রয় হচ্ছে।

২) স্টার-ডেল্টা কেন ব্যবহার করবো?

স্টার টু ডেল্টাঃ ধরুন আপনার কাছে এমন একটি বড় মোটর আছে, যার স্টার্টিং টর্ক অনেক বেশী লাগে। যার ফলে স্টার্টি এর সময় অনেক Amp এর প্রয়োজন হয়।

এমতাবস্থায় এ মোটরটি রান হওয়ার সময় আপনার ওভারঅল পাওয়ার সাপ্লাই এর উপর প্রভাব ফেলবে।

ভেবে দেখুন হঠাৎ করে যদি আপনার পাওয়ার কনজামশন অনেক বেড়ে গিয়ে আবার যদি হঠাৎ কমে যায় তাহলে আপনার পাওয়ার সাপ্লাই এর তো বারোটা বাজবেই তার সাথে সাথে অন্য লোড এবং ডিভাইসেরও বারোটা বাজবে।

পাওয়ার সাপ্লাই যদি জেনারেটর থেকে হয় তাহলে তো অবস্থা আরো খারাপ। যাইহোক ইঞ্জিনিয়ারগন এ ঝামেলা থেকে মুক্তির জন্য সিম্পল একটি সিস্টেম অনুসরন করেন তা হল স্টার টু ডেল্টা।

আমরা জানি স্টার এ ডেল্টা থেকে অপেক্ষা কৃত কম পাওয়ারের প্রয়োজন হয়। তাই বড় বড় লোডগুলি প্রথমে ৩/৫/৬ সেকেন্ড এর জন্য স্টার এ রানিং করে পরে তাকে ডেল্টাতে চালানো হয়।স্টার ডেল্টা কানেকশন কখনো স্পিড কন্ট্রোলে ব্যাবহার হয় না।

ইনভার্টার ব্যাবহার করলে স্টার টু ডেল্টা কানেকশন এর প্রয়োজন নেই।ইনভার্টারের এক্সিলারেশন টাইম( Acceleration time অর্থাৎ সে চালু হতে কত সময় নিবে) এবং De-Acceleration time অর্থাৎ বন্ধ হতে কত সময় নিবে, আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী প্রোগ্রাম করে দিতে পারবেন। সুতরাং এখানে স্টার টু ডেল্টার কোন প্রয়োজন নেই।

৩) সফট স্টার্টার কেন ব্যবহার করবো???

সফট স্টার্টারঃ প্রথমেই জেনে নেই সফট স্টার্টার কেন ব্যাবহার হয়। এর নামকরনটা ভালভাবে খেয়াল করলে এর সম্পর্কে আইডিয়া করা যায়।

এর কাজ অনেকটাই স্টার টু ডেল্টার মতই।বড় বড় মোটরের স্টার্টিং এর সময় টোটাল সিস্টেমে এবং পাওয়ারের উপর যেন ক্ষতিকর প্রভাব না পড়ে সেজন্য সফট স্টার্টার ব্যাবহার করা হয়।

এর কাজ হচ্ছে মোটরকে প্রোগ্রামিং অনুযায়ী ধীরে ধীরে চালু করা।
এখন বলতে পারেন ভাই ইনভার্টার তো একই কাজ করে।

ইনভার্টার / ভিএফডি/ ড্রাইভ এর সাথে সফট স্টার্টারের কিছু পার্থক্য আছে।সাধারনত যেখানে মোটর রানিং বা ফুল লোড অবস্থায়অবস্থায় স্পিড কন্ট্রোলের প্রয়োজন নেই বা সামান্য স্পিড কন্ট্রোলের প্রয়োজন সেখানে সফট স্টার্টার ব্যাবহার করা হয়।

আর যেখানে সবসময় স্পিড কন্ট্রোলের প্রয়োজন হয় সেখানে ইনভার্টার বা ড্রাইভ বা ভিএফডি ব্যাবহার করা হয়।

যেখানে স্টার্টিং টর্ক নিম্ন বা মিডিয়াম সেখানে সফট স্টার্টার আর যেখানে High, low, medium starting torque লাগবে সেখানে Inverter/VFD/ Drive ব্যাবহার করতে হবে।

 

চিত্রঃ সফট স্টার্টার

Image may contain: one or more people

বৈদ্যুতিক লাইনে গ্রাউন্ডিং এর প্রয়োজনীয়তা ও ইলেকট্রিক শক

বিদ্যুৎ আমাদের জন্য আশির্বাদ স্বরূপ। আধুনিক যুগে বিদ্যুৎ ছাড়া কোন কিছুই চিন্তা করা যায় না। সেই সাথে বৈদ্যুতিক শক হলো জীবননাশকারী একটি ব্যাপার। এসি বিদ্যুত আবিষ্কার করবার পর, এটা যে প্রাণঘাতী এবং তা ব্যবহার করা ঠিক হবে না এই প্রচারে আলভা এডিসন নেমেছিলেন তার ডিসি বিদ্যুতের বাজার ঠিক রাখবার জন্য।

আমাদের বাসাবাড়িতে ২২০ ভোল্টের বিদ্যুত ব্যবহার করা হয় এবং বড়যন্ত্র সহ ট্রান্সমিশন লাইনে আরও বেশী ভোল্টেজ থাকতে পারে। আমাদের ব্যবহার করা অনেক যন্ত্র কম ভোল্টেজে চলবার পরও কাজের প্রয়োজনে বেশী ভোল্টেজ উৎপন্ন করতে পারে এর ভিতরের সার্কিট এর মাধ্যমে। তাই ইলেকট্রিক শক থেকে বাঁচবার জন্য সাধারণত গ্রাউন্ডিং বা আর্থিং করা হয়ে থাকে যন্ত্রপাতি ও লাইন। এতে করে শক পাওয়া বন্ধ করা না গেলেও তা যেন প্রাণঘাতি না হয় সে ব্যাপারে কিছুটা হলেও ব্যবস্থা নেওয়া যায়।

হবিস্ট থেকে শুরু করে প্রফেশনাল পর্যন্ত আমরা যারা সার্কিট নিয়ে কাজ করি তাদের বৈদ্যুতিক শক সম্বন্ধে সচেতন থাকা একান্ত প্রয়োজনীয় একটি বিষয়। সাধারণত আমাদের তৈরী করা সার্কিট থেকে একটি তারের মাধ্যমে আমরা লাইন স্থাপন করা হয় যে বাক্সে, তাতে গ্রাউন্ড সংযোগ করি নয়েজ ও শক প্রতিরোধ করবার জন্য। অনেক সময় কম্পিউটারের গায়ে হাত লাগলে আমরা মৃদু শক অনুভব করি এই কারণেই। সঠিক ভাবে গ্রাউন্ডিং/আর্থিং না থাকবার ফলে এই শকের ঘটনা ঘটে।

আমরা যদি আমাদের বাড়ির বৈদ্যুতিক সংযোগ দেখি তবে দেখবো যে মিটারের সাথে বা মুল কানেকশন থেকে একটি জি আই তারের (GI Wire) মাধ্যমে লাইন টেনে তা মাটিতে স্থাপন করা হয় যা গ্রাউন্ডিং এর কাজে লাগে। এটা ঠিক মতো না থাকলে বা নিয়ম অনুযায়ী স্থাপন না করলে আপনার বাড়িতে বৈদ্যুতিক সংযোগ হবার কথা না। তবুও অনেক বাড়িতে এটা ঠিক ভাবে থাকে না। এই ঠিক না থাকবার বিষয়টি সাধারণত অজ্ঞতা ও অবহেলার কারণে হয়ে থাকে যা মোটেও ঠিক না। এর ফলে বৈদ্যুতিক দুর্ঘটনার ফলে মানুষের মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে এবং সচরাচর হয়েও থাকে। সুতরাং এই গ্রাউন্ডিং নিয়ে অবহেলা করা উচিৎ না

বাসা বাড়িতে তিন পিনের প্লাগ ব্যবহার করা হয়ে থাকে মুলত এই গ্রাউন্ডিং নিশ্চিত করবার জন্যই কিন্তু আমরা দুই পিনের প্লাগ ব্যবহার করেই অভ্যস্ত যা সেফটির দিক থেকে ঠিকনা যদিনা সঠিক গ্রাউন্ডিং না থাকে। নীচের ছবিটা আসুন দেখি –

বৈদ্যুতিক শক এর মূল কারন কি তা ডায়াগ্রাম আকারে দেখানো হয়েছে

VC = (VS X R2)/(R1+R2)

এখানে R2 এর মান শূণ্য হলে অর্থাত গ্রাউন্ডিং লাইনের কানেকশন থাকলে চেসিসের গায়ে কোন ভোল্টেজ থাকবে না। কিন্তু R2 এর মান অসীম হলে বা R2 না থাকলে একটি ভোল্টেজ থাকবে যা বিপজ্জনক হতে পারে। একে বলে স্ট্রে ইমপিডেন্স (Stray Impedance)। এই স্ট্রে ইমপিডেন্সের কারণেই অনেক সময় কম্পিউটার বা মেটাল কেবিনেট যুক্ত বৈদ্যুতিক যন্ত্রতে হাত দিয়ে স্পর্শ করলে শকের অনুভূতি পাওয়া যায়। আর এই R2 টিই গ্রাউন্ডিং বা অন্যভাবে আর্থিং বলে।

আশাকরি গ্রাউন্ডিং কেন প্রয়োজন একটু হলেও পরিষ্কার হয়েছে সবার কাছে।

এখন এসি লাইন যদি চেসিসের সাথে কোন কারণ বশত শর্ট হয় তবে বাঁচবার কোন রাস্তা থাকে না এবং সরাসরি বিদ্যুত শরীরদিয়ে প্রবাহিত হয়ে মৃত্যুর ঝুকি সৃষ্টি করে। আরেকটি ডায়াগ্রাম থাকলে বিষয়টি বুঝতে সুবিধা হবে, তাহলে চলুন দেখি –

এখানে গ্রাউন্ড লাইন সঠিক থাকলে মানুষ স্পর্শ করবার পরেও প্রবাহিত মোট বিদ্যুত দুই ভাগে ভাগ হয়ে প্রবাহিত হবে। গ্রাউন্ড লাইনের রোধ কম হওয়াতে বেশীরভাগ বিদ্যুত গ্রাউন্ড লাইন দিয়ে প্রবাহিত হবে এবং মানুষের শরীর দিয়ে কম বিদ্যুৎ যাবে।

এতে করে খুব অল্প শক খাবার পরও মানুষের বেঁচে যাবার একটি সম্ভাবনা থাকে তবে যদি গ্রাউন্ড লাইন না থাকে তবে সম্পুর্ণ বিদ্যুত শরীরের ভিতর দিয়ে প্রবাহিত হবার কারণে মারাত্মক শক হবে যা প্রাণঘাতী হবার সম্ভবনাই বেশী।

এখানে উল্লেখ্য যে শুকনো অবস্থায় মানুষের শরীরের রোধ ১ লক্ষ ওহম পর্যন্ত হতে পারে তবে ভেজা অবস্থায় তা ১০০০ ওহম থেকে কয়েক ওহমে নেমে আসতে পারে। এর জন্যই ভেজা শরীরে শক বেশী মারাত্মক হয় এবং ভেজা শরীরে বৈদ্যুতিক কাজ করা বেশী বিপদ জনক।

এই ছোট্ট লিখা থেকে সঠিক গ্রাউন্ডিং/আর্থিং এর প্রয়োজনীয়তা আশা করি বুঝা গেছে। তাই গ্রাউন্ডিং নিয়ে আর অবহেলা নয়। আজই আপনার বাড়িতে সঠিক গ্রাউন্ডিং আছে কিনা তা পরীক্ষা করে নিন এবং না থাকলে তা সঠিক ভাবে স্থাপন করবার জন্য প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করুণ।

বিদ্যুত আশীর্বাদ তবে বৈদ্যুতিক শক জীবনঘাতি এটা মনে রাখবেন। এবং সেই সাথে এটা মনে রাখতে হবে বিদ্যুত কোন অবস্থায়ই নিয়মের ব্যত্যয় ঘটিয়ে কাওকে কোন প্রকার খাতির যত্ন করবে না।

 

 

 

 

বিল্ডিং তৈরিতে কতটুকু- রড, সিমেন্ট, ইটের প্রয়োজন , জেনে রাখুন 

 

জেনে নিন মনের মতো ছোট্ট সুন্দর বাড়ি তৈরিতে রড সিমেন্ট আর ইটের যাবতীয় হিসাব নিকাশ

১০” ওয়াল গাথুনীতে প্রতি ০১’ (স্কয়ার ফিট) গাথুনীতে ১০ টি ইট লাগে।
০৫” ওয়াল গাথুনীতে প্রতি ০১’ (স্কয়ার ফিট) গাথুনীতে ০৫ টি ইট লাগে।
গাথুনী এব প্লাস্টারে ০১ বস্তা সিমেন্টে ০৪ বস্তা বালি। তবে ০৫ বস্তাও দেওয়া যায়।
নিচের ছলিং এ প্রতি ০১’ (স্কয়ার ফিট) এর জন্য ০৩ টি ইট লাগে।পিকেট ইট দিয়ে খোয়া করতে হয়।
০৯ টি পিকেট ইট দিয়ে ০১ সিএফটি খোয়া হয়।সিএফটি অর্থাৎ ঘনফুট।
এসএফটি অর্থাৎ দৈর্ঘ্য এবং প্রস্তের দিক দিয়ে।কলাম এবং লিংটেল এর হিসাব সিএফটি তে করতে হয়।
ইঞ্চিকে প্রথমে ফুটে আনতে হবে। ( ১০” ÷ ১২ = ০.৮৩৩)এবং গাথুনীতে ও প্লাস্টারের হিসাব এসএফটি তে করতে হয়।* ১ ঘনমিটার ইটের গাথুনীর ওজন ১৯২০ কেজি।
* ১ ব্যাগ সিমেন্টে পানি লাগে ২১ লিটার।
* ১০০ এস,এফ,টি প্লাষ্টারে ১:৪ অনুপাতে সিমেন্ট লাগে ২ ব্যাগ।
* গাথুনীর প্লাষ্টারে ১:৫ অনুপাতে সিমেন্ট দিতে হয়। সিলিং প্লাষ্টারে ১:৫ অনুপাতে সিমেন্ট দিতে হয়।
* প্রতি এস,এফ,টি নিট ফিনিশিং করতে = ০.০২৩৫ কেজি সিমেন্ট লাগে।
* মসলা ছাড়া ১ টি ইটের মাপ = (৯ ১/২”*৪ ১/২”*২ ৩/৪”)
মসলাসহ = (১০”*৫”৩”)10 mm =1 cm
100 cm = 1 m (মিটার)Convert
1″ = 25.4 mm
1″ = 2.54 cm
39.37″ = 1 m
12″ = 1′ Fit
3′ = 1 Yard (গজ)
1 Yard = 36″
72 Fit = 1 bandil.
রডের পরিমান নির্ণয় করার পদ্ধতি
10 mm = 0.616 kg/m = 3 suta
12 mm = 0.888 kg/m = 4 suta
16 mm = 1.579 kg/m = 5 suta
20 mm = 2.466 kg/m = 6 suta
22 mm = 2.983 kg/m = 7 suta
25 mm = 3.854 kg/m = 8 suta
রডের ওজন
৮ মিলি মিটার এক ফুট রডের ওজন = ০.১২০ কেজি।
১০ মিলি মিটার এক ফুট রডের ওজন = ০.১৮৮ কেজি।
১২ মিলি মিটার এক ফুট রডের ওজন = ০.২৭০৬ কেজি।
১৬ মিলি মিটার এক ফুট রডের ওজন = ০.৪৮১২ কেজি।
২০ মিলি মিটার এক ফুট রডের ওজন = ০.৭৫১৮ কেজি।
২২ মিলি মিটার এক ফুট রডের ওজন = ০.৯০৯৭ কেজি।
২৫ মিলি মিটার এক ফুট রডের ওজন =১.১৭৪৭ কেজি।
উপরে যে কনভার্ট সিস্টেম দেয়া হয়েছে, এর প্রতিটি যদি আপনার জানা থাকে তাহলে বাস্তবে কাজ করা আপনার জন্য অনেক সহজ হয়ে যাবে।যেমন, ইঞ্জিনিয়ারিং সিস্টেমে রডের আন্তর্জাতিক হিসাব করা হয় kg/m এ।আবার বাংলাদেশে সাধারন লেবারদের সাথে কাজ করার সময় এই হিসাব জানা একান্তই জরুরী এছাড়া ও নিম্নোক্ত বিষয় টিও জেনে রাখুন . . . .
8 mm -7 feet -1 kg
10 mm -5 feet -1 kg
12 mm -3.75 feet – 1 kg
16 mm -2.15feet -1kg
20 mm -1.80feet -1kg
22mm -1.1feet -1kg
রডের মাপ ফিট মেপে kg বের করা হয় ………
এই সুত্রটি মনে রাখুন ( রডের ডায়া^2 / 531,36 ) যেকোনো ডায়া রডের এক ফিটের ওজন বাহির হবে . এখনে অবশ্যই রডের ডায়া মিলি মিটারে উল্লেখ করতে হবে।
খোয়ার হিসাব
* ১ টি ইটে = ০.১১ cft খোয়া হয়।
* ১০০ টি ইটে = ১১ cft খোয়া হয়।
* ১০০০ টি ইটে = ১১১.১১ cft খোয়া হয়।
বালির হিসাব
* ১০৯ ফিট = ১২.২৫cft,
* ১০০ sft ৫” গাথুনীতে ১:৫ অনুপাতে সিমেন্ট লাগে ২ ব্যাগ।
* ১০০ sft ১০” গাথুনীতে ১:৫ অনুপাতে সিমেন্ট লাগে ৪ ব্যাগ। বালু লাগে ২৪ cft।
ঢালাই এর হিসাব
* ১০০ cft ঢ়ালাই এ ১:২:৪ অনুপাতে সিমেন্ট ১৭ ব্যাগ, বালু ৪৩ cft, খোয়া ৮৬ cft লাগে।
* ১ cft ঢ়ালাই এ ১:২:৪ অনুপাতে সিমেন্ট ০.১৭, বালু ০.৪৩ cft, খোয়া ০.৮৬ cft লাগে।
==============================================
সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং এর প্রাথমিক হিসাব নিকাস জানুনঃ
1. এক ঘনমিটার ইটের গাঁথুনীর কাজে প্রচলিত ইটের প্রয়োজন= ৪১০ টি।
2. এক ঘনফুট ইটের গাঁথুনীর কাজে প্রচলিত ইটের প্রয়োজন=১১.৭৬=১২ টি
3. এক ঘনমিটার ইটের গাঁথুনীর কাজে মেট্রিক ইটের প্রয়োজন= ৫০০ টি।
4. এক ঘনফুট ইটের গাঁথুনীর কাজে মেট্রিক ইটের প্রয়োজন= ১৪.২৮ টি।
5. এক বর্গমিটার জায়গায় একস্তর ইটের ফ্লাট সোলিং এর জন্য ইটের প্রয়োজন=৩১ টি।
6. এক বর্গমিটার সোলিং এ চিকন বালির প্রয়োজন=০.০১৫ ঘনমিটার
7. এক বর্গমিটার জায়গায় একস্তর ইটের হেরিং বোন বন্ডের জন্য ইটের প্রয়োজন=৫২ টি।
8. এক বর্গমিটার হেরিং বোন বন্ডের জন্য চিকন বালির প্রয়োজন=০.০৩ ঘনমিটার
9. ইটের গাঁথুনীর কাজে শুকনা মসল্লা এর পরিমাণ=৩৫%
10. এক ঘনমিটার সিমেন্ট=৩০ ব্যাগ….
11. এক বর্গমিটার নীট সিমেন্ট ফিনিশিং এর জন্য(NCF) সিমেন্টের প্রয়োজন=২.৭-৩ কেজি
12. ডিপিসি এ পাডলোর পরিমাণ সিমেন্টের ওজনের ৫% অর্থাৎ প্রতি ব্যাগ সিমেন্টের জন্য ২.৫ কেজি।
13. এক ঘনমিটার এম,এস রডের ওজন =৭৮৫০ কেজি বা ৭৮.৫০ কুইন্টাল
14. এক ব্যাগ সিমেন্টের ওজন=৫০ কেজি এবং আয়তন=০.০৩৪৭ ঘনমিটার
15. এক ব্যাগ হোয়াইট সিমেন্টের ওজন=৪০ কেজি
16. আবাসিক দালানের জন্য বাসযোগ্য ক্ষেত্রফল প্লিন্থ ক্ষেত্রফলের ৫০%-৫৬% হওয়া উচিত।
17. ১ রানিং মিটার দৈর্ঘে এন্ড এজিং এ ইটের পরিমাণ=১/.১২৭=৮ টি।
18. আর.সি.সি কাজে ব্যবহৃত প্রতি মিটার এম.এস.রড এর ওজন নির্ণয়ের সুত্র =d2/১৬২.২ কেজি।
19. এক ঘনমিটার ছোট সাইজের খোয়ার জন্য ইটের প্রয়োজন ৩২০ টি এবং বড় সাইজের খোয়ার জন্য ৩০০ টি।
20. আর.সি.সি কাজে ব্যবহৃত প্রতি কেজি এম.এস.রড এর র্দৈঘ্য নির্ণয়ের সুত্র =১৬২.২/d2 মিটার
21. নির্মাণ সামগ্রী বহনের জন্য চালনা দুরুত্ব ৩০ মিটার এবং উত্তোলন দুরুত্ব ১.৫ মিটার।
22. কম্প্রেশন বারে হুক ছাড়া ল্যাপিং ২৪D এবং হুকসহ ৪৪D আবার, টেনশনে হুক ছাড়া ল্যাপিং ৩০D এবং হুকসহ ৬০D.
23. জলছাদের কাজে খোয়া,চুন,সুরকির অনুপাত=৭:২:২
24. সেপটিক ট্যাংক এর নুন্যতম প্রস্থ ৬০সেমি এবং তরলের নুন্যতম গভীরতা ১ মিটার।
25. সোক ওয়েলের নুন্যতম ব্যাস ৯০ সেমি এবং গভীরতা ইনভার্ট সমতল হতে ১.৫ মিটার।
26. কালভার্ট এর স্প্যান ৬ মিটারের কম এবং ব্রিজের স্প্যান ৬ মিটারের বেশি
27. ব্রিজ এর স্ল্যাবকে ডেকস স্ল্যাব বলে।
28. ঢেউটিনের প্রমাণ দৈর্ঘ্য: (১.৮০,২.২০,২.৫০,২.৮০,৩.২০)মিটার এবং প্রস্থ ০.৮০মিটার এবং ঢেউয়ের গভীরতা ১৮ মি.মি
29. এক মিটার এম.এস অ্যাঙ্গেলের ওজন=০.০০৭৮৫A কেজি
30. একটি এক টনি ট্রাক পাকা রাস্তায় সিমেন্ট বহন করে ২০ ব্যাগ
31. একটি এক টনি ট্রাক পাকা রাস্তায় ইট বহন করে 333 টি
32. একটি এক টনি ট্রাক কাঁচা রাস্তায় সিমেন্ট বহন করে ১৩.৩৩ ব্যাগ।

 

উৎসঃ Source 
এসি সার্কিটঃ এসি জেনারেটর উৎস হিসেবে ব্যবহৃত হয়।
ডিসি সার্কিটঃ ডিসি সার্কিটে উৎস হিসেবে ব্যটারী বা ডিসি জেনারেটর ব্যবহৃত হয়।

২। উপাদানঃ Parameters
এসি সার্কিটঃ এসি সার্কিটে প্যারামিটার হিসেবে রেজিস্ট্যান্স, ইন্ডাকট্যান্স ও ক্যাপাসিট্যান্স ব্যবহার করা হয়।
ডিসি সার্কিটঃ ডিসি সার্কিটে প্যারামিটার হিসেবে শুধুমাত্র রোধ ব্যবহার করা হয়।
৩। সরবরাহ ফ্রিকুংয়েন্সিঃ
এসি সার্কিটঃ ফ্রিকুয়েন্সির প্রভাবে ইন্ডাকট্যান্স ও ক্যাপাসিট্যান্স এর মান বাড়ে ও কমে।
ডিসি সার্কিটঃ ফ্রিকুয়েন্সির কোন প্রভাব নেই।

৪। যোগবিয়োগঃ Calculation
এসি সার্কিটঃ ভোল্টেজ ও কারেন্টের মধ্যে 90 ডিগ্রি ফেজ পার্থক্য থাকে বলে ভোল্টেজ ও কারেন্টসমূহ গানিতিক ভাবে যোগ বিয়োগের পরিবর্তে ভেক্টর যোগ বা বিয়োগ করতে হয়।
ডিসি সার্কিটঃ ভোল্টেজ ও কারেন্ট সমূহকে গানিতিকভাবে যোগ বিয়োগ করা যায়।

৫। রূপান্তরঃ
এসি কারেন্টঃ রেকটিফায়ারের সাহায্যে এসি কারেন্টকে ডিসি কারেন্টে পরিবর্তন করা যায়।
ডিসি কারেন্টঃ ডিসি কারেন্টকে সহজে এসি কারেন্টে রূপান্তর করা যায় না। গেলেও কষ্টসাধ্য ও ব্যায়বহুল।

৬। সরবরাহ হ্রাস বৃদ্ধিঃ
এসি কারেন্টঃ এসি কারেন্টকে ট্রান্সফর্মারের সাহায্যে সরবরাহ ভোল্টেজকে কমানো বা বাড়ানো যায়।
ডিসি কারেন্টঃ ডিসি কারেন্টের সরবরাহ ভোল্টেজকে কমানো বা বাড়ানো যায় না।

৭। রেগুলেশনঃ
এসি কারেন্টঃ এসি কারেন্টে ভোল্টেজ ড্রপ বেশি হয় বিধায় রেগুলেশন ভাল হয় না।
ডিসি কারেন্টঃ ডিসি কারেন্টে ভোল্টেজ ড্রপ কম হয় বিধায় রেগুলেশন ভাল।

৮। উৎপাদনঃ
এসি কারেন্টঃ সর্বোচ্চ উৎপাদিত ভোল্টেজ 16500 ভোল্ট।
ডিসি কারেন্টঃ সর্বোচ্চ উৎপদিত ভোল্টেজ 1500 ভোল্ট।

এখন আশা করি আপনারা এসি কারেন্ট ও ডিসি কারেন্ট এর পার্থক্যটা বুঝতে পেরেছেন।

এসি কারেন্টের কিছু বড় অসুবিধা হলঃ
১। এসি কারেন্ট এর সাহায্যে ব্যাটারী চার্জ করা যায়না।
২। ইলেকট্রোপ্লেটিং এর কাজে এসি কারেন্ট ব্যবহার করা যায় না।
৩। স্ত্রিন ইফেক্ট সমস্যা হয়।ইত্যাদি।

[তবে ইলেকট্রনিক্স যন্ত্রপাতিতে সাধারনত ডিসি কারেন্ট ব্যবহৃত হয়। এক্ষেত্রে ব্যাটারী ব্যবহার করা হয় কিংবা ট্রান্সফর্মার ও রেকটিফায়ারের সাহায্যে এসি কে ডিসি তে রূপান্তর করে ব্যবহার করা হয়।]

Electrical Interview Questions updated on Jan 2019

1. What is a System?

When a number of elements or components are connected in a sequence to perform a specific function, the group of elements that all constitute a System

2. What is Control System?

In a System the output and inputs are interrelated in such a manner that the output quantity or variable is controlled by input quantity, then such a system is called Control System.
The output quantity is called controlled variable or response and the input quantity is called command signal or excitation.

3. What are different types of Control Systems?

Two major types of Control Systems are 1) Open loop Control System 2) Closed Loop Control Systems
Open loop Control Systems:The Open loop Control System is one in which the Output Quantity has no effect on the Input Quantity. No feedback is present from the output quantity to the input quantity for correction.
Closed Loop Control System:The Closed loop Control System is one in which the feedback is provided from the Output quantity to the input quantity for the correction so as to maintain the desired output of the system.

4. What is a feedback in Control System?

The Feedback in Control System in one in which the output is sampled and proportional signal is fed back to the input for automatic correction of the error ( any change in desired output) for futher processing to get back the desired output.

5. Why Negative Feedback is preffered in the Control System?

The role of Feedback in control system is to take the sampled output back to the input and compare output signal with input signal for error ( deviation from the desired result). 
Negative Feedback results in the better stability of the system and rejects any disturbance signals and is less sensitive to the parameter variations. Hence in control systems negative feedback is considered.

 

6. What is the effect of positive feedback on stability of the system?

Positive feedback is not used generally in the control system because it increases the error signal and drives the system to instability. But positive feedbacks are used in minor loop control systems to amplify certain internal signals and parameters

7. What is Latching current?

Gate signal is to be applied to the thyristor to trigger the thyristor ON in safe mode. When the thyristor starts conducting the forward current above the minimum value, called Latching current, the gate signal which is applied to trigger the device in no longer require to keep the scr in ON position.

8. What is Holding current ?

When scr is conducting current in forward conduction state, scr will return to forward blocking state when the anode current or forward current falls below a low level called Holding current
Note: Latching current and Holding current are not same. Latching current is associated with the turn on process of the scr whereas holding current is associated with the turn off process. In general holding current will be slightly lesser than the latching current.

9. Why thyristor is considered as Charge controlled device?

During the triggering process of the thyristor from forward blocking state to forward conduction state through the gate signal, by applying the gate signal (voltage between gate and cathode) increases the minority carrier density in the p-layer and thereby facilitate the reverse break over of the junction J2 and thyristor starts conducting. Higher the magnitude of the gate current pulse, lesser is the time required to inject the charge and turning on the scr. By controlling the amount of charge we can control the turning on time of the scr.

10. What are the different losses that occur in thyristor while operating?

Different losses that occur are
a)Forward conduction losses during conduction of the thyristor
b)Loss due to leakage current during forward and reverse blocking.
c)Power loss at gate or Gate triggering loss. 
d)Switching losses at turn-on and turn-off.

11. What is meant by knee point voltage?

Knee point voltage is calculated for electrical Current transformers and is very important factor to choose a CT. It is the voltage at which a CT gets saturated.(CT-current transformer).

12. What is reverse power relay?

Reverse Power flow relay are used in generating stations’s protection. A generating stations is supposed to fed power to the grid and in case generating units are off,there is no generation in the plant then plant may take power from grid. To stop the flow of power from grid to generator we use reverse power relay.

13. What will happen if DC supply is given on the primary of a transformer?

Mainly transformer has high inductance and low resistance.In case of DC supply there is no inductance ,only resistance will act in the electrical circuit. So high electrical current will flow through primary side of the transformer.So for this reason coil and insulation will burn out.

14. What is the difference between isolators and electrical circuit breakers? What is bus-bar?

Isolators are mainly for switching purpose under normal conditions but they cannot operate in fault conditions .Actually they used for isolating the CBs for maintenance. Whereas CB gets activated under fault conditions according to the fault detected.Bus bar is nothing but a junction where the power is getting distributed for independent loads.

15. What are the advantage of free wheeling diode in a Full Wave rectifier?

It reduces the harmonics and it also reduces sparking and arching across the mechanical switch so that it reduces the voltage spike seen in a inductive load.

16. Mention the methods for starting an induction motor?

The different methods of starting an induction motor:
a)DOL:direct online starter
b)Star delta starter
c)Auto transformer starter
d)Resistance starter
e)Series reactor starter

17. What is the power factor of an alternator at no load?

At no load Synchronous Impedance of the alternator is responsible for creating angle difference. So it should be zero lagging like inductor.

18. What is the function of anti-pumping in circuit breaker?

When breaker is close at one time by close push button,the anti pumping contactor prevent re close the breaker by close push button after if it already close.

19. What is stepper motor.what is its uses?

Stepper motor is the electrical machine which act upon input pulse applied to it. it is one type of synchronous motor which runs in steps in either direction instead of running in complete cycle.so, in automation parts it is used.

20. There are a Transformer and an induction machine. Those two have the same supply. For which device the load current will be maximum? And why?

The motor has max load current compare to that of transformer because the motor consumes real power.. and the transformer is only producing the working flux and its not consuming.. hence the load current in the transformer is because of core loss so it is minimum.

21. What is SF6 Circuit Breaker?

SF6 is Sulpher hexa Flouride gas.. if this gas is used as arc quenching medium in a Circuitbreaker means SF6 CB.

22. What is ferrantic effect?

Output voltage is greater than the input voltage or receiving end voltage is greater than the sending end voltage.

23. What is meant by insulation voltage in cables? explain it?

It is the property of a cable by virtue of it can withstand the applied voltage without rupturing it is known as insulation level of the cable.

24. What is the difference between MCB & MCCB, Where it can be used?

MCB is miniature circuit breaker which is thermal operated and use for short circuit protection in small current rating circuit. MCCB moulded case circuit breaker and is thermal operated for over load current and magnetic operation for instant trip in short circuit condition.under voltage and under frequency may be inbuilt. Normally it is used where normal current is more than 100A.

25. Where should the lighting arrestor be placed in distribution lines?

Near distribution transformers and out going feeders of 11kv and incomming feeder of 33kv and near power transformers in sub-stations.

26. Define IDMT relay?

It is an inverse definite minimum time relay.In IDMT relay its operating is inversely proportional and also a characteristic of minimum time after which this relay operates.It is inverse in the sense ,the tripping time will decrease as the magnitude of fault current increase.

27. What are the transformer losses?

TRANSFORMER LOSSES – Transformer losses have two sources-copper loss and magnetic loss. Copper losses are caused by the resistance of the wire (I2R). Magnetic losses are caused by eddy currents and hysteresis in the core. Copper loss is a constant after the coil has been wound and therefore a measurable loss. Hysteresis loss is constant for a particular voltage and current. Eddy-current loss, however, is different for each frequency passed through the transformer.

 

28. what is the full form of KVAR?

We know there are three types of power in Electricals as Active, apparent & reactive. So KVAR is stand for “Kilo Volt Amps with Reactive component.

29. Two bulbs of 100w and 40w respectively connected in series across a 230v supply which bulb will glow bright and why?

Since two bulbs are in series they will get equal amount of electrical current but as the supply voltage is constant across the bulb(P=V^2/R).So the resistance of 40W bulb is greater and voltage across 40W is more (V=IR) so 40W bulb will glow brighter.

30. Why temperature rise is conducted in bus bars and isolators? 

Bus bars and isolators are rated for continuous power flow, that means they carry heavy currents which rises their temperature. so it is necessary to test this devices for temperature rise.

31. What is the difference between synchronous generator & asynchronous generator?

In simple, synchronous generator supply’s both active and reactive power but asynchronous generator(induction generator) supply’s only active power and observe reactive power for magnetizing.This type of generators are used in windmills.

32. What is Automatic Voltage regulator(AVR)?

AVR is an abbreviation for Automatic Voltage Regulator.It is important part in Synchronous Generators, it controls theoutput voltage of the generator by controlling its excitation current. Thus it can control the output Reactive Power of the Generator.

33. Difference between a four point starter and three point starter?

The shunt connection in four point stater is provided separately form the line where as in three point stater it is connected with line which is the drawback in three point stater

34. Why the capacitors works on ac only?
Generally capacitor gives infinite resistance to dc components(i.e., block the dc components). it allows the ac components to pass through.

35. How many types of colling system it transformers?

1. ONAN (oil natural,air natural)
2. ONAF (oil natural,air forced)
3. OFAF (oil forced,air forced)
4. ODWF (oil direct,water forced)
5. OFAN (oil forced,air forced)

36. Operation carried out in Thermal power stations?

The water is obtained in the boiler and the coal is burnt so that steam is obtained this steam is allowed to hit the turbine , the turbine which is coupled with the generator generates the electricity.

37. What is 2 phase motor?

A two phase motor is a motor with the the starting winding and the running winding have a phase split. e.g;ac servo motor.where the auxiliary winding and the control winding have a phase split of 90 degree.

 

38. What is the principle of motor?
Whenever a current carrying conductor is placed in an magnetic field it produce turning or twisting movement is called as torque.

39. What is meant by armature reaction?

The effect of armature flu to main flux is called armature reaction. The armature flux may support main flux or opposes main flux.

40. What is the difference between synchronous generator & asynchronous generator?

In simple, synchronous generator supply’s both active and reactive power but asynchronous generator(induction generator) supply’s only active power and observe reactive power for magnetizing.This type of generators are used in windmills.

41. Whats is MARX CIRCUIT?

It is used with generators for charging a number of capacitor in parallel and discharging them in series.It is used when voltage required for testing is higher than the available.

42. What are the advantages of speed control using thyristor?

Advantages :
1. Fast Switching Characterstics than Mosfet, BJT, IGBT 
2. Low cost 
3. Higher Accurate.

43. What is ACSR cable and where we use it?

ACSR means Aluminium conductor steel reinforced, this conductor is used in transmission & distribution.

44. Whats the one main difference between UPS & inverter ? And electrical engineering & electronics engineering ?

Uninterrupt power supply is mainly use for short time . means according to ups VA it gives backup. ups is also two types : on line and offline . online ups having high volt and amp for long time backup with with high dc voltage.but ups start with 12v dc with 7 amp. but inverter is startwith 12v,24,dc to 36v dc and 120amp to 180amp battery with long time backup.

45. What will happen when power factor is leading in distribution of power?

If their is high power factor, i.e if the power factor is close to one:
a)Losses in form of heat will be reduced,
b)Cable becomes less bulky and easy to carry, and very cheap to afford, &
c)It also reduces over heating of tranformers.

46. What are the advantages of star-delta starter with induction motor?

(1). The main advantage of using the star delta starter is reduction of current during the starting of the motor.Starting current is reduced to 3-4 times Of current of Direct online starting.(2). Hence the starting current is reduced , the voltage drops during the starting of motor in systems are reduced.

47. Why Delta Star Transformers are used for Lighting Loads?

For lighting loads, neutral conductor is must and hence the secondary must be star winding. and this lighting load is always unbalanced in all three phases. To minimize the current unbalance in the primary we use delta winding in the primary. So delta / star transformer is used for lighting loads.

48. Why computer humming sound occurred in HT transmission line?

This computer humming sound is coming due to ionization (breakdown of air into charged particles) of air around transmission conductor. This effect is called as Corona effect, and it is considered as power loss.

 

49. What is rated speed?

At the time of motor taking normal current (rated current)the speed of the motor is called rated speed. It is a speed at which any system take small current and give maximum efficiency.

50. If one lamp connects between two phases it will glow or not?

If the voltage between the two phase is equal to the lamp voltage then the lamp will glow. When the voltage difference is big it will damage the lamp and when the difference is smaller the lamp will glow depending on the type of lamp.

TOP ELECTRICAL ENGINEERING

  1. What happens if I connect a capacitor to a generator load?

Answer : Connecting a capacitor across a generator always improves power factor, but it will help depends up on the engine capacity of the alternator, otherwise the alternator will be over loaded due to the extra watts consumed due to the improvement on pf. Secondly, don’t connect a capacitor across an alternator while it is picking up or without any other load.

  1. Why the capacitors works on ac only?

Answer: Generally capacitor gives infinite resistance to dc components (i.e., block the DC components). It allows the ac components to pass through.

  1. Explain the working principal of the circuit breaker?

Answer: Circuit Breaker is one which makes or breaks the circuit. It has two contacts namely fixed contact & moving contact. Under normal condition the moving contact comes in contact with fixed contact thereby forming the closed contact for the flow of current. During abnormal & faulty conditions (when current exceeds the rated value) an arc is produced between the fixed & moving contacts & thereby it forms the open circuit, Arc is extinguished by the Arc Quenching media like air, oil, vacuum etc.

  1. How many types of colling system it transformers?

Answer: 1. ONAN (oil natural, air natural) 2. ONAF (oil natural, air forced) 3. OFAF (oil forced, air forced) 4. ODWF (oil direct, water forced) 5. OFAN (oil forced, air forced)

  1. What is the function of anti-pumping in circuit breaker?

Answer :when breaker is close at one time by close push button, the anti-pumping contactor prevent re close the breaker by close push button after if it already close.

  1. What is stepper motor? What is its uses?

Answer: Stepper motor is the electrical machine which act upon input pulse applied to it.it is one type of synchronous motor which runs in steps in either direction instead of running in complete cycle.so, in automation parts it is used.

  1. Tell me in detail about c.t. and p.t.?

Answer: The term C.T means current transformer, and the term P.T means potential transformer. In circuit where measurements of high voltage and high current is involved, they are used there.

Particularly when a measuring device like voltmeter or ammeter is not able to measure such high value of quantity because of large value of torque due to such high value it can damage the measuring device.so, CT and PT are introduced in the circuits. They work on the same principle of transformer, which is based on linkage of electromagnetic flux produced by primary with secondary. They work on the ratio to they are designed. E.g. if CT is of ratio 5000\5A and it has to measure secondary current of 8000A.then ANS=8000*5\5000=8Aand this result will be given to ammeter .and after measuring 8A we can calculate the primary current. Same is the operation of PT but measuring voltage.

  1. There are a Transformer and an induction machine. Those two have the same supply. For which device the load current will be maximum? And why?

Answer: The motor has max load current compare to that of transformer because the motor consumes real power and the transformer is only producing the working flux and it’s not consuming. Hence the load current in the transformer is because of core loss so it is minimum.

  1. What is power factor? Whether it should be high or low? Why?

Answer: Power factor should be high in order to get smooth operation of the system. Low power factor means losses will be more.it is the ratio of true power to apparent power. It has to be ideally 1. If it is too low then cable over heating &equipment overloading will occur. If it is greater than 1 then load will act as capacitor and starts feeding the source and will cause tripping. (If pf is poor ex: 0.17 to meet actual power load has to draw more current (V constant), result in more losses if pf is good ex: 0.95 to meet actual power load has to draw less current (V constant), result in less losses)

  1. What is the difference between Isolator and Circuit Breaker?

Answer: Isolator is an off load device which is used for isolating the downstream circuits from upstream circuits for the reason of any maintenance on downstream circuits. It is manually operated and does not contain any solenoid unlike circuit breaker. It should not be operated while it is having load. First the load on it must be made zero and then it can safely operate. Its specification only rated current is given. But circuit breaker is on load automatic device used for breaking the circuit in case of abnormal conditions like short circuit, overload etc., it is having three specification 1 is rated current and 2 is short circuit breaking capacity and 3 is instantaneous tripping current .

  1. What is Boucholz relay and the significance of it in to the transformer?

Answer: Boucholz relay is a device which is used for the protection of transformer from its internal faults, it is a gas based relay. whenever any internal fault occurs in a transformer, the Boucholz relay at once gives a horn for some time, if the transformer is isolated from the circuit then it stop its sound itself otherwise it trips the circuit by its own tripping mechanism.

  1. What is SF6 Circuit Breaker?

Answer SF6 is Sulphur hexa Fluoride gas. If this gas is used as arc quenching medium in a Circuit breaker means SF6 CB

  1. What is ferrantic effect?

Answer: Output voltage is greater than the input voltage or receiving end voltage is greater than the sending end voltage.

  1. What is meant by insulation voltage in cables? Explain it?

Answer: It is the property of a cable by virtue of it can withstand the applied voltage without rupturing it is known as insulation level of the cable.

  1. Why we do 2 types of earthing on transformer (i.e. 🙂 body earthing & neutral earthing, what is function. i am going to install a 5oo kva transformer & 380 kva DG set what should the earthing value?

Answer: The two types of earthing are Familiar as Equipment earthing and system earthing. In Equipment earthing: body (non-conducting part) of the equipment should be earthed to safeguard the human beings. System Earthing: In this neutral of the supply source (Transformer or Generator) should be grounded. With this, in case of unbalanced loading neutral will not be shifted.so that unbalanced voltages will not arise. We can protect the equipment also. With size of the equipment (transformer or alternator) and selection of relying system earthing will be further classified into directly earthed, Impedance earthing, resistive (NGRs) earthing.

  1. What is the difference between MCB & MCCB, Where it can be used?

Answer: MCB is miniature circuit breaker which is thermal operated and use for short circuit protection in small current rating circuit. MCCB moulded case circuit breaker and is thermal operated for over load current and magnetic operation for instant trip in shortcircuit condition. Under voltage and under frequency may be inbuilt. Normally it is used where normal current is more than 100A

  1. What is use of lockout relay in ht voltage?

 Answer: A lock-out relay is generally placed in line before or after the e-stop switch so the power can be shut off at one central location. This relay is powered by the same electrical source as the control power and is operated by a key lock switch. The relay itself may have up to 24 contact points within the unit itself. This allows the control power for multiple machines to be locked out by the turn of a single key switch.

  1. What is the difference between earth resistance and earth electrode resistance?

Answer: Only one of the terminals is evident in the earth resistance. In order to find the second terminal we should recourse to its definition: Earth Resistance is the resistance existing between the electrically accessible part of a buried electrode and another point of the earth, which is far away. The resistance of the electrode has the following components 🙁 A) The resistance of the metal and that of the connection to it. (B) The contact resistance of the surrounding earth to the electrode.

  1. Which power plant has high load factor?

All base load power plants have a high load factor. If we use high efficiency power plants to supply the base load, we can reduce the cost of generation. Hydro power plants have a higher efficiency than thermal & nuclear power plants.

  1. Why an ac solenoid valve attract the plunger even though we interchanges the terminal? Will the poles changes?

Answer: Yes because the poles changes for every half-cycle of ac voltage so the polarity of AC voltage is continuously changing for every half cycle. So, interchanging of terminals in ac system does not show any difference. That’s why the ac solenoid attract the plunger even though it’s terminals are interchanged.

  1. Define IDMT relay?

Answer: It is an inverse definite minimum time relay. In IDMT relay its operating is inversely proportional and also a characteristic of minimum time after which this relay operates. It is inverse in the sense, the tripping time will decrease as the magnitude of fault current increase.

  1. What are the transformer losses?

Answer: TRANSFORMER LOSSES – Transformer losses have two sources-copper loss and magnetic loss. Copper losses are caused by the resistance of the wire (I2R).Magnetic losses are caused by eddy currents and hysteresis in the core. Copper loss is a constant after the coil has been wound and therefore a measurable loss. Hysteresis is loss is constant for a particular voltage and current. Eddy-current loss, however, is different for each frequency passed through the transformer.

  1. What is meant by regenerative braking?

Answer: When the supply is cut off for a running motor, it still continue running due to inertia. In order to stop it quickly we place a load (resistor) across the armature winding and the motor should have maintained continuous field supply. So that back emf voltage is made to apply across the resistor and due to load the motor stops quickly. This type of breaking is called as “Regenerative Breaking”.

  1. Why is the starting current high in a DC motor?

Answer: In DC motors, Voltage equation is V=Eb-IaRa (V = Terminal voltage, Eb = Back emf in Motor, Ia = Armature current, Ra = Armature resistance).At starting, Eb is zero. Therefore, V=IaRa, Ia = V/Ra ,where Ra is very less like 0.01ohm.i.e, Ia will become enormously increased.

  1. What are the advantages of star-delta starter with induction motor?

 Answer :(1). The main advantage of using the star delta starter is reduction of current during the starting of the motor. Starting current is reduced to 3-4 times Of current of Direct online starting.(2). Hence the starting current is reduced , the voltage drops during the starting of motor in systems are reduced.

  1. Why Delta Star Transformers are used for Lighting Loads?

Answer: For lighting loads, neutral conductor is must and hence the secondary must be star winding and this lighting load is always unbalanced in all three phases. To minimize the current unbalance in the primary we use delta winding in the primary. So delta / star transformer is used for lighting loads.

  1. Why in a three pin plug the earth pin is thicker and longer than the other pins?

 Answer: It depends upon R=rho l/a where area(a) is inversely proportional to resistance(R), so if (a) increases, R decreases & if R is less the leakage current will take low resistance path so the earth pin should be thicker. It is longer because the First to make the connection and last to disconnect should be earth Pin. This assures Safety for the person who uses the electrical instrument.

  1. Why series motor cannot be started on no-load?

Answer: Series motor cannot be started without load because of high starting torque. Series motor are used in Trains, Crane etc.

  1. Why ELCB can’t work if N input of ELCB do not connect to ground?

Answer: ELCB is used to detect earth leakage fault. Once the phase and neutral are connected in an ELCB, the current will flow through phase and that much current will have to return neutral so resultant current is zero. Once there is a ground fault in the load side, current from phase will directly pass through earth and it will not return through neutral through ELCB. That means once side current is going and not returning and hence because of this difference in current ELCB will trip and it will safe guard the other circuits from faulty loads. If the neutral is not grounded, fault current will definitely high and that full fault current will come back through ELCB, and there will be no difference in current.

  1. How electrical power is generated by an A.C Generator?

Answer: For the generation of elect power we need a prime mover which supplies mechanical power input to the alternator, can be steam turbines, or hydro turbines. When poles of the rotor moves under the armature conductors which are placed on the stator ,field flux cut the armature conductor ,therefore voltage is generated and is of sinusoidal in nature…due to polarity change of rotor poles(i,e) N-S-N-S.

  1. Why ac solenoid valves attract the plunger even though we interchanges the terminal? Will the poles changes?

Answer: Yes because the poles change for every half-cycle of ac voltage so the polarity of AC voltage is continuously changing for every half cycle. So, interchanging of terminals in ac system does not show any difference. That’s why the ac solenoid attract the plunger even though its terminals are interchanged.

  1. What is derating? Why it is necessary, it is same for all means for drives, motors, and cables.
  2. What is Automatic Voltage regulator (AVR)?

Answer: AVR is an abbreviation for Automatic Voltage Regulator. It is important part in Synchronous Generators, it controls the output voltage of the generator by controlling its excitation current. Thus it can control the output Reactive Power of the Generator.

  1. What is an exciter and how does it work

Answer: There are two types of exciters, static exciter and rotary exciter. Purpose of exciter is to supply the excitation dc voltage to the fixed poles of generator. Rotary exciter is an additional small generator mounted on the shaft of main generator. If it is dc generator, it will supply dc to the rotary poles through slip ring and brushes (conventional alternator). if it is an ac exciter, output of ac exciter is rectified by rotating diodes and supply dc to main fixed poles.ac exciter is the ac generator whose field winding are stationary and armature rotates. Initial voltage is built up by residual magnetism. It gives the starting torque to the generator.

  1. Difference between a four point starter and three point starter?

Answer: The shunt connection in four point stater is provided separately from the line where as in three point stater it is connected with line which is the drawback in three point stater

  1. Why use the VCB at High Transmission System? Why can’t use ACB?

Answer: Actually the thing is vacuum has high arc quenching property compare to air because in VCB, the die electric strengths equal to 8 times of air. That y always vacuum used as in HT breaker and air used as in LT.

  1. What is the difference between surge arrestor and lightning arrestor?

 Answer: LA is installed outside and the effect of lightning is grounded, whereas surge arrestor installed inside panels comprising of resistors which consumes the energy and nullify the effect of surge.

  1. Why syn. generators r used for the production of electricity?

Answer: synchronous machines have capability to work on different power factor (or say different imaginary POW varying the field emf. Hence syn. generators r used for the production of electricity.

  1. Enlist types of dc generator?

Answer: D.C. Generators are classified into two types 1) Separately excited d.c.generator 2) Self-excited d.c.generator, which is further classified into; 1) series 2) shunt and 3) Compound (which is further classified into cumulative and differential).

  1. What is the difference between synchronous generator & asynchronous generator?

Answer: In simple, synchronous generator supply’s both active and reactive power but asynchronous generator (induction generator) supply’s only active power and observe reactive power for magnetizing. This type of generators are used in windmills.

  1. Give two basic speed control scheme of DC shunt motor?

Answer: 1. By using flux control method: in this method a rheostat is connected across the field winding to control the field current.so by changing the current the flux produced by the field winding can be changed, and since speed is inversely proportional to flux speed can be controlled 2. Armature control method: in this method a rheostat is connected across armature winding by varying the resistance the value of resistive drop (IaRa) can be varied, and since speed is directly proportional to Eb-IaRa the speed can be controlled.

  1. What is the principle of motor?

Answer: Whenever a current carrying conductor is placed in a magnetic field it produce turning or twisting movement is called as torque.

  1. What is meant by armature reaction?

Answer: The effect of armature flu to main flux is called armature reaction. The armature flux may support main flux or opposes main flux.

  1. What is the Polarization index value? (Pi value) and simple definition of polarization index? Answer: Its ratio between insulation resistance (IR) i.e. meggar value for 10min to insulation resistance for 1 min. It ranges from 5-7 for new motors & normally for motor to be in good condition it should be Greater than 2.5. Polarization Index Test (PI) – The PI test measures the ability of the insulation to absorb voltage over a period of time. This gives an indication of the overall insulation quality of the individual pieces of insulation in the transformer. This test is usually performed in conjunction with the Meggar Test. It is measured as ratio of insulation resistance (IR) for 10 minutes to insulation resistance for 1 minute.
  2. What will happen when power factor is leading in distribution of power?

 Answer: If there is high power factor, i.e. if the power factor is close to one: 1. Losses in form of heat will be reduced, 2. Cable becomes less bulky and easy to carry, and very cheap to afford, & 3. It also reduces over heating of transformers.

  1.  What is 2 phase motor?

Answer: A two phase motor is a motor with the starting winding and the running winding have a phase split. e.g.; ac servo motor. Where the auxiliary winding and the control winding have a phase split of 90 degree.

  1. Advantages of vvvf drives over non vvvf drives for EOT cranes?

Answer: 1. Smooth start and stop. 2. No jerking of load. 3. Exact positioning 4. Better protection for motor. 5. high/low speed selection. 6. Reliability of break shoe. 7. Programmable break control. 8. Easy circuitry 9. Reduction in controls 10. Increases motor life

  1. 4What is the significance of vector grouping in Power Transformers?

Answer: Every power transformer has a vector group listed by its manufacturer. Fundamentally it tells you the information about how the windings are connected (delta or wye) and the phase difference between the current and voltage. EG. DYN11 means Delta primary, Wye Secondary and the current is at 11 o clock referred to the voltage.

  1. Type of A.C motor is used in the fan (ceiling fan, exhaust fan, pedestal fan, bracket fan etc) which are find in the houses?

Answer: Its Single Phase induction motor which mostly squirrel cage rotor and are capacitor start capacitor run.

  1. Why, when birds sit on transmission lines or current wires doesn’t get shock?

Answer: It’s true that if birds touch the single one line (phase or neutral) they don’t get electrical shock… if birds touch 2 lines than the circuit is closed and they get electrical shock. so if a human touch single one line (phase) then he doesn’t get shock if he is in the air (not touching – standing on the ground if he is standing on the ground then touching the line (phase) he will get a shock because the ground on what we standing is like line (ground bed – like neutral) । and in the most of electric lines the neutral is grounded. So that means that human who touch the line closes the circuit between phase and neutral.

  1. What happens if we give 220 volts dc supply to tube light?

Answer: Bulbs [devices] for AC are designed to operate such that it offers high impedance to AC supply. Normally they have low resistance. When DC supply is applied, due to low resistance, the current through lamp would be so high that it may damage the bulb element.

  1. Which motor has high Starting Torque and Staring current DC motor, Induction motor or Synchronous motor?

 Answer: DC Series motor has high starting torque. We cannot start the Induction motor and Synchronous motors on load, but cannot start the DC series motor without load.

  1. What is vacuum circuit breaker? Define with cause and where we use it.

Answer: A breaker is normally used to break a circuit. While breaking the circuit, the contact terminals will be separated. At the time of separation an air gap is formed in between the terminals. Due to existing current flow the air in the gap is ionized and results in the arc. Various mediums are used to quench this arc in respective CB’s. But in VCB the medium is vacuum gas. Since the air in the CB is having vacuum pressure the arc formation is interrupted. VCB’s can be used up to 11kv.

  1. What is ACSR cable and where we use it?

Answer: ACSR means Aluminum conductor steel reinforced, this conductor is used in transmission & distribution.

  1. What’s is MARX CIRCUIT?

Answer: It is used with generators for charging a number of capacitor in parallel and discharging them in series. It is used when voltage required for testing is higher than the available.

  1. What is the principle of motor?

Answer: Whenever a current carrying conductor is placed in a magnetic field it produce turning or twisting movement is called as torque.

  1. What is electric traction?

Answer: Traction means using the electric power for traction system i.e. for railways, trams, trolleys etc. electric traction means use of the electricity for all these. Now a days, magnetic traction is also used for bullet trains. Basically dc motors are used for electric traction systems.

  1. How can you start-up the 40w tube lite with 230v AC/DC without using any choke/Coil? Answer: It’s possible by means of Electronic choke. Otherwise it’s not possible to ionize the particles in tube. Light, with normal voltage.

What is “pu” in electrical engineering?

  1. Answer: Pu stands for per unit and this will be used in power system single line diagram there it is like a huge electrical circuit with no of components (generators, transformers, loads) with different ratings (in MVA and KV). To bring all the ratings into common platform we use pu concept in which, in general largest MVA and KV ratings of the component is considered as base values, then all other component ratings will get back into this basis. Those values are called as pu values. (p.u=actual value/base value).
  2. Operation carried out in Thermal power station?

Answer: The water is obtained in the boiler and the coal is burnt so that steam is obtained this steam is allowed to hit the turbine, the turbine which is coupled with the generator generates the electricity.

  1. Why link is provided in neutral of an ac circuit and fuse in phase of ac circuit?

Answer: Link is provided at a Neutral common point in the circuit from which various connection are taken for the individual control circuit and so it is given in a link form to withstand high Amps. But in the case of Fuse in the Phase of AC circuit it is designed such that the fuse rating is calculated for the particular circuit (i.e. load) only. So if any malfunction happen the fuse connected in the particular control circuit alone will blow off.

  1. Enlist types of dc generator?

Answer: D.C. Generators are classified into two types 1)separately excited d.c.generator 2)selfexcited d.c.generator, which is further classified into;1)series 2)shunt and 3)compound(which is further classified into cumulative and differential).

  1. 6What is the difference between an Electronic regulator and ordinary rheostat regulator for fans?

Answer: The difference between the electronic and ordinary regulator is that in electronic reg. power losses are less i.e. for as we decrease the speed the electronic reg. give the power needed for that particular speed but in case of ordinary rh type reg. the power wastage is same for every speed and no power is saved. In electronic regulator triac is employed for speed cntrl.by varying the firing angle speed is controlled but in rheostat ctrl resistance is decreased by steps to achieve speed control.

  1. What was the difference between Electrical Engineering and Electronics Engineering?

Answer: Electrical engineering is a field of engineering that generally deals with the study and application of electricity, electronics, and electromagnetism. Electronics engineering, or electronic engineering, is an engineering discipline where non-linear and active electrical components such as electron tubes, and semiconductor devices, especially transistors, diodes and integrated circuits, are utilized to design electronic circuits, devices and systems, typically also including passive electrical components and based on printed circuit boards.

  1. What is an exciter and how does it work?

Answer: There are two types of exciters, static exciter and rotary exciter. Purpose of exciter is to supply the excitation dc voltage to the fixed poles of generator. Rotary exciter is an additional small generator mounted on the shaft of main generator. If it is dc generator, it will supply dc to the rotary poles through slip ring and brushes (conventional alternator). if it is an ac exciter, output of ac exciter is rectified by rotating diodes and supply dc to main fixed poles.ac exciter is the ac generator whose field winding are stationary and armature rotates. Initial voltage is built up by residual magnetism. It gives the starting torque to the generator.

  1. Explain the term BOM?

BOM stands for Bill of Materials; it is a list of item or parts that makeup a product assembly. For example, a lawn mower requires a handle assembly, metal deck assembly, a control assembly, motor and blade assembly.

  1. Explain what is QMS?

QMS stands for Quality Management System; it documents all necessary information about company’s design and operational controls, including issue reporting, monitoring, continuous improvement and training, to make sure that company delivers continuous product.

  1. What is the challenge in manufacturing products?

 Main challenge in manufacturing is to develop better production processes, ensure the right material and component supplies at the least cost, decrease production time, eliminate wastage and maintain quality in the final product.

  1. Define the term “factory overhead”?

During the manufacturing process, whatever the cost is incurred during the process is referred as “factory overhead”, excluding the cost of materials and direct labors.

  1. Explain how to supervise in a manufacturing unit?

Supervising a manufacturing process includes attending to the individual phases of the production. Also, manufacturing supervisor should have a close eye on the inventory that going to be used. Step 1: Keep the records of different phases of manufacturing also analyse whether the amount of product produced by the crew is enough to meet the demand Step 2: Look for the bottlenecks in the unit and see how you can eliminate it Step 3: Keep the track of inventory and try to reduce the liquid capital used after unused material Step 4: Examine the final goods to determine whether they meet the company’s quality standards.

  1. Explain the process of commutation in a dc machine. Explain what are inter-poles and why they are required in a dc machine.

Commutation: It is phenomenon when an armature coil moves under the influence of one polepair; it carries constant current in one direction. As the coil moves into the influence of the next pole- pair, the current in it must reverse. This reversal of current in a coil is called commutation. Several coils undergo commutation simultaneously. The reversal of current is opposed by the static coil emf and therefore must be aided in some fashion for smooth current reversal, which otherwise would result in sparking at the brushes. The aiding emf is dynamically induced into the coils undergoing commutation by means of compoles or interpoles, which are series excited by the armature current. These are located in the interpolar region of the main poles and therefore influence the armature coils only when these undergo commutation.

  1. Comment on the working principle of operation of a single-phase transformer.

Working principle of operation of a single-phase transformer can be explained as An AC supply passes through the primary winding, a current will start flowing in the primary winding. As a result, the flux is set. This flux is linked with primary and secondary windings. Hence, voltage is induced in both the windings. Now, when the load is connected to the secondary side, the current will start flowing in the load in the secondary winding, resulting in the flow of additional current in the secondary winding. Hence, according to Faraday’s laws of electromagnetic induction, emf will be induced in both the windings. The voltage induced in the primary winding is due to its self-inductance and known as self-induced emf and according to Lenses’ law it will oppose the cause i.e. supply voltage hence called as back emf. The voltage induced in secondary coil is known as mutually induced voltage. Hence, transformer works on the principle of electromagnetic induction.

  1.  What is rated speed?

At the time of motor taking normal current (rated current) the speed of the motor is called rated speed. It is a speed at which any system take small current and give maximum efficiency.

  1. If one lamp connects between two phases it will glow or not? If the voltage between the two phases is equal to the lamp voltage then the lamp will glow. When the voltage difference is big it will damage the lamp and when the difference is smaller the lamp will glow depending on the type of lamp.
  2. What is the full form of KVAR?

We know there are three types of power in Electricals as Active, apparent & reactive. So KVAR is stand for “Kilo Volt Amps with Reactive component.

  1.  Two bulbs of 100w and 40w respectively connected in series across a 230v supply which bulb will glow bright and why?

Since two bulbs are in series they will get equal amount of electrical current but as the supply voltage is constant across the bulb (P=V^2/R).So the resistance of 40W bulb is greater and voltage across 40W is more (V=IR) so 40W bulb will glow brighter.

  1. Why temperature rise is conducted in bus bars and isolators?

Bus bars and isolators are rated for continuous power flow that means they carry heavy currents which rises their temperature. So it is necessary to test this devices for temperature rise.

  1. What is a System?

When a number of elements or components are connected in a sequence to perform a specific function, the group of elements that all constitute a System

  1. What is Control System?

In a System the output and inputs are interrelated in such a manner that the output quantity or variable is controlled by input quantity, then such a system is called Control System.

The output quantity is called controlled variable or response and the input quantity is called command signal or excitation.

  1. What are different types of Control Systems?

Two major types of Control Systems are 1) Open loop Control System 2) Closed Loop Control Systems Open loop Control Systems: The Open loop Control System is one in which the Output Quantity has no effect on the Input Quantity. No feedback is present from the output quantity to the input quantity for correction. Closed Loop Control System: The Closed loop Control System is one in which the feedback is provided from the Output quantity to the input quantity for the correction so as to maintain the desired output of the system.

  1. What is a feedback in Control System? The Feedback in Control System in one in which the output is sampled and proportional signal is fed back to the input for automatic correction of the error (any change in desired output) for further processing to get back the desired output.
  2. Why Negative Feedback is preferred in the Control System?

The role of Feedback in control system is to take the sampled output back to the input and compare output signal with input signal for error (deviation from the desired result). Negative Feedback results in the better stability of the system and rejects any disturbance signals and is less sensitive to the parameter variations. Hence in control systems negative feedback is considered.

  1. What is the effect of positive feedback on stability of the system? Positive feedback is not used generally in the control system because it increases the error signal and drives the system to instability. But positive feedbacks are used in minor loop control systems to amplify certain internal signals and parameters.
  2. What is protective relay? Answer: It is an electrical device designed to initiate the isolation of a part of the electrical installation, or to operate an alarm signal, in the event of abnormal condition or a fault. In simple words relay is an electrical device that gives signal to isolation device (eg: Circuit Breaker) after sensing the fault and helps to isolate the fault system from the healthy electrical system
  3. What are the different relays that employed for protection of apparatus and transmission lines? Answer: The relays that are usually employed for protection of transmission lines include: Over current relay, Directional relay, Distance relay, Under Voltage relay, Under frequency relay Thermal relay, Differential relay, Phase sequence relays, pilot relays
  4. How the electrical power system protection is divided?

Answer: The overall system protection is divided into Generator protection, Transformer protection, Bus bar protection, Transmission line protection and Feeder protection

  1. How relays are connected in the power system?

Answer: The relays are connected to the power system through the current transformer (CT) or potential transformer (PT).

  1. What are different types of principles of operation of electro-mechanical relays?

Answer: Eletro-mechanical relays operate by two principles. Electro-magnetic attraction and electro-magnetic  induction. In electromagnetic attraction relay plunger is drawn to the solenoid or an armature is attracted to the poles of the electromagnet. In case of electro-magnetic induction, principle of operation is similar to induction motor. Torque is developed by electromagnetic induction principle

  1. Action carried out by the relay and circuit breaker during fault condition?

Answer: After the relay sensing the fault condition, relay operates and close the trip coils. The effect of this will be circuit breaker operate to open the contacts.

Interview Questions and Answers

  1. What is electric traction?
  • Electric traction means using the electric power for traction system (i.e. for railways,trams, trolleys etc).
  • Electric traction means use of the electricity for all the above machines. Now a days, magnetic traction is also used for bullet trains.and basically dc motors are used for electric traction systems.
  1. How can you start-up the 40w tube lite with 230v AC/DC without using any choke/Coil?
    It’s possible by means of Electronic chokes,otherwise it’s not possible to ionize the particles in tube light with normal voltage.
  2. What is “pu” in electrical engineering?
    Pu stands for per unit and this will be used in single line diagram of power distribution and it is like a huge electrical circuit with no of components (generators, transformers, loads) with different ratings (in MVA and KV). To bring all the ratings into common platform we use pu concept in which, in general largest MVA and KV ratings of the component is considered as base values, then all other component ratings will get back into this basis.Those values are called as pu values. (p.u=actual value/base value).
  3. Operation carried out in Thermal power stations?
    The water is obtained in the boiler and the coal is burnt so that steam is obtained this steam is allowed to hit the turbine , the turbine which is coupled with the generator generates the electricity.
  4. Why link is provided in neutral of an ac circuit and fuse in phase of ac circuit?
    Link is provided at a Neutral common point in the circuit from which various connection are taken for the individual control circuit and so it is given in a link form to withstand high Amps. But in the case of Fuse in the Phase of AC circuit it is designed such that the fuse rating is calculated for the particular circuit (i.e load) only.So if any malfunction happen the fuse connected in the particular control circuit alone will blow off.
  5. How tube light circuit is connected and how it works?
    A choke is connected in one end of the tube light and a starter is in series with the circuit. When supply is provided ,the starter will interrupt the supply cycle of AC. Due to the sudden change of supply the chock will generate around 1000 volts . This volt will capable of to break the electrons inside the tube to make electron flow. once the current passes through the tube the starter circuit will be out of part. now there is no change of supply causes choke voltage normalized and act as minimize the current.
  6. whats is MARX CIRCUIT?
    It is used with generators for charging a number of capacitor in parallel and discharging them in series.It is used when voltage required for testing is higher than the available.
  7. What is encoder, how it function?
    An encoder is a device used to change a signal (such as a bit stream) or data into a code. The code may serve any of a number of purposes such as compressing information for transmission or storage, encrypting or adding redundancies to the input code, or translating from one code to another. This is usually done by means of a programmed algorithm,especially if any part is digital, while most analog encoding is done with analog
    circuitry.
  8. What are the advantages of speed control using thyristor?
    Advantages :
  9. Fast Switching Characteristics than Mosfet, BJT, IGBT
  10. Low cost
  11. Higher Accurate.
  12. Why Human body feel Electric shock ?? n in an Electric train during running , We did nt feel any Shock ? why?
    Unfortunately our body is a pretty good conductor of electricity, The golden rule is Current takes the lowest resistant path if you have insulation to our feet as the circuit is not complete (wearing rubber footwear which doing some repairs is advisable as our footwear is a high resistance path not much current flows through our body).The electric train is well insulated from its electrical system.
  13. what is the principle of motor?
    Whenever a current carrying conductor is placed in an magnetic field it produce turning or twisting movement is called as torque.
  14. Why, when birds sit on transmission lines or current wires doesn’t get shock?
    Its true that if birds touch the single one line (phase or neutral) they don’t get electrical shock… if birds touch 2 lines than the circuit is closed and they get electrical shock.. so if a human touch single one line(phase) then he doesn’t get shock if he is in the air (not touching – standing on the ground if he is standing on the ground then touching the line (phase) he will get a shock because the ground on what we standing is like line (ground bed – like neutral)? and in the most of electric lines the neutral is grounded..so that means that human who touch the line closes the circuit between phase and neutral.
  15. what is meant by armature reaction?
    The effect of armature flu to main flux is called armature reaction. The armature flux may support main flux or opposes main flux.
  16. what happen if we give 220 volts dc supply to d bulb r tube light?
    Bulbs [devices] for AC are designed to operate such that it offers high impedance to AC supply. Normally they have low resistance. When DC supply is applied, due to low resistance, the current through lamp would be so high that it may damage the bulb element.
  17. Which motor has high Starting Torque and Staring current DC motor, Induction motor or Synchronous motor?
    DC Series motor has high starting torque. We can not start the Induction motor and Synchronous motors on load, but can not start the DC series motor without load.
  18. what is ACSR cable and where we use it?
    ACSR means Aluminium conductor steel reinforced, this conductor is used in transmission & distribution.
  19. What is vacuum circuit breaker.define with cause and where be use it Device?
    A breaker is normally used to break a circuit. while breaking the circuit, the contact terminals will be separated.
    At the time of separation an air gap is formed in between the terminals. Due to existing current flow the air in the gap is ionized and results in the arc. various mediums are used to quench this arc in respective CB’s. but in VCB the medium is vacuum gas. since the air in the CB is having vacuum pressure the arc formation is interrupted. VCB’s can be used up to kv.
  20. What will happen when power factor is leading in distribution of power?
    If their is high power factor, i.e if the power factor is close to one:
  21. losses in form of heat will be reduced,
  22. cable becomes less bulky and easy to carry, and very cheap to afford, &
  23. it also reduces over heating of transformers.
  24. whats the one main difference between UPS & inverter ? And electrical engineering & electronics engineering ?
    uninterrupt power supply is mainly use for short time . means according to ups VA it gives backup. ups is also two types : on line and offline . online ups having high volt and amp for long time backup with with high dc voltage.but ups start with 2v dc with 7 amp. but inverter is start with 2v,24,dc to 36v dc and 20amp to 80amp battery with long time backup.
  25. What is 2 phase motor?
    A two phase motor is a motor with the the starting winding and the running winding have a phase split.
    e.g;ac servo motor.where the auxiliary winding and the control winding have a phase split of 90 degree.
  26. Advantages of vvvf drives over non vvvf drives for EOT cranes?
  27. smooth start and stop.
  28. no jerking of load.
  29. exact positioning
  30. better protection for motor.
  31. high/low speed selection.
  32. reliability of break shoe.
  33. programmable break control.
  34. easy circuitry
  35. reduction in controls
  36. increases motor life
  37. What is the significance of vector grouping in Power Transformers?
    Every power transformer has a vector group listed by its manufacturer. Fundamentally it tells you the information about how the windings are connected (delta or wye) and the phace difference between the current and voltage. EG. DYN means Delta primary, Wye Secondry and the current is at o clock referred to the voltage.
  38. Which type of A.C motor is used in the fan (ceiling fan, exhaust fan, pedestal fan, bracket fan etc) which are find in the houses ?
    Its Single Phase induction motor which mostly squirrel cage rotor and are capacitor start capacitor run.
  39. Give two basic speed control scheme of DC shunt motor?
    By using flux control method:in this method a rheostat is connected across the field winding to control the field current.so by changing the current the flux produced by the field winding can be changed, and since speed is inversely proportional to flux speed can be controlled .armature control method:in this method a rheostat is connected across armature winding by varying the resistance the value of resistive drop(IaRa)can be varied,and since speed is directly proportional to Eb-IaRa the speed can be controlled.
  40. what is the principle of motor?
    Whenever a current carrying conductor is placed in an magnetic field it produce turning or twisting movement is called as torque.
  41. what is meant by armature reaction?
    The effect of armature flu to main flux is called armature reaction. The armature flux may support main flux or opposes main flux.
  42. Give two basic speed control scheme of DC shunt motor?
    By using flux control method:in this method a rheostat is connected across the field winding to control the field current.so by changing the current the flux produced by the field winding can be changed, and since speed is inversely proportional to flux speed can be controlled .armature control method:in this method a rheostat is connected across armature wdg.by varying the resistance the value of resistive drop(IaRa)can be varied,and since speed is directly proportional to Eb-IaRa the speed can be controlled.
  43. what is the difference between synchronous generator & asynchronous generator?
    In simple, synchronous generator supply’s both active and reactive power but asynchronous generator(induction generator) supply’s only active power and observe reactive power for magnetizing.This type of generators are used in windmills.
  44. What is the Polarization index value ? (pi value)and simple definition of polarization index ?
    Its ratio between insulation resistance(IR)i.e meggar value for 0min to insulation resistance for min. It ranges from 5-7 for new motors & normally for motor to be in good condition it should be Greater than .5 .
  45. Why syn. generators are used for the production of electricity?
    synchronous machines have capability to work on different power factor(or say different imaginary power varying the field emf. Hence syn. generators r used for the production of electricity.
  46. What is the difference between synchronous generator & asynchronous generator?
    In simple, synchronous generator supply’s both active and reactive power but asynchronous generator(induction generator) supply’s only active power and observe reactive power for magnetizing.This type of generators are used in windmills.
  47. 1 ton is equal to how many watts?
    1 ton = 12000 BTU/hr and to convert BTU/hr to horsepower, 12,000 * 0.000929 = 4.715 hp therefore 1 ton = 4.715*.746 = .5 KW.
  48. why syn. generators r used for the production of electricity?
    synchronous machines have capability to work on different power factor(or say different imaginary pow varying the field emf. Hence syn. generators r used for the production of electricity.
  49. Enlist types of dc generator?
    D.C.Generators are classified into two types:
  50. separately excited d.c.generator
  51. self excited d.c.generator,
    which is further classified into;1)series 2)shunt and compound(which is further classified into cumulative and differential).
  52. What is Automatic Voltage regulator(AVR)?
    AVR is an abbreviation for Automatic Voltage Regulator.It is important part in Synchronous Generators, it controls the output voltage of the generator by controlling its excitation current. Thus it can control the output Reactive Power of the Generator.
  53. What is an exciter and how does it work?
    There are two types of exciters, static exciter and rotory exciter.purpose of excitor is to supply the excitation dc voltage to the fixed poles of generator.Rotory excitor is an additional small generator mounted on the shaft of main generator. if it is dc generator, it will supply dc to the rotory poles through slip ring and brushes( conventional alternator). if it is an ac excitor, out put of ac excitor is rectified by rotating diodes and supply dc to main fixed poles.ac excitor is the ac generator whose field winding are stationary and armature rotates. initial voltage is built up by residual magnetism.It gives the starting torque to the generator.

    1. Difference between a four point starter and three point starter?
      The shunt connection in four point stater is provided separately form the line where as in three point stater it is connected with line which is the drawback in three point stater
    2. Why use the VCB at High Transmission System ? Why can’t use ACB?
      Actually the thing is vacuum has high arc quenching property compare to air because in VCB ,the die electric strengths equal to 8 times of air . That y always vacuum used as inHT breaker and air used as in LT .
    3. What is the difference between surge arrestor and lightning arrestor?
      LA is installed outside and the effect of lightning is grounded,where as surge arrestor installed inside panels comprising of resistors which consumes the energy and nullify the effect of surge.
    4. What happens if i connect a capacitor to a generator load?
      Connecting a capacitor across a generator always improves power factor,but it will help depends up on the engine capacity of the alternator,other wise the alternator will be over loaded due to the extra watts consumed due to the improvement on pf. Secondly, don’t connect a capacitor across an alternator while it is picking up or without any other load.
    5. Why the capacitors works on ac only?
      Generally capacitor gives infinite resistance to dc components(i.e., block the dc components). it allows the ac
      components to pass through.
    6. Explain the working principal of the circuit breaker?
      Circuit Breaker is one which makes or breaks the circuit.It has two contacts namely fixed contact & moving contact.under normal condition the moving contact comes in contact with fixed contact thereby forming the closed contact for the flow of current. During abnormal & faulty conditions(when current exceeds the rated value) an arc is produced between the fixed & moving contacts & thereby it forms the open circuit Arc is extinguished by the Arc Quenching media like air, oil, vacuum etc.
    7. How many types of colling system it transformers?
    • ONAN (oil natural,air natural)
    • ONAF (oil natural,air forced)
    • OFAF (oil forced,air forced)
    • ODWF (oil direct,water forced)
    • OFAN (oil forced,air forced)
    1. Define What is the function of anti-pumping in circuit breaker?
      when breaker is close at one time by close push button,the anti pumping contactor prevent re close the breaker by close push button after if it already close.
    2. What is stepper motor.what is its uses?
      Stepper motor is the electrical machine which act upon input pulse applied to it. it is one type of synchronous motor which runs in steps in either direction instead of running in complete cycle.so, in automation parts it is used.
    3. How to calculate capacitor bank value to maintain unity power factor with some suitable example?
      KVAR= KW(TAN(COS(-1)#e)- TAN(COS(-1)#d) )
      #e= EXISTING P.F.
      #d= DESIRED P.F.
    4. Tell me in detail about c.t. and p.t. ?(Company:reliance)
      The term C.T means current transformer,and the term P.T means potential transformer.In circuit where measurements of high voltage and high current is involved they are used there.Particularly when a measuring device like voltmeter or ammeter is not able to measure such high value of quantity because of large value of torque due to such high value it can damage the measuring device.so, CT and PT are introduced in the circuits.
      They work on the same principle of transformer, which is based on linkage of electromagnetic flux produced by primary with secondary.They work on the ratio to they are designed.E.g if CTis of ratio 50005A and it has to measure secondary current of 8000A.then ANS=8000*55000=8Aand this result will be given to ammeter .and after measuring 8A we can calculate the primary current.same is the operation of PT but measuring voltage.
    5. There are a Transformer and an induction machine. Those two have the same supply. For which device the load current will be maximum? And why?
      The motor has max load current compare to that of transformer because the motor consumes real power.. and the transformer is only producing the working flux and its not consuming.. hence the load current in the transformer is because of core loss so it is minimum.
    6. What is power factor? whether it should be high or low? why?
      Power factor should be high in order to get smooth operation of the system.Low power factor means losses will be more.it is the ratio of true power to apparent power. it has to be ideally 1. if it is too low then cable over heating & equipment overloading will occur. if it is greater than 1 then load will act as capacitor and starts feeding the source and will cause tripping.(if pf is poor ex: 0.17 to meet actual power load has to draw
      more current(V constant),result in more losses if pf is good ex: 0.95 to meet actual power load has to draw less current(V constant),result in less losses).
    7. What is the difference between Isolator and Circuit Breaker?
      Isolator is a off load device which is used for isolating the downstream circuits from upstream circuits for the reason of any maintenance on downstream circuits. it is manually operated and does not contain any solenoid unlike circuit breaker. it should not be operated while it is having load. first the load on it must be made zero and then it can safely operated. its specification only rated current is given.But circuit breaker is
      onload automatic device used for breaking the circuit in case of abnormal conditions like short circuit, overload etc., it is having three specification 1 is rated current and 2 is short circuit breaking capacity and 3 is instantaneous tripping current.
    8. what is boucholz relay and the significance of it in to the transformer?
      Boucholz relay is a device which is used for the protection of transformer from its internal faults, it is a gas based relay. whenever any internal fault occurs in a transformer, the boucholz relay at once gives a horn for some time, if the transformer is isolated from the circuit then it stop its sound itself other wise it trips the circuit by its own tripping mechanism.
    9. What is SF6 Circuit Breaker?
      SF6 is Sulpher hexa Flouride gas.. if this gas is used as arc quenching medium in a Circuitbreaker means SF6 CB.
    10. What is frantic effect?
      Output voltage is greater than the input voltage or receiving end voltage is greater than the sending end voltage.
    11. What is meant by insulation voltage in cables? explain it?
      It is the property of a cable by virtue of it can withstand the applied voltage without rupturing it is known as insulation level of the cable.
    12. Why we do 2 types of earthing on transformer (ie:)body earthing & neutral earthing , what is function. i am going to install a oo kva transformer & 380 kva DG set what should the earthing value?
      The two types of earthing are Familiar as Equipment earthing and system earthing. In Equipment earthing:
      body ( non conducting part)of the equipment shouldd be earthed to safegaurd the human beings.system Earthing : In this neutral of the supply source ( Transformer or Generator) should be grounded. With this,in case of unbalanced loading neutral will not be shifted.so that unbalanced voltages will not arise. We can protect the equipment also. With size of the equipment( transformer or alternator)and selection of relying system earthing will be further classified into directly earthed,Impedance earthing, resistive (NGRs) earthing.
    13. What is the difference between MCB & MCCB, Where it can be used?
      MCB is miniature circuit breaker which is thermal operated and use for short circuit protection in small current rating circuit. MCCB moulded case circuit breaker and is thermal operated for over load current and magnetic operation for instant trip in short circuit condition.under voltage and under frequency may be inbuilt. Normally it is used where normal current is more than 100A.
    14. Where should the lighting arrestor be placed in distribution lines?
      Near distribution transformers and out going feeders of 11kv and incomming feeder of 33kv and near power transformers in sub-stations.
    15. Define IDMT relay?
      It is an inverse definite minimum time relay.In IDMT relay its operating is inversely proportional and also a characteristic of minimum time after which this relay operates.It is inverse in the sense ,the tripping time will decrease as the magnitude of fault current increase.
    16. What are the transformer losses?
      TRANSFORMER LOSSES – Transformer losses have two sources-copper loss and magnetic loss. Copper losses are caused by the resistance of the wire (I2R). Magnetic losses are caused by eddy currents and hysteresis in the core. Copper loss is a constant after the coil has been wound and therefore a measurable loss.
      Hysteresis loss is constant for a particular voltage and current. Eddy-current loss, however, is different for each frequency passed through the transformer.
    17. What is the count of hvdc transmission lines in India?
      Resolution:At present there are three hvdc transmission lines in india
    • chandrapur to padghe(mumbai)–(100 MW at ±00 kV DC)
    • rehand to delhi (100 MW at ±00 kV DC)
      • talchal to kolar (200 MW)
      1. What is meant by regenerative braking?
        Resolution:When the supply is cutt off for a running motor, it still continue running due to inertia. In order to stop it quickly we place a load(resitor) across the armature winding and the motor should have maintained continuous field supply. so that back e.m.f voltage is made to apply across the resistor and due to load the motor stops quickly.This type of breaking is called as “Regenerative Breaking”.
      2. Why is the starting current high in a DC motor?
        Resolution:In DC motors, Voltage equation is V=Eb-IaRa (V = Terminal voltage,Eb = Back emf in Motor,Ia = Armature current,Ra = Aramture resistance).At starting, Eb is zero. Therefore, V=IaRa, Ia = V/Ra ,where Ra is very less like 0.01ohm.i.e, Ia will become enormously increased.
      3. What are the advantages of star-delta starter with induction motor?
        Resolution:
        (1). The main advantage of using the star delta starter is reduction of current during the starting of the motor.Starting current is reduced to 3-4 times Of current of Direct online starting.
        (2). Hence the starting current is reduced , the voltage drops during the starting of motor in systems are reduced.
      4. Why Delta Star Transformers are used for Lighting Loads?
        Resolution:For lighting loads, neutral conductor is must and hence the secondary must be star winding. and this lighting load is always unbalanced in all three phases. To minimize the current unbalance in the primary we use delta winding in the primary. So delta / star transformer is used for lighting loads.
      5. Why in a three pin plug the earth pin is thicker and longer than the other pins?
        Resolution:It depends upon R=rho l/a where area(a) is inversely proportional to resistance (R), so if (a) increases, R decreases & if R is less the leakage current will take low resistance path so the earth pin should be thicker. It is longer because the The First to make the connection and Last to disconnnect should be earth Pin. This assures Safety for the person who uses the electrical instrument.
      6. Why series motor cannot be started on no-load?
        Resolution:Series motor cannot be started without load because of high starting torque. Series motor are used in Trains, Crane etc.
      7. Why ELCB can’t work if N input of ELCB do not connect to ground?
        Resolution:ELCB is used to detect earth leakage fault. Once the phase and neutral are connected in an ELCB, the current will flow through phase and that much current will have to return neutral so resultant current is zero. Once there is a ground fault in the load side, current from phase will directly pass through earth and it will not return through neutral through ELCB. That means once side current is going and not returning and hence
        because of this difference in current ELCB wil trip and it will safe guard the other circuits from faulty loads. If the neutral is not grounded, fault current will definitely high and that full fault current will come back through ELCB, and there will be no difference in current.
      8. How electrical power is generated by an A.C Generator?
        For the generation of elect power we need a prime mover which supplies mechanical power input to the
        alternator, can be steam turbines,or hydro turbines .When poles of the rotor moves under the armature
        conductors which are placed on the stator ,field flux cut the armature conductor ,therefore voltage is generated
        and is of sinusoidal in nature…due to polarity change of rotor poles(i,e) N-S-N-S.
      9. Why an ac solenoid valve attract the plunger even though we interchanges the terminal? Will the poles changes?
        Yes because the poles changes for every half-cycle of ac voltage so the polarity of AC voltage is continuously changing for every half cycle. so, interchanging of terminals in ac system does not show any difference. That’s why the ac solenoid attract the plunger even though it’s terminals are interchanged.
      10. What is derating?, why it is necessary, it is same for all means for drives, motors,and cables.
        The current currying of cables will change depending upon the site temperature (location of site), type of run (it will run through duct, trench, buried etc.), number of tray, depth of trench, distance between cables. Considering this condition actual current currying capacity of cable reduce than current currying capacity (which given to cable Catalogue) this is called derating.
      11. Why temperature rise is conducted in bus bars and isolators?
        Bus bars and isolators are rated for continuous power flow, that means they carry heavy currents which rises their temperature. so it is necessary to test this devices for temperature rise.
      12. When voltage increases then current also increases then what is the need of over voltage relay and over current relay? Can we measure over voltage and over current by measuring current only?
        No.We can’t sense the over voltage by just measuring the current only because the current increases not only for over voltages but also for under voltage(As most of the loads are non-linear in nature).So,the over voltage protection & over current protection are completely different. Over voltage relay meant for sensing over voltages & protect the system from insulation break down and firing. Over current relay meant for sensing any
        internal short circuit, over load condition ,earth fault thereby reducing the system failure & risk of fire.So, for a better protection of the system.It should have both over voltage & over current relay.
      13. If one lamp connects between two phases it will glow or not?
        If the voltage between the two phase is equal to the lamp voltage then the lamp will glow. When the voltage difference is big it will damage the lamp and when the difference is smaller the lamp will glow depending on the type of lamp.
      14. How do you select a cable size (Cu & Al) for a particular load?
        At first calculate the electrical current of the load, after that derate the electrical current considering derating factor(depending on site condition and laying of cable) after choose the cable size from cable catalog considering derating electrical current.After that measure the length of cable required from supply point of load to load poin. Calculate the voltage drop which will max 3% (resistance and reactance of cable found from
        cable catalog of selecting cable) if voltage drop>3% then choose next higher size of cable.
      15. What are HRC fuses and where it is used?
        HRC stand for “high rupturing capacity” fuse and it is used in distribution system for electrical transformers.
      16. Which power plant has high load factor?
        All base load power plants have a high load factor. If we use high efficiency power plants to supply the base load,we can reduce the cost of generation.Hydel power plants have a higher efficiency than thermal & nuclear power plants.
      17. Mention the methods for starting an induction motor?
        The different methods of starting an induction motor
      • DOL:direct online starter
      • Star delta starter
      • Auto transformer starter
      • Resistance starter
      • Series reactor starter
      1. What is the difference between earth resistance and earth electrode resistance?
        Only one of the terminals is evident in the earth resistance. In order to find the second terminal we should recourse to its definition: Earth Resistance is the resistance existing between the electrically accessible part of a buried electrode and another point of the earth, which is far away. The resistance of the electrode has the following components:
        (A) the resistance of the metal and that of the connection to it.
        (B) the contact resistance of the surrounding earth to the electrode.
      2. Explain What is use of lockout relay in ht voltage?
        A lock-out relay is generally placed in line before or after the e-stop switch so the power can be shut off at one central location. This relay is powered by the same electrical source as the control power and is operated by a key lock switch. The relay itself may have up to 24 contact points within the unit itself. This allows the control power for multiple machines to be locked out by the turn of a single key switch.
      3. What is the power factor of an alternator at no load?
        At no load Synchronous Impedance of the alternator is responsible for creating angle difference. So it should be zero lagging like inductor.
      4. Explain How to determine capacitor tolerance codes?
        Resolution:In electronic circuits, the capacitor tolerance can be determined by a code that appears on the casing. The code is a letter that often follows a three-digit number (such as 130Z).The first two are the 1st and 2nd significant digits and the third is a multiplier code. Most of the time the last digit tells you how many zeros to write after the first two digits and these are read as Pico-Farads.
      5. Why most of analog o/p devices having o/p range 4 to 20 mA and not 0 to 20 mA?
        Resolution:4-20 mA is a standard range used to indicate measured values for any process. The reason that 4ma is chosen instead of 0 mA is for fail safe operation .For example- a pressure instrument gives output 4mA to indicate 0 psi, up to 20 mA to indicate 100 psi, or full scale. Due to any problem in instrument (i.e) broken wire, its output reduces to 0 mA. So if range is 0-20 mA then we can differentiate whether it is due to broken
        wire or due to 0 psi.
      6. Two bulbs of 100w and 40w respectively connected in series across a 230v supply which bulb will glow bright and why?
        Resolution:Since two bulbs are in series they will get equal amount of electrical current but as the supply voltage is constant across the bulb(P=V^2/R).So the resistance of 40W bulb is greater and voltage across 40W is more (V=IR) so 40W bulb will glow brighter.

        1. What is meant by knee point voltage?
          Resolution:Knee point voltage is calculated for electrical Current transformers and is very important factor to choose a CT. It is the voltage at which a CT gets saturated.(CT-current transformer).
        2. What is reverse power relay?
          Resolution:Reverse Power flow relay are used in generating stations’s protection. A generating stations is supposed to fed power to the grid and in case generating units are off,there is no generation in the plant then plant may take power from grid. To stop the flow of power from grid to generator we use reverse power relay.
        3. What will happen if DC supply is given on the primary of a transformer?
          Resolution:Mainly transformer has high inductance and low resistance.In case of DC supply there is no inductance ,only resistance will act in the –> electrical circuit. So high electrical current will flow through primary side of the transformer.So for this reason coil and insulation will burn out.
        4. What is the difference between isolators and –>electrical circuit breakers? What is bus-bar?
          Resolution:Isolators are mainly for switching purpose under normal conditions but they cannot operate in fault conditions .Actually they used for isolating the CBs for maintenance. Whereas CB gets activated under fault conditions according to the fault detected.Bus bar is nothing but a junction where the power is getting distributed for independent loads.
        5. What are the advantage of free wheeling diode in a Full Wave rectifier?
          Resolution:It reduces the harmonics and it also reduces sparking and arching across the mechanical switch so that it reduces the voltage spike seen in a inductive load
        6. What is the function of interposing current transformer?
          Resolution:The main function of an interposing current transformer is to balance the currents supplied to the relay where there would otherwise be an imbalance due to the ratios of the main current transformers.
          Interposing current transformer are equipped with a wide range of taps that can be selected by the user to achieve the balance required.
        7. What are Motor Generator Sets and explain the different ways the motor generator set can be used ?
          Resolution:Motor Generator Sets are a combination of an electrical generator and an engine mounted together to form a single piece of equipment. Motor generator set is also referred to as a genset, or more commonly, a generator.
          The motor generator set can used in the following different ways:
        • Alternating current (AC) to direct current (DC)
        • DC to AC
        • DC at one voltage to DC at another voltage
        • AC at one frequency to AC at another harmonically-related frequency

 

 

EEE Multiple choice Questions with Answers

Network Theorems

  1. Kirchhoff s current law states that
    (a) net current flow at the junction is positive
    (b) Hebraic sum of the currents meeting at the junction is zero
    (c) no current can leave the junction without some current entering it.
    (d) total sum of currents meeting at the junction is zero
    Ans: b
  2. According to Kirchhoffs voltage law, the algebraic sum of all IR drops and e.m.fs. in any closed loop of a network is always
    (a) negative
    (b) positive
    (c) determined by battery e.m.fs.
    (d) zero
    Ans: d
  3. Kirchhoffs current law is applicable to only
    (a) junction in a network
    (b) closed loops in a network
    (c) electric circuits
    (d) electronic circuits
    Ans: a
  4. Kirchhoffs voltage law is related to
    (a) junction currents
    (b) battery e.m.fs.
    (c) IR drops
    (d) both (b) and (c)
    (e) none of the above
    Ans: d
  5. Superposition theorem can be applied only to circuits having
    (a) resistive elements
    (b) passive elements
    (c) non-linear elements
    (d) linear bilateral elements
    Ans: d
  6. The concept on which Superposition theorem is based is
    (a) reciprocity
    (b) duality
    (c) non-linearity
    (d) linearity
    Ans: d
  7. Thevenin resistance Rth is found
    (a) by removing voltage sources along with their internal resistances
    (6) by short-circuiting the given two terminals
    (c) between any two ‘open’ terminals
    (d) between same open terminals as for Etk
    Ans: d
  8. An ideal voltage source should have
    (a) large value of e.m.f.
    (b) small value of e.m.f.
    (c) zero source resistance
    (d) infinite source resistance
    Ans: c
  9. For a voltage source
    (a) terminal voltage is always lower than source e.m.f.
    (b) terminal voltage cannot be higher than source e.m.f.
    (c) the source e.m.f. and terminal voltage are equal
    Ans: b
  10. To determine the polarity of the voltage drop across a resistor, it is necessary to know
    (a) value of current through the resistor
    (b) direction of current through the resistor
    (c) value of resistor
    (d) e.m.fs. in the circuit
    Ans: b
  11. “Maximum power output is obtained from a network when the load resistance is equal to the output resistance of the network as seen from the terminals of the load”. The above statement is associated with
    (a) Millman’s theorem
    (b) Thevenin’s theorem
    (c) Superposition theorem
    (d) Maximum power transfe